হার্টের জায়গায় ব্রাভো?

লিভারপুলের বেলজিয়ান স্ট্রাইকার ক্রিস্টিয়ান বেনটেকেকে নিয়ে ওয়েস্টব্রম ও ক্রিস্টাল প্যালেসের লড়াইটা আরো প্রকাশ্য হয়ে উঠেছে। গত মৌসুমে অ্যাস্টন ভিলা থেকে ৩২.৫ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে লিভারপুলে আসা বেনটেকেকে সেই মূল্যের এতটুকু কমেও ছাড়তে রাজী না অল রেডস রা। এই মূল্যে এখন প্যালেস না ব্রম, বেনটেকেকে নেওয়ার লড়াইয়ে কারা জয়ী হয়, এটাই দেখার বিষয়। এদিকে ৩০ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে ক্রিস্টাল প্যালেস থেকে এভারটনে নাম লেখাচ্ছেন উইঙ্গার ইয়ানিক বোলাসি, এই অর্থ প্যালেসের কাছে আসার সাথে সাথেই যে তাঁরা বেনটেকেকে নেওয়ার ব্যাপারে আরো উদ্যোগী হবে, সেটা বলেই দেওয়া যায়। আবার প্যালেসের অধিনায়ক অস্ট্রেলিয়ান ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার মেইল ইয়েদিনাকও চলে যাচ্ছেন অ্যাস্টন ভিলা তে।

ফিওরেন্টিনার ক্রোয়েশিয়ান স্ট্রাইকার নিকোলা কালিনিচকে পাওয়ার জন্য ২১ মিলিয়ন পাউন্ডের একটা প্রস্তাব রেখেছে এভারটন, কিন্তু সেটা ফিরিয়ে দিয়েছে ফিওরেন্টিনা, তাঁরা চায় ৩৫ মিলিয়ন ইউরোর কাছাকাছি। বার্সেলোনার স্প্যানিশ উইঙ্গার ক্রিস্টিয়ান তেয়োকে পাকাপাকিভাবে দলে নেওয়ার ব্যাপারে অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছে ফিওরেন্টিনা। গত মৌসুমে ধারে ফিওরেন্টিনায় ১৫ ম্যাচ খেলে দুই গোল করেছিলেন তেয়ো, এবার সেই তেয়োকেই ৮ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে পাকাপাকিভাবে দলে আনতে চায় ফিওরেন্টিনা।

দলবদলের খেলায় যোগ দিয়েছে ওয়াটফোর্ডও। জুভেন্টাসের আর্জেন্টাইন অ্যাটাকিং মিড রবার্তো পেরেইরাকে চায় তাঁরা, চেলসির তরুণ ব্রাজিলিয়ান স্ট্রাইকার কেনেডির দিকেও নজর আছে তাদের।

এদিকে ম্যানচেস্টার সিটির গোলরক্ষক হিসেবে জ্যো হার্টকে যে পেপ গার্দিওলার বিশেষ পছন্দ না সেটা বোঝা গেছে মৌসুমের প্রথম ম্যাচেই। স্যান্দারল্যান্ডের বিপক্ষে হার্টকে না নামিয়ে ব্যাকআপ গোলরক্ষক আর্জেন্টাইন উইলি ক্যাবায়েরোকে নামিয়ে দিয়েছিলেন গার্দিওলা। বলা হচ্ছে সিটিতে হার্টের দিন আর বেশী বাকী নেই, ম্যানচেস্টার সিটির নাম্বার ওয়ান হিসেবে বার্সেলোনার চিলিয়ান গোলরক্ষক ক্লদিও ব্রাভোকেই পছন্দ গার্দিওলার।

পিছিনে নেই ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডও। সাউদাম্পটনের অভিজ্ঞ পর্তুগীজ সেন্টারব্যাক ইউরোজয়ী হোসে ফন্টেকে দলে চাচ্ছেন হোসে মরিনহো, ৮ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে।

এদিকে আর্জেন্টিনার রেসিং ক্লাবের স্ট্রাইকার লটারো মার্টিনেজকে পাওয়ার লড়াইয়ে নেমেছে দুই স্প্যানিশ জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদ ও ভ্যালেন্সিয়া।

তোরিনোর ব্রাজিলিয়ান উইংব্যাক ব্রুনো পেরেসকে দলে পাওয়ার ব্যাপারে অনেকটাই নিশ্চিত এখন এএস রোমা। ১৫ মিলিয়ন ইউরোর এই চুক্তিতে এখন বাকী আছে শুধু তোরিনোর প্রেসিডেন্টের সম্মতি। আর পরবর্তীতে রোমা থেকে পেরেস যদি অন্য ক্লাবে যান, সেক্ষেত্রে সেই ট্রান্সফার ফি এর ২৫% যাবে তোরিনোর পকেটে।

এদিকে বোকা জুনিয়র্সের উরুগুইয়ান মিডফিল্ডার রদ্রিগো বেনতাঙ্কুরকে পাওয়ার লড়াইয়ে জুভেন্টাসকে হারানোর জন্য নিজেদের অফারটাকে আরেকটু বাড়িয়েছে এসি মিলান। ১৬ তারিখের মধ্যে ইতিবাচক কোন সাড়া না আসলে সেক্ষেত্রে রিয়াল মাদ্রিদের ক্রোয়েশিয়ান মিডফিল্ডার মাতেও কোভাচিচকে দলে নেওয়ার ব্যাপারে উদ্যোগী হবে এসি মিলান।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

5 × 2 =