সেতু-রানা ভালো থাকুক ওপারে

রানার খেলা আমি কখনওই সরাসরি দেখি নাই, খেলা দেখার আগেই উনার দেহাবসান ঘটে। তাই খুব বেশী আবেগ কাজ করেনা। যারা আমি দেখি নাই, যার খেলা দেখার সৌভাগ্য হয় নাই তার প্রতি আবেগ আসার কথাও না।

মানুষের মৃত্যুই কষ্টদায়ক, ক্রিকেটার হলে হয়তো আরেকটু বেশী খারাপ লাগে! ভিনদেশী হিউজের মৃত্যুতেও বেশ খারাপ লাগছে।

রানা থাকলে হয়তো কার্যকরী এক অলরাউন্ডার হতেন! স্বল্পদৈর্ঘের ক্যারিয়ারে রানার অবশ্য এক অদ্ভুত বিশ্ব রেকর্ড আছে, যা কোন ক্রিকেটারই রেকর্ড ভাঙ্গতে চাইবে না। মৃত্যুকালীন সময়ে তার বয়স ছিলো মাত্র ২২ বছর ৩১৬দিন। এরফলে রানা আর্চি জ্যাকসনের সর্বকনিষ্ঠ টেস্ট ক্রিকেটার হিসেবে মৃত্যুর রেকর্ড ভেঙ্গে ফেলে! সর্বকনিষ্ঠ টেস্ট ক্রিকেটারের দেহাবসানের রেকর্ড আমাদের রানার দখলে, কী অদ্ভুত বিধাতার খেলা।

রানার সাথে সেদিন সাজ্জাদুল হোসেন সেতু নামের তার এক বন্ধু, ক্লাব সতীর্থও মৃত্যুবরণ করেন। আমরা রানার নাম নিলেও উনার নাম খুব বেশী নেওয়া হয় না। বিসিবিকে ধন্যবাদ খুলনার আবু নাসের স্টেডিয়ামে একটি স্ট্যান্ডের নামকরণ রানার নামে করার জন্য! আশাকরি, একদিন সেতুর নামেও ভালো কিছু হবে।

সেতু রানারা ভালো থাকুক ওপারে।

@রিফাত এমিল

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

twenty − eight =