এই মণিহার তারেই সাজে

“মনে করো যেন বিদেশ ঘুরে,
লাল সবুজের জয়গান গাই,
ব্যাট আর বলের সুরে সুরে”

এই ছড়াটা লিখেছিলাম অনেক আগে। তিনি তখন সম্ভবত আইপিএল মাতাচ্ছেন, ঘূর্ণির মায়ায় আর কার্যকর ব্যাটিং এ। তিনি বাংলাদেশের ক্রিকেটের সবথেকে বড় বিজ্ঞাপন। এত কিছু করেও, মানুষের কাছে ট্যাগ পেতে হয়, “বেয়াদব”। আমরা যে কত অকৃতজ্ঞ তার আরেকটি প্রমাণ হচ্ছে এই গালাগালি। হ্যা, সাকিব আল হাসানের কথাই বলছি। তিনি যে পাগলাটে ব্যাটিং করেছিলেন তৃতীয় দিনের শেষ বিকেলে, সেটি সমর্থন করার কোন যুক্তি নেই। কিন্তু যেভাবে আমরা গালাগালি করি, আবার ভালো করলে এমন ভাব করি যে তিনিই আমাদের সবথেকে আপন- এটা আমাদের নিজেদেরকেই ছোট করে।

সাকিব আল হাসান সেঞ্চুরি করেছেন বাংলাদেশের শততম টেস্টে। এটা দরকার ছিল। কারণ, এই সাকিবের সামর্থ্য নিয়েই প্রশ্ন তুলেছিল আমাদের ‘মহাজ্ঞানী’ মানুষেরা। বোলার হিসাবে খেলানো উচিত, আট নম্বরে ব্যাটিং করানো উচিত- আরও কত কথা। অথচ এই সাকিবের হাত ধরেই খাঁদের কিনারা থেকে বহুবার উদ্ধার হয়েছে লাল সবুজের দল। হ্যা, টেস্টে তিনি যেভাবে খেলেন সেটা এত দিন সমর্থন করার মতো ছিলোনা। আমি নিজেই এই টেস্টের প্রিভিউ করতে গিয়ে লিখেছিলাম,

“ওহে পাঞ্জেরি, দায়িত্ব নিতে শেখ,
অকারণে উইকেট দিয়ে এসে, “ আমি তো এমনই”- একথা আর বল না কো!”

কিন্তু এই শতকটি আরও গুরুত্বপূর্ণ হয়ে যাচ্ছে এই কারণেই। তৃতীয় দিন বিকালে যা-ই করুন, গতকাল সাকিব ছিলেন আদর্শ টেস্ট ব্যাটসম্যান। একেবারে নিখুঁত ইনিংস না হলেও মারার বলে মার আর ছাড়ার বল ছাড়- এই নীতি ভালোই অনুসরণ করেছেন সাকিব। ঠিক যেমনটি চাওয়া তার কাছে। তিনি দায়িত্ব নিয়ে পথ না দেখালে আর কার উপর ভরসা করবে বাংলাদেশ? উইকেট দিয়ে এসেছেন তার স্বভাবজাত শট খেলেই, কিন্তু তার আগে অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসাবে দেশের শততম টেস্টে শতকের বিরল রেকর্ড গড়েছেন।

এই মণিহার তাকেই সাজে। তিনিই তো আমাদের শিখিয়েছেন নিজেকে ছোট মনে না করে বিশ্বসেরাদের সাথে সমানে সমানে লড়তে! তিনিই তো বিশ্বসেরা হয়ে দেখিয়েছেন, আমরাও পারি! তার মুকুটে অজস্র বিরল রেকর্ডের পালকের সাথে এটাও যুক্ত হল। সত্যি কথা বলতে কি, তিনিই ছিলেন যোগ্যতম ব্যক্তি, এই শতকটি পাবার।

আরেকটি সত্য কথাও আছে অপর পিঠে। সাকিব যে ধরনের বা যে পর্যায়ের খেলোয়াড়, তাতে তার ভক্ত থাকবে অনেক, এটা স্বাভাবিক। কিন্তু এত ঘৃণা মনে হয় এই পর্যায়ের আর কোন বিখ্যাত মানুষকে সহ্য করতে হয়না! কোন পরোয়া না করে তিনি যে এগিয়ে চলেছেন, এর জন্যই তাকে স্যালুট!

“যদি তোর ডাক শুনে কেউ না আসে, তবে একলা চলো রে”

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

fifteen + 17 =