তিতের তিনে তিন

ফুলটাইম
ব্রাজিল ৫-০ বলিভিয়া

১১’ নেইমার (জেসুস)
২৫’ কৌতিনহো (গুইলিয়ানো)
৩৯’ লুইস ( নেইমার)
৪৪’ জেসুস (নেইমার)
৭৫’ ফিরমিনো (কৌতিনহো)

টিটে আসার পর টানা তিন ম্যাচে জয় ? পুরো ম্যাচজুড়েই বেশ গোছানো ফুটবল খেলেছে ব্রাজিল।বল যখন নিজেদের পায়ে ছিল তখন ছোট ছোট পাসে অ্যাটাক বিল্ড আপের চেষ্টা করা হয়েছে আর বল বলিভিয়ার পায়ে যাওয়া মাত্রই হাই প্রেস করে আবার বল নিজেদের কন্ট্রোলে এনে খেলাটা নিয়ন্ত্রণ করেছে।ঠিক এমন একটা হাই প্রেসিং থেকে অসাধারণভাবে বল উইন করে জেসাসের সাথে বল আদান প্রদান করে দলকে এগিয়ে দেন বর্তমানে জাতীয় দলের বিশ্বসেরা প্লেয়ার নেইমার ? এরপর ২৬ মিনিটে বলিভিয়ার দুইজন ডিফেন্ডারকে ড্রিবল আউট করে অসাধারণ এক চান্স ক্রিয়েট করেন জিউলিয়ানো আর সেই চান্সকে কুল ফিনিশিং এ গোলে কনভার্ট করেন লিভারপুলের ম্যাজিশিয়ান কৌতিনহো ? ৩৯ মিনিটে নেইমির অসাধারণ লব থ্রু থেকে গোল করে ব্যবধান ৩-০ করেন ফিলিপ লুউস ? ৪৪ মিনিটে আবার নেইমির লব থ্রু তবে এবার আরো অসাধারণ লব শটের মাধ্যমে গোল করেন ব্রাজিলের নিউ পোস্টার বয় গ্যাব্রিয়েল জেসাস।প্রথমার্ধে ৪-০ তে এগিয়ে থাকায় দ্বিতীয়ার্ধে ব্রাজিল বেশ ঢিমেতালেই খেলেছে।দ্বিতীয়ার্ধের উল্লেখযোগ্য ঘটনা ৭৫ মিনিটে কৌটার কর্ণার থেকে ফিরমিনোর গোল ?। ৫-০ গোলের এই জয় নিশ্চিত করলো পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থান ?

ম্যাচের একমাত্র নেগেটিভ সাইড ৩৭ মিনিটে অহেতুক নেইমির অহেতুক হলুদ কার্ড দেখা ??? এই হলুদ কার্ডের কারণে ভেনিজুয়েলার বিরুদ্ধে অ্যাওয়ে ম্যাচ মিস করবেন নেইমার ? নেইমার যাতে খেলার মাঠে এভাবে টেম্পার লুজ না করে এব্যাপারটা টিটেকে দেখতেই হবে।এভাবে নিজেদের সেরা অস্ত্রকে না পাওয়াটা হতাশাজনক। ম্যাচে মোটামুটি সবাই ক্লিনিকাল ছিল, বলিভিয়ার অ্যাটাকাররা অত্ত স্ট্রং ছিল না তাই আলভেসকেও সলিড লেগেছে ? রেনেটোর কাছ থেকে ক্রিয়েটিভ প্লে আজও দেখলাম না,এই পজিশনে অস্কার ওরচেয়ে ফার বেটার অপশন। হোপফুললি রেনেটো খুব শীঘ্রই ইনজুরড বা সাসপেন্ড হয়ে দলকে চায়না ভাইরাসমুক্ত করতে অবদান রাখবে ? মিরান্ডা মার্কু বেশ ভালো খেলছে তাই টাইগারকে কামব্যাকের জন্য আপাতত আরেকটু অপেক্ষা করতে হচ্ছে ?

একজনের ব্যাপারে আলাদা করে বলতেই হয় সে হচ্ছে এলিসন।নাহ,এই ম্যাচে বলিভিয়া এমন কোনো আক্রমণ করার সুযোগ পায় নি যে তার অসাধারণ কোনো সেভ নিয়ে কথা বলবো,আমি মুগ্ধ এলিসনের বল ডিস্ট্রিবিউশনে ? যখনই বল রিলিজ করেছে একদম পারফেক্ট প্লেয়ারকেই দিয়েছে।দুই দুইটা ক্লিয়ার কাট চান্স ওর অসাধারণ বল ডিস্ট্রিবিউশনের জন্যই ক্রিয়েট হয়েছে।বর্তমান যুগে এমন সুইপার গোলকিপার থাকাটা দলের জন্য অনেক বড় প্লাসপয়েন্ট….

পরিশেষে একটাই চাওয়া,নেইমিকে ছাড়াই যেনো আমরা ভেনিজুয়েলা থেকে তিন পয়েন্ট নিয়ে এসে সুপার ক্ল্যাসিকোর জন্য পুরোপুরি তৈরি হতে পারি ?
গ্রান্দে ব্রাজিল

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

3 × 1 =