উলটা দেজাভুঁ

বাচ্চারা, আজকের খেলাটা আমাকে ১০/১২ বছর আগে নিয়ে গেল! তখন বাংলাদেশের জায়গায় ছিল শ্রীলংকা আর শ্রীলংকার জায়গায় ছিল বাংলাদেশ।

ওরা তখন ওদের মত খেলে যাইত আর আমরা দাঁড়ায় দাঁড়ায় হাততালি দিতাম। জয়াসুরিয়া আতাপাত্তু সাংগা মাহেলা দিলশান এমনকি চামিন্দা ভাস পর্যন্ত পিটায় পিটায় পাছার ছাল উঠায় ফেলত আমাদের। এরপর ভাস মুরালি তো আছেই সাথে নুয়ান জয়সা ফারভিজ মাহারুফ উপুল চন্দনা মালিংগা বান্দারাও যেন একেকজন পেলে ম্যারাডোনা।
শেষের দিকে রফিক পিটায়পুটায় (সাথে সংগ্রামী সাথী হয়ে থাকত পাইলট-তাপস) যা একটু রান করত আর তাতেই অনেক আনন্দ পাইতাম! শ্রীলংকাকে পাইলে নাজমুল হোসেন কোত্থেকে জানি গ্লেন ম্যাকগ্রা হয়ে যাইত আর সেটাকেই মনে হইত আহা মধু।

ওই আমলে আমরা কাউকে হারাইতে না পারলে আদরযত্ন করে জিম্বাবুয়েকে দাওয়াত দিয়ে নিয়ে আসতাম (সেই ধারা অবশ্য এখনও বজায় আছে) আর শ্রীলংকা তখন সেই একই ধরনের আদর-আপ্যায়ন করত আমাদের।

দিন বদলাইসে। এখন শ্রীলংকা গায়েও লাগে না তেমন। ওদের দলে সবাই শিশু। রাসেল আর্নল্ড সকাল থেকে বলতেসে।

কই, আমাদের যখন সবাই শিশু ছিল তখন তো কাউরে এত সিম্প্যাথী মাড়াইতে দেখি নাই।

তেলাপোকা পর্যন্ত শুনতে হইসে।

যাক আজকে তোমাদের সম্মানজনক ভাবেই হারতে দিলাম। ব্যাপার না।

@জুহায়ের সাদমান খান

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

one × 2 =