পারলো না বাংলাদেশ

প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানের কাছে চার গোলের বড় পরাজয়ের পর সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে টিকে থাকতে হলে জিততেই হত বাংলাদেশকে। সেই কথা মাথায় রেখে শুরু থেকেই আক্রমণ চালাতে থাকে বাংলাদেশ। নিজেদের পায়ে বল রেখে আক্রমণ চালাতে থাকলেও গোলের দেখা পায়নি প্রথমার্ধে বাংলাদেশ। জাহিদের হেড বারে লেগে ফেরত আসে,রনির গোলমিস হয়। প্রথমার্ধের শেষ সময়ে বাংলাদেশের ডি বক্সের বাইরে থেকে নেয়া মালদ্বীপের শট বাংলাদেশি ডিফেন্ডার ওয়ালী ফয়সালের হাতে লাগায় পেনাল্টি দেন রেফারি। পেনাল্টি থেকে গোল করে মালদ্বীপকে এগিয়ে দেন মালদ্বীপ অধিনায়ক আলি আশফাক।

1937146_948312798583122_3957354281750137371_n

দ্বিতীয়ার্ধে শেষ সময়ে বাংলাদেশ এক গোল শোধ দিয়ে ম্যাচে ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করলেও কিছুক্ষণের মধ্যে দুই গোল দিয়ে বাংলাদেশেরর জেতার আশা শেষ করে দেয় মালদ্বীপ। প্রথম ম্যাচে আফগানিস্তানের কাছে ৪-০ গোলে হারার পর আজকে মালদ্বীপের কাছে ৩-১ গোলে হারলো বাংলাদেশ। এরই মাধ্যমে এবারের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে ছিটকে গেল বাংলাদেশ।গ্রুপ পর্বের ভুটানের সাথে শেষ ম্যাচটি হয়ে দাঁড়ালো শুধুই আনুষ্ঠানিকতার ম্যাচ। পুরো টুর্নামেন্ট জুড়েই ছিল বাংলাদেশি স্ট্রাইকারদের গোলমিসের মহড়া। সেই সাথে আবারো উঠে আসছে সেই প্রশ্ন, একজন নির্ভরযোগ্য স্ট্রাইকারের জন্য আর কত অপেক্ষা করতে হবে বাংলাদেশকে?

দিন দুনিয়া আগায় যায়, আর বাংলাদেশের ফুটবল খালি পিছায়। নামতে নামতে এখন আফগানিস্তানের কাছেও হারে,মালদ্বীপও হারায় দেয় বাংলাদেশকে! সারাদেশ খুঁজেও একটা জাতের স্ট্রাইকার বের করতে পারে না, আবার বাইরের স্ট্রাইকার এনে বাংলাদেশী জাতীয়তা দিয়ে খেলাতে চাইলে তখন আবার দেশী গুলার সম্মানে লাগে!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

2 + fourteen =