এটাই কি ব্রাজিলের সবচেয়ে নিরীহ জেনারেশন ?

দলে সমস্যা ৩ জায়গায়!! (ভুল কথা)
১।বক্স টু বক্স মিডি
২।প্রফেশনাল প্লেমেকার
৩।নাম্বার নাইন / ফলস নাইন
দলের করুণ অবস্হা বুঝান জন্য উপরের পজিশনের প্লেয়ারদের দিকে তাকালেই গাইস করা যায় কতটা দুর্দশার ভিতর বর্তমান ব্রাজিল দল!!
দুংগা তার মোমেন্টাসের জন্যে গালি পাওয়ার প্রাপ্য বটে ঠিক কিন্ত আমাদের হাতেই বা তাকে শো করার মত কি আছে??? সবাই এই পজিশনগুলোতে নতুন নতুন প্লেয়ার কনভার্ট করার কথা বলবে কিন্ত আদৌ তাতে কতটা প্রপিট হয়েছে তা আমার বোধগম্য না !!
ধরুন প্লেমেকারের কথা,,, অস্কারের ভিতর আমরা কেউ কেউ কাকাকে দেখেছি তো কেউ কেউ আবার মডার্ন প্লেমেকারের প্রতিচ্ছবি দেখেছি অথচ ফলাফল হিসেবে পেয়েছি কিনা ও এজ ইউজুয়াল প্লেমেকার! টিম লিড দেওয়ার এবিলিটি মাইনাস জিরো পার্সেন্ট!! একদিন লাক্সারিয়াস খেলছেতো আরেকদিন যা তা!! তারপর দর্শকরা কনভার্ট হয়ে চলে গেলো কৌতির কাছে! লিপুলের হয়ে খেলা দেখে আমরা উন্মাদ হয়ে গেলাম এই বুঝি রোনালদিনহো পেয়ে গেলাম, আ্যা টিপিক্যাল সাম্বা বয়েস বুঝি চলে আসলো কিন্ত বাস্তবে দেখা গেলো কি ও ন্যাশনাল টিমে লুকাস লিমার কাছে প্লেস হারায় এখন আবার চলছে লুকাস লিমা রিজিওন!! এটা কতদিন পর্যন্ত লাস্টিং করবে তা খোলাসা করার কিছুই নেই!!!
প্রত্যেকটা পজিশনেই এই প্রবলেমটা ফেস করতে হচ্ছে! বক্স টু বক্স মিডির জন্যে অনেকেই এখন ক্যাসমিরো, এলানের জন্যে যুদ্ধে নামতে প্রস্তুতি নিচ্ছেন জোরেশোরে কিন্ত আমার ভিতর সেই ফিলিংসটা নেই বললেই চলে! এলিয়াসকে উল্টো বেটার মনে হচ্ছে! অন্তত দুংগার চয়েস হওয়াতে ও কনফিডেন্টটলি খেলতে পারছে নিউ কামাররা এসে কিছু ঝলক দেখাবে এরপর হারিয়ে যাবে এমনটা আর দেখার ইচ্ছে নেই!!! ও খেলতে থাকুক দুংগার ট্যাকটিকসে ভাই এলিয়াসের এক্সপেরিয়ান্স কাজে দিলেও তো দিতে পারে!!!
মেইনলি এটা বলার জন্যে এই পোস্টটি লিখছিনা,,, যেটা বলার দরকার!! দুংগার তো এক বছর হলো সে আদৌ কি স্টার্টিং এলেভেন চুজ করতে পেরেছে? এক্সপেরিমেন্ট নিতে নিতে তার চাকরি যায় যায়!! একটি কোচ কখন বছরখানেক এক্সপেরিমেন্ট নেয়? যখন দেশের সব গাধারা মাল টানা বাদ দিয়ে ফুটবল খেলতে যায় আর ফুটবলাররা মাল টানা শুরু করে!!! বড় বড় ক্লাব টিমে ব্রাজিলের পরিচয় আছে বলে ডুকতে পারছেন আমাদের গাধারা, না হয় হন্ডুরাস লীগে খেলতে হতো মেইন টিমেরর কিছু প্লেয়ারদের! লা লীগা, বুন্দেসলীগা, লীগা ওয়ান, ইপিএল এক নজর চোখ বুলাইলে দেখা যায় হুল ওয়ার্ল্ড প্লেয়ার কম্পিটিশনে ব্রাজিলের প্লেয়ারদের দুর্দশা! না গোল না এসিস্ট না চান্স ক্রিয়েটিং না ড্রিবলিং না ট্যাকলিং না পাসিং না সেভিং কোত্থাও বর্তমান প্লেয়ারদের খুজে পাবেননা অথচ আবার তারাই কিনা সর্বোচ্চ সাফল্যধারী টিমে নিয়মিত খেলে যাচ্ছে! তাহলে কোচিং স্টাফদের দোষটা কোথায়? সমস্যা তো গোড়াতেই!!! ব্রাজিলের নিকৃষ্ট ফুটবল জেনারেশন যে আমাদের সামনে দিয়ে যাচ্ছে সেটাইবা চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়ে দেওয়ার মত সাহস কয়জনের আছে? হুম?
১৯৭০ -৯৪ বিশ্বকাপহীন থাকা সত্ত্বেও ৮২ এর ফ্যালকাওদের বিশ্বকাপহীন সর্বশ্রেষ্ঠ দল বলা হয় আর বর্তমান সময়ে ৭-০ হেরে সর্বনিকৃষ্ট দল হিসেবে উপাধি পেতে হয়!! এটা অবশ্যই প্লেয়ারদের নিতে হবে!!! কিন্ত কিসের কি!! হারার পর যেভাবে সেলফি তুলছে তাদের হাসি দেখে মনে হয় এদের থেকে বুঝি সৃষ্টিকর্তা লজ্জা কেড়ে নিয়েছে!!!
দুর্ভাগ্য নেইমারের দুর্ভাগ্য সিলভার তাদের অনেক কিছুই পাওয়া উচিৎ ছিলো কিন্ত তা আর পেলো কই????
পাদটীকা :: এই গাধাদের খেলা শিখতে আরো কয়েকবছর লাগবে, এক্সপেরিয়ান্সে লেকনেসটা দুর করে যদি কিছু করতে পারে আর কি! তবে আরো কয়েকবছর যে ট্রোলের পুলসিরাতে পার হতে হবে তার জন্যে মানসিক প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছি!!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

thirteen − 10 =