শততম টেস্ট যখন সিরিজ বাঁচানোর লড়াই: আসতে পারে যেসব পরিবর্তন

১ম টেস্টে বিশাল ব্যবধানে হেরে অনেকটা ব্যাকফুটে চলে গেছে বাংলাদেশ দল। জয় বাংলা কাপের পরের টেস্ট যা বাংলাদেশের জন্য হতে যাচ্ছে স্মরণীয় টেস্ট কারণ এই ম্যাচের মধ্য দিয়েই শততম টেস্ট খেলতে নামবে বাংলাদেশ। তাই শততম টেস্টটিকে স্মরণীয় করে রাখতে এবং সিরিজ বাঁচাতে জয়ের বিকল্প নেই মুশফিক বাহিনীর। আজ ম্যাচ শেষের সংবাদ সম্মেলনে ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতাকেই টেস্ট হারের কারণ হিসেবে দাঁড় করিয়েছেন মুশফিকুর রহিম। তার কথা থেকে এবং ম্যাচের গুরুত্ব বিবেচনায় ২য় টেস্টে যে একাদশে পরিবর্তন আসবে তা অনেকটাই পরিষ্কার। চলুন দেখে নেই ২য় টেস্টের একাদশে যে ধরনের পরিবর্তন আসতে পারে টিমে-
১) শুভাশিস এর বদলে টিমে ঢুকতে পারেন তাইজুল অথবা রাব্বি। তবে ১ম টেস্টের পর তাইজুলের সুযোগই বেশি টিমে আসার। কারণ তিন স্পিনার নিয়ে খেলে শ্রীলংকা কেমন ফল পেয়েছে তা তো জানাই সবাই। তাই পরের টেস্টে একই ভুল যে বাংলাদেশ আবার করবেনা তা জলের মতই পরিষ্কার।
২) মাহমুদউল্লাহ কিংবা মমিনুলের বদলে টিমে সাব্বিরের অন্তর্ভুক্তি হতে পারে। মমিনুলের নাম আসার কারণ হলো মমিনুলের একটা ব্যাড প্যাচ যাচ্ছে অনেকদিন ধরেই। গত ১০ ইনিংসে ২৩.২ গড়ে তার রান ২৩২। আর কোচের প্রিয় খেলোয়াড়ের তালিকায় সে যে নেই তা কোচ প্রায়ই প্রকাশ করেছে। তাই কোপটা তার উপর পড়তেই পারে। আবার এদিকে মাহমুদউল্লাহকে দেখা হয় টিমের ভবিষ্যৎ নেতা হিসেবে এবং গুরুত্বপূর্ণ সদস্য হিসেবে। তাই পরের টেস্টে বাদ নাও পড়তে পারেন তিনি। যদিও বর্তমান ফর্ম বিবেচনায় তার বাদ পড়াটা খুবই স্বাভাবিক। তার সর্বশেষ সেঞ্চুরিটি ছিল ৭ বছর আগে। গত ২ বছরে বড় ইনিংস বলতে তার আছে ২টি হাফসেঞ্চুরি। সেট হয়েও ফিরে যাচ্ছেন গুরুত্বপূর্ণ সময়ে। অনেকদিন ধরে তার উপর ভরসা রাখলেও এবার কি হয় তাই দেখার বিষয়।
৩) মমিনুল, মাহমুদউল্লাহ দুইজনই বাদ পড়ে যেতে পারেন। আর তাদের বদলে ঢুকতে পারেন সাব্বির এবং মোসাদ্দেক। তবে এটার সম্ভাবনা কম। এত বড় সিদ্ধান্ত ম্যানেজমেন্ট এর না নেবার সুযোগই বেশি কারণ আত্মঘাতী হতে পারে ব্যাপারটা। একইসাথে দলের দুই বড় সদস্যকে এরকম ম্যাচে বাদ দিবেনা ম্যানেজমেন্ট। যদিও মোসাদ্দেক আসলে স্পিনের একটা অপশন বাড়ে মুশফিকের হাতে। পার্টটাইমার হিসেবে ভালোই কার্যকর হতে পারে মোসাদ্দেক। আর তাছাড়া প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটে তার পারদর্শীতা সকলের কাছেই প্রমাণিত।

তবে পুরাতন দুই সৈনিক- রিয়াদ ও মমিনুল এর উপর আরেকবার ভরসা করে পরের টেস্টে নামতেই পারে টিম ম্যানেজমেন্ট। কিন্তু শুভাশিস এর পরিবর্তন এক প্রকার নিশ্চিতই। আসলে যেই নামুক পরের টেস্টে এমন সাদামাটা পারফরমেন্স কেউই দেখতে চায়না। আর পরের টেস্টের জন্য তো আরো বেশি করেই ভালো পারফরমেন্স চায় সবাই টিমের থেকে কারণ স্মরণীয় টেস্টটা তো মনে রাখার মত একটা ফলাফল তো চাই। এখন দেখার বিষয় টিম বাংলাদেশ সমর্থকদের প্রত্যাশার কতখানি সামর্থ্যতে রূপান্তর করতে পারে।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

ten − 1 =