Thirty-one Nil – On The Road With Football’s Outsiders: A World Cup Odyssey by James Montague বই রিভিউ

বাংলাদেশের ফুটবল অবস্থা নিয়ে আমরা মোটেও খুশি নয়। অস্ট্রেলিয়া, জর্ডানের কাছে বিশাল ব্যবধানে হার, এরপর হেডকোচ ক্রুইফের পদত্যাগ, এসবকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশ জাতীয় দলের উপর আমরা মোটেও সন্তুষ্ট নয়।

কিন্তু আমরা কি আসলে ফুটবল ইতিহাসের সবচেয়ে খারাপ দলগুলোর একটি? আমাদের সুযোগ-সুবিধা কি বাকি সব দেশের থেকে আসলেই অনেক কম?

উত্তর? না।

বাংলাদেশের মতই অনেক দেশের ওয়ার্ল্ড কাপ খেলাটা অনেকটা স্বপ্নই। এমনকি কিছু দলের জন্য ওয়ার্ল্ড কাপ বাছাইপর্বে খেলাটাই অনেক বড় ব্যাপার। জেমস মন্টাগ, তাঁর “Thirty-one Nil – On The Road With Football’s Outsiders: A World Cup Odyssey” এই বইয়ে এসব দলগুলোকে খুব কাছ থেকে দেখে তাঁদের সম্পর্কে নিজের মতামত তুলে ধরেছেন।

BLink_Thirty_one_n_1993638e

৩০৪ পৃষ্ঠার এই বইয়ে তিনি অনেক নাম না শুনা দেশের জাতীয় ফুটবল দলের বর্তমান অবস্থা, তাঁদের সংগ্রাম আমাদের সামনে উপস্থাপন করেছেন।

এরিত্রিয়া? দেশটির নাম শুনেছেন কেউ? যখনই এই দেশের ফুটবল দলের সাথে অন্য কোন দেশের মাঠে খেলা পরে, প্রতিপক্ষ ধরে নেয় যে তাঁরা মাঠে আসছে না। না, এমন না যে তাঁরা খেলতে ঐ দেশেই আসে না। বরং, তাঁরা ফুটবল খেলতে এসে প্রায় অন্য দেশের বাসিন্দা হয়ে পড়ে, রাজনৈতিক সংঘাত পূর্ণ নিজ মাতৃভূমিকে বিদায় জানিয়ে।

বইয়ে আরও ফুটে উঠেছে কসভার অফিসিয়ালরা তাঁদের দেশের জন্য ফিফা সদস্যপদ পাবার জন্য আপ্রাণ চেষ্টার ঘটনা, রুওয়ান্ডা ও ভূমিকম্প বিধ্বস্ত হাইতির ফুটবল কেন্দ্র করে ঘুরে দাঁড়ানোর সংগ্রাম, কিংবা অত্যাচারে জর্জরিত প্যালেস্টাইন মানুষের ফুটবলের প্রতি ভালবাসা।

আরো আছে মাত্র ৯০০০০ জনসংখ্যার এন্টিগা ও বারবুডা ফুটবলারদের লেন্ডন ডোনভানের আমেরিকাকে প্রায় হারিয়ে দেবার অনুভূতির কাহিনী, জর্ডানের মানুষের লুইস সুয়ারেজ ও এডিন্সন কাভানির মত খেলোয়ারদের খুব কাছ থেকে দেখার স্বপ্ন পূরণের গল্প।

শুধু আফ্রিকা, এশিয়া ও আমেরিকা নয়, মন্টাগ ইউরোপেও তাঁর অভিজ্ঞতা ব্যাক্ত করেছেন। বর্তমান ফুটবলের অন্যতম আশ্চর্য ৩৫০০০০ জনসংখ্যার আইসল্যান্ডের ইউরো খেলার আশা, এক সময়ের ফুটবল পাওয়ারহাউস রোমানিয়া ও হাঙ্গেরির মাঝের তুমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতা মন্টাগের বইয়ে তুলে এসেছে।

তবে বইয়ের প্রধান আকর্ষণ এসব নয়। অনেকে হয়ত জানবেন, আন্তর্জাতিক ফুটবলের সবচেয়ে পরাজয় বরণ করেছে আমেরিকান সামোয়া, অস্ট্রেলিয়ার হাতে, ৩১-০ গোলে। ১০ বছর কেটে গিয়েছে, আন্তর্জাতিক ফুটবলের প্রথম জয় এখনো এই দেশের কাছে অধরা। সে ম্যাচের গোলকিপার নিকি সালাপু এই লজ্জা এখনো ভুলতে পারেননি, আজও ঘুমের মধ্যে দুঃস্বপ্ন হিসেবে সে ম্যাচের স্মৃতি তাঁকে তাড়া করে বেড়ায়। নিজেদের এই করুণ অবস্থা থেকে রুখে দাঁড়ানোর জন্য সামোয়া নিয়োগ দেয় ডাচ ম্যানেজার থমাস রঙ্গেনকে। থমাসের নেতৃত্বে বিশ্বের সবচেয়ে বাজে ফুটবল দলের নিজের প্রথম জয় পাওয়ার পুরো গল্প এই বইয়ে লিখিত আছে। সামোয়ারই আরেক প্রতিবেশী তাহিতি, ২০১৩ সালে যারা কনফেডারেশন কাপ দেখেছেন তাঁদের কাছে পরিচিত মুখ, ছোট এই দ্বীপদেশের কনফেডারেশন কাপ চলাকালীন পুরো অভিজ্ঞতা মন্টাগের এই বইয়ে ভাষারূপ দিয়েছেন।

তাই কেউ যদি অন্যরকম কিছু পড়ে দেখতে চান, মন্টাগের এই “Thirty-one Nil – On The Road With Football’s Outsiders: A World Cup Odyssey” আমি রিকমান্ড করব।

বইটির ই-বুক লিঙ্কঃ https://drive.google.com/open?id=0B2WJ9sX2fC2nOHdfZ3c0UXN3WG8

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

twenty + seven =