ভুলের মিছিল, বৃষ্টিই ভরসা!

আমি কালকে ম্যাচ প্রিভিউতেই বলেছিলাম যে মুশফিক অধিনায়কত্ব করার মতো মানুষ না। শচীন যেমন অধিনায়ক হিসেবে পারেননি ভালো করতে, তেমনি তারও উচিৎ সরে যাওয়া। আজকে তিনি যে সিদ্ধান্ত গুলো নিলেন, তার আসলে কোন ব্যাখ্যা নেই। তিনি ক্যাপ্টেন থাকলে টেস্টে দেশের স্বপ্ন কখনও পূরণ হবেনা!! ২০১৪ সালে ওয়ানডেতে অনেক ম্যাচ আমরা হেরেছি তার এই বাজে নেতৃত্বের কারনে। চমক দিতে না জানা, অতি রক্ষনাত্মক এই অধিনায়কত্ব দিয়ে এই যুগে চলেনারে ভাই!
এক পেসার, চার স্পিনার নিয়ে ভারতের মতো দলের বিপক্ষে নামা কোন ধরনের কৌশল একটু বলবেন? প্রায় ১৭ বছর ধরে ক্রিকেট দেখি, এমন কৌশল তো কোন দিন কেউ কল্পনাও করেনি! কারন ঘূর্ণির মায়াজাল ছিন্ন করতে সবথেকে পটু এরাই। তো এদের বিপক্ষে আপনি এক হালি স্পিনার খেলাবেন কি তাদের জিতিয়ে দেবার জন্য?
আর শুভাগত হোম! এই লোকটাকে অবিলম্বে হোমে মানে বাড়িতে পাঠিয়ে দেওয়া উচিৎ! হাথুরু কি জেমি হতে চাচ্ছেন? মানে সাকিবের মতো হোমকে বিশেষজ্ঞ অফ স্পিনার হিসেবে খেলানো!! এই লোকটার থেকে অফ স্পিন তো আমি করতে পারি মনে হয়! আর যে ক্যাচ তিনি ছাড়লেন, এই পর্যায়ে এমন কাজের শাস্তি হচ্ছে দল থেকে বের করে দেওয়া।
সুভাগতর জায়গায় নাসিরকে নিলেও একটা যুক্তি থাকে। তিনি অফ স্পিন ভালোই করেন, ব্যাটিং তো ভালোই।
এক পেসার নিয়ে নামলেন কেন? কেন? কেন?? মান্না দের সেই গানের মতোই বলতে হয়,
\”খুব জানতে ইচ্ছে করে,
কিভাবে ভারতের বিপখে চার স্পিনার খেলতে পারে,
কিভাবে মুশফিকের মতো অধিনায়ক নিয়ে টেস্ট জয়ের স্বপ্ন দেখতে পারে,
তাও ভারতের বিপক্ষে!
খুব জানতে ইচ্ছে করে,
সুভাগত কিভাবে হোমে না গিয়ে আবারো দলে থাকতে পারে।
বৃষ্টি ছাড়া টেস্ট বাঁচানোর আর আশা নাইরে!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

3 × 1 =