বুফন কেন পারবেন না!

জিয়ানলুইজি বুফন। তর্কযোগ্যভাবে সর্বকালের সেরা গোলরক্ষক। ইতালির হয়ে সবচেয়ে বেশীবার মাঠে নামা এই গোলবারের অতন্দ্র প্রহরী তাঁর মোটামুটি পঁচিশ বছরের ক্যারিয়ারের প্রায় সবকিছুই জিতেছেন। সে তালিকায় সিরি আ থেকে শুরু করে সিরি বি, কোপা ইতালিয়া, ইউয়েফা কাপ, সুপারকোপা ইতালিয়ানা, এমনকি বিশ্বকাপ – সবই থাকবে।

এই সুন্দর সাফল্যগাথায় কাঁটার মত বিঁধে আছে দুটি অপ্রাপ্তি – কখনো ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ ও ইউরো জিততে পারেননি তিনি। ২০০৩ চ্যাম্পিয়নস লিগে ফাইনালে হেরেছিলেন এসি মিলানের কাছে টাইব্রেকারে, আর এবার হারলেন বার্সেলোনার কাছে। আর ইউরোতে ইতালি দুইবার যখন ফাইনালে ওঠে ; ২০০০ সালে তখন চোটের কারণে টুর্নামেন্টেই খেলতে পারেননি তিনি, আর ২০১২ তে হেরেছিলেন স্পেইনের কাছে।

এই বুফন পরশুদিন বার্সার কাছে চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল হারার পর সংবাদ সম্মেলনে ঘোষণা দিয়ে বসলেন – জুভেন্টাসের হয়ে খেলা চালিয়ে যেতে চান আরও তিন বছর। পূরণ করতে চান তাঁর বাকী অপ্রাপ্তি।

hi-res-3b98aa062f0976310fcffe96720fb96b_crop_exact

এই তিনবছরে বুফন তারমানে চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ের সুযোগ পাবেন আরও তিনবার, ইউরো জয়ের সুযোগ পাবেন একবার।

এখন ৩৭ বছর বয়সী বুফন আরও তিনবছর খেলা চালিয়ে যেতে চাইলে তাঁর বয়স তখন হবে ৪০। ৪০ বছর বয়সী কেউ চ্যাম্পিয়নস লিগ বা ইউরো জিততে চাইছে, অন্য কেউ বললে হয়ত হাসির রোল উঠত বিশ্বজুড়ে।

কিন্তু তা উঠছেনা। উঠছেনা কারণ হয়ত তিনি বুফন বলেই। কিংবা বলা যেতে পারে তিনি একজন ইতালিয়ান, কিংবা আরেকটু পরিষ্কার করে বললে একজন ইতালিয়ান গোলরক্ষক বলেই তাঁর এই আশাকে কেউ হাসিতে উড়িয়ে দিচ্ছে না।

কি, পরিষ্কার হচ্ছে না? তাহলে হেঁয়ালি বাদ দেওয়া যাক। ইতালিয়ান গোলরক্ষকদের একরকম ইতিহাসই আছে দীর্ঘদিন ধরে টপ লেভেলে খেলার। তো, দেখে নেওয়া যাক বুফনের সেই সাত পূর্বসুরিকে যাঁরা বয়সের ভারে ন্যুব্জ হননি!

  •  দিনো জফ

তালিকায় প্রথমেই যার নাম আসবে তাঁকে বুফনের গুরু বললেও ভুল হবে না। বুফনের মত তিনিও জুভেন্টাসের অতন্দ্র প্রহরী ছিলেন এককালে, সবচেয়ে বেশী বয়সে অধিনায়ক হয়ে ইতালিকে জিতিয়েছেন ১৯৮২ বিশ্বকাপও, ঐ টুর্নামেন্টে হয়েছেন সেরা গোলরক্ষকও। ৪১ বছর ৭৬ দিন বয়স পর্যন্ত এই তারকাও বুফনের মত জিতেছেন সবকিছুই। লেভ ইয়াশিন ও গর্ডন ব্যাঙ্কসের পরে এই শতাব্দীর সেরা গোলরক্ষক তিনি। তিনি আর কেউ নন – দিনো জফ। ইতালির হয়ে ১১২ বার মাঠে নামা এই কিংবদন্তী জুভেন্টাস ছাড়াও খেলেছেন উদিনেসে ও নাপোলির হয়ে।

1587369_w2

  • ওয়াল্টার জেঙ্গা

ইতালির আরেক কিংবদন্তীতুল্য গোলরক্ষক। ইন্টারের হয়ে ১৭ বছরের ক্যারিয়ারে ৩২৮ বার মাঠে নামা এই গোলরক্ষক ইতালির হয়ে গোলকিপিং করেছেন ৫৮ ম্যাচে। খেলেছেন ৩৯ বছর বয়স পর্যন্ত।

Zenga Walter poster 2 park

  • মার্কো বালোত্তা

ইতালিতে সবচেয়ে বেশী বয়স পর্যন্ত খেলার রেকর্ড এই গোলরক্ষকের, খেলেছেন ৪৪ বছর ৩৮ দিন পর্যন্ত, সিরি আ ও চ্যাম্পিয়নস লিগে খেলা সবচে বুড়ো খেলোয়াড়ের তকমাও তাঁর গায়ে। খেলেছেন পারমা, লাজিও ও ইন্টার মিলানে।

ballotta4

  •  ফ্র্যান্সেসকো আন্তোনিওলি

৪২ বছর ২৩৫ দিন পর্যন্ত খেলে যাওয়া এই গোলরক্ষক খেলে গেছেন মিলানে, সাম্পদোরিয়ায় ও রোমায়।

  •  আলবার্তো ফন্টানা

নাপোলি ও ইন্টার মিলানের মত ক্লাবে খেলে যাওয়া এই গোলরক্ষক তাঁর শেষ ম্যাচ খেলেছেন ৪১ বছর ২৯৭ দিনে।

  •  এনরিকো আলবের্টোসি

৪০ বছর ১০০ দিন পর্যন্ত খেলে যাওয়া এই গোলরক্ষক খেলেছেন ফিওরেন্টিনা, ক্যালিয়ারি ও এসি মিলানের মত ক্লাবে

  •  জিয়ানলুকা পাগলিউচা

ইতালির হয়ে ৩৯ বার মাঠে নামা এই গোলরক্ষক খেলে গেছেন ৪০ বছর ৯২ দিন পর্যন্ত

21 Oct 1998:  Gianluca Pagliuca of Inter Milan in the UEFA Champions League match against Spartak Moscow at the San Siro in Milan, Italy. Inter won 2-1.  Mandatory Credit: Shaun Botterill /Allsport

এখন বলুন, পাগলুইচা-ফন্টানা-বালোত্তার মত খেলোয়াড়েরা পারলে, বুফনের মত বিশ্ব ইতিহাসের অন্যতম সেরা গোলরক্ষক কেন পারবেন না?

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

sixteen − 2 =