দুই নতুন তরুণ তুর্কির আগমন রিয়ালে

মৌসুম এখনও শেষ হয়নি, কিন্তু এরই মধ্যে পরবর্তী মৌসুমের জন্য দলবদলের চিন্তা শুরু করে দিয়েছেন রিয়াল মাদ্রিদ কোচ জিনেদিন জিদান। এরই মধ্যে দুইজন খেলোয়াড়কে দলে নেওয়ার মাধ্যমে প্রতিদ্বন্দ্বীদের একটা ভালো সংকেতই দিয়ে দিলেন তিনি, যে এই মৌসুমে যাই হোক না কেন, পরবর্তী মৌসুমেও বিন্দুমাত্র ছাড় দেবে না রিয়াল।

দলে নতুন আসতে যাওয়া দুইজনের মধ্যে প্রথমজন হলেন ফরাসী লেফটব্যাক থিও হার্নান্দেজ। শহরপ্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের এই খেলোয়াড় এই মৌসুমে ধারে খেলছেন দেপোর্তিভো আলাভেসে, সেখানেই নজর কাড়ছেন সবার। নজর এড়ায়নি মাদ্রিদ কোচ জিদানেরও। ২৪ মিলিয়ন ইউরোর ট্রান্সফার ফি এর বিনিময়ে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দিতে যাওয়া হার্নান্দেজ এরই মধ্যে মেডিক্যাল পরীক্ষাতেও উত্তীর্ণ হয়েছেন, অর্থাৎ টেকনিক্যালি মাদ্রিদে যোগ দিতে হার্নান্দেজের আর কোন সমস্যাই নেই। হার্নান্দেজের মাদ্রিদে যোগ দেওয়ার ফলে তাদের নিয়মিত লেফটব্যাক ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার মার্সেলোও একটা ভালো ব্যাকআপ পেল, এবং এর ফলে পর্তুগিজ লেফটব্যাক ফাবিও কন্ত্রাওয়ের মাদ্রিদ ছাড়ার বিষয়টাও মোটামুটি নিশ্চিতই হয়ে গেল। থিও হার্নান্দেজের ভাই লুকাস হার্নান্দেজ সেন্টারব্যাক হিসেবে খেলছেন রিয়ালের শহরপ্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদে।

থিও হার্নান্দেজ

এই মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদের যেকোন ডিফেন্ডারের থেকে হার্নান্দেজের ট্যাকলের সংখ্যা বেশী (৫৩)।

ভিনিশিয়াস জুনিওর

এদিকে ব্রাজিলিয়ান ক্লাব ফ্ল্যামেঙ্গোর স্ট্রাইকার ভিনিশিয়াস জুনিয়রকেও দলে নিচ্ছে রিয়াল মাদ্রিদ। গতকাল ফ্ল্যামেঙ্গোর মেডিক্যাল সেন্টারে হওয়া মেডিক্যাল পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হন এই ১৬ বছর বয়সী কিশোর, যিনি কিনা অনুর্ধ্ব-১৭ কোপা আমেরিকার সেরা খেলোয়াড় ও সর্বোচ্চ গোলদাতা ছিলেন। ট্রান্সফার ফি মনে করা হচ্ছে ৪৫ মিলিয়ন ইউরোর কাছাকাছি, তবে ভিনিশিয়াসের বয়স ১৮ না হওয়া পর্যন্ত তিনি পাকাপাকিভাবে রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দিতে পারবেন না। ভিনিশিয়াসকে অনেক চেয়েছিল বার্সেলোনাও, এমনকি তাঁর সাথে কথা বলে রাজী করানোর জন্য নেইমারকেও পাঠিয়েছিল, কিন্তু শেষ মুহূর্তে কিছুই করতে পারেনি তারা, ভিনিশিয়াসের ইচ্ছাই ছিল রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেওয়ার।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

five × three =