একটা দুরন্ত আগামীকালের অপেক্ষায় আছি

সত্যি বলতে কী আমাদের অনেকেই ছোট বেলায় লি-শোয়েব দের নকল করেছি,
ম্যাকগ্রাথ, ওয়াসিম আকরাম দের মতন হতে চেয়েছি, ক্রিকেট বলতে আমাদের পাড়া মহল্লা গুলো দুটো ভাগে ভাগ হয়ে যাওয়া পাকিস্তান – ভারত বিবাদ, কখনও বা অস্ট্রেলিয়া-আফ্রিকা নিয়ে কথার দ্বন্দ্বে সীমাবদ্ধ ছিল, নিজের দেশ কে দুধ ভাত হিসেবে দেখেছি, আমাদের ভৌগলিক কিংবা রাজনৈতিক নতজানুতা আর পররাষ্ট্রীয় দাসত্ব আমাদের মননে চিরকাল গেথে রেখেছিল যে আমরা ছাগলের ৩ নম্বর বাচ্চা … কালে ভদ্রে আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলব, ৫০ ওভার ব্যাটিং করে দুই আড়াইশ রান, সাথে কারও ফিফটি , বোলিং এ কারও ৩-৪ উইকেট কিংবা কোন রফিক-আকরামের ছয় ই আমাদের সান্ত্বনা হয়েছিল বহু বছর, খুব বেশিদিন হয় নি, স্টিভ ওয়াহ আশরাফুল কে বলেছিলেন “কেয়ার্ন্স এ ফিফিটি করতে পারলে আমার গ্লাভসগুলো তোমাকে গিফট করব” …আশরাফুল নার্ভাসনেসে ডাক মেরে আসে … ওয়াহ তবু গ্লাভস গুলো দিয়ে এসেছিলেন …

বিশ্বকাপেও আমাদের মনের মাঝে থাকত ভারত বা পাকিস্তান কাপ জিতুক, কেউ চাইতাম অস্ট্রেলিয়া বা সাউথ আফ্রিকা । এর কারণ কী ? আমরা ধরেই নিয়েছি কাপ জেতা এই সাতক্ষীরা-বাগেরহাট-রংপুর-ময়মন্সিংহের ছেলেগুলোকে দিয়ে হবে না … ঐ যে হাজার বছরের দাসত্ব , তা একেবারে মনে এসে গেথে গেছে…
শুধু এইই না, আমাদের বোর্ডের কর্তা ব্যক্তিরা আরও ভাল চালাতে পারতেন, এখনও পারেন, এই ছেলেগুলো আজ মাঠে ভাল খেলছে দেখে এদের জারিজুরি ক্ষমতার বাহাদুরি কিংবা স্বেচ্ছাচারি কে আপনি মুখ বুজে সহ্য করবেন তা হয় না … আজকের সাফল্য চিরকালীন নয়, আজকের সাফল্য যেন আগামীকালেও পথ মসৃন করে দেয় সেদিকে আমাদের নজর রাখতে হবে …

গ্রাম গঞ্জ থেকে উঠে আসা রোগা পটকা মোস্তাফিজ-নাসির-তাইজুল আর শহুরে আভিজাত্যে বড় হওয়া তামিম দের মাঠে দেখেছেন কোন ভেদাভেদ নাই ? এক সাথে লড়ছে দেশের জন্যে ?
এই যে নাস্তিক মহল ধর্ম কে বৃদ্ধাঙ্গুল দেখাতে চেয়ে উলটো অস্থিরতা ডেকে আনার পায়তারা করে, কই সৌম্য-তামিম রা তো এক সাথে পাকিস্তান-ভারতের বিপরীতে লড়ে … তামিমের উপাস্যের প্রতি তামিমের বিশ্বাস, ভক্তি, সৌম্য কিংবা লিটনের নাহয় আলাদা … কিন্তু পরিচয় টা যখন ওরা বাংলাদেশী বাঙালি তখন এই সব তো ঘুচে যাবার ই তাই না ?

সৌম্য চেহারার তাসকিন কিংবা লোনা পানি আর রৌদ্রে পোড়া রুবেল কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে নেতা মাশরাফি র সাথে যখন হুংকার ছাড়ে যেকোন প্রতিপক্ষের বিপক্ষে ওদের পেছনে থাকে গোটা বাংলাদেশ… রিক্সাওয়ালা টা থেকে শুরু করে আপনার বড় অফিসের বড় কর্তা টাও …
এখানেই হয়ত একমাত্র বিভেদ ঘুচিয়ে এক হবার সব থেকে বড় প্ল্যাটফর্ম,
এই প্ল্যাটফর্ম এখন থেকে নির্ভরতা আর আত্ম মর্যাদার প্ল্যাট ফর্ম হোক, আমাদের মধ্যে থেকে অন্য দেশে প্রীতি দূর হোক, এই বিশ্বাস আসুক, বিশ্ব মঞ্চে আমরাও জিততে পারি , আমরাও হারাতে পারি যেকোন প্রতিপক্ষ কে …

একটা দুরন্ত আগামীকালের অপেক্ষায় আছি 🙂

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

five × one =