মুগ্ধতা ছড়াচ্ছে গোলকিপাররা!

মুগ্ধতা ছড়াচ্ছে গোলকিপাররা!

এই বিশ্বকাপে নকআউট পর্বের বেশকিছু ম্যাচ নিষ্পত্তি হয়েছে টাইব্রেকারে; ১২ গজ দূরত্ব থেকে কেউ হয়ে যাচ্ছে নায়ক, কেউ খলনায়ক! কেউ নিজের দেশকে নিয়ে গিয়েছে পরের ধাপে, কেউবা তল্পিতল্পা গুছিয়ে ফিরেছে বাড়ি!

এতো দুর্দান্ত পারফর্ম করা গোলকিপারদের আমরা মনে রাখব? নাকি সব যশকীর্তন হবে স্ট্রাইকারদের। আমাদের স্বভাবই এমন! আমরা সুন্দর সুন্দর গোল দেখতে পছন্দ করি; গোল ঠেকিয়ে দেওয়া কাউকে না!

কেউ যদি সর্বকালের সেরা ১০/১৫ ফুটবলারের নাম বলে তাহলে সেথায় পাইনা কোন গোলকিপারের নাম। লেভ ইয়াসিন, পিটার শিলটন, কান কিংবা সময়ের ইকার ক্যাসিয়াস, জিয়ানলুইজি বুফনের নাম আসেনা কেন? ঐ যে বললাম সবাই সুন্দর গোল দেখতে পছন্দ করে; দুর্দান্ত বল ঠেকানো না!

গুরু ইকার ক্যাসিয়াস একবার বলেছিলেন; ‘জীবনটা গোলকিপিংয়ের মতো! তুমি প্রতি ম্যাচে দুর্দান্ত সব সেভ করবে কিন্তু প্রশংসা জুটবেনা! আর যদি ভুলেও কখনো একটা সহজ সুযোগ মিস করে ফেল; তাহলে সব দায়ভার তোমার কাঁধে এসে পড়বে! সবাই নিন্দা করবে!’

২০১৮ বিশ্বকাপে প্রায় সব গোলকিপারের দুর্দান্ত পারফর্ম দেখতেছি। ড্যানিয়েল সুবাসিচ, ক্যাসপার শ্মাইকেল, জর্ডান পিকফোর্ড, হুগো লিওরিস, থিবো কর্তোয়া, ইগোর আকিনফিভ – আরও কত কে! ছোট দলের গোলকিপার হয়েও অনেক নামীদামী স্ট্রাইকারের বুলেট গতিতে মারা সব বল ঠেকাচ্ছে সব গোলকিপাররা। অনেকেই মুগ্ধতা ছড়াচ্ছে। আমি অবাক হচ্ছি তাদের পারফরমেন্সে।

এসব গোলকিপারদের মনে রেখো…

লিখেছেন – রিফাত এমিল

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

three × 1 =