কবে শিখবো সত্যিকারের টেস্ট?

দিনেশ চান্দিমাল ৩০০ বল খেলে ৪৬ স্ট্রাইক রেটে দশ বাউন্ডারি আর এক ওভার বাউন্ডারিতে খেললেন ১৩৮ রানের এক ঝকঝকে টেস্ট ইনিংস। আর আমাদের অনেক ব্যাটসম্যান ৩০০ বলের অর্ধেক বল খেলতে পারলেই করে ফেলতেন সেঞ্চুরি, ১৩৮ রানের অর্ধেক নিতেই খেলে ফেলতেন ১০ বাউন্ডারির চেয়েও বেশী! আমাদের অনেকের আবার ‘নিজস্ব খেলার স্টাইল’ থাকে তো! এসব কারণেই আমরা টেস্ট হেরে যাই, ড্র করতে পারা ম্যাচও দুই সেশনের আগে হেরে যাই!

আমাদের রাব্বি ৭০ বল খেলতে পারলে, আগাগোড়া ব্যাটসম্যান কেন ১৭০ বল খেলে ম্যাচ ড্র করতে পারেনা? মেরে খেলে ভালো ইনিংস খেলবে? ম্যাচ জেতাবে! এসব টেস্ট ক্রিকেটে বড্ড কঠিন। আর সবাই বীরু, ওয়ার্নার হতে পারেনা। দলের প্রয়োজনে তো ডি ভিলিয়ার্সও মাঠে পড়ে থেকে ম্যাচ বাঁচায়, তার সম্ভবত নিজস্ব খেলার স্টাইল নেই।

আমাদের ক্রিকেটারদের সম্ভবত কিংবদন্তি হওয়ার খুব ইচ্ছে নেই! ওরা নিজের দেশের সেরা কিংবা সেরার কাছাকাছি যেতে পারলেই খুশি। দলের ম্যাচ বাঁচানো নিয়ে কারো চিন্তা নেই, তৃপ্তিদায়ক এক ঝড়ো ইনিংস খেলতে পারলেই হয়!

আগে আমাদের টেস্ট শেখাতো সাঙ্গা, মাহেলা এখন হালের চান্দিমাল! আমরা কবো শিখে যাবে সত্যিকারের টেস্ট? বৃষ্টির কল্যাণে ড্র চাইনা, একদম সমানে সমানে লড়াই করে জয় কিংবা ড্র চাই।

@রিফাত এমিল

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

9 − three =