পরপারে চেইক তিওতে

২০১০ সালের বিশ্বকাপে আইভোরি কোস্টের হয়ে তাঁর উত্থান। খেলতেন একজন শক্তিশালী ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার হিসেবে। প্রিমিয়ার লিগ ভক্তরা তাঁকে বেশ ভালোভাবেই মনে করতে পারবেন। লিগের অন্যতম সেরা ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার ছিলেন তিনি। ২০১০ বিশ্বকাপে নজরকাড়ার পরেই মূলত ডাচ ক্লাব এফসি টোয়েন্টে থেকে নিউক্যাসল ইউনাইটেডে নাম লেখান। আর্সেনালের সাথে নিউক্যাসলের সেই বিখ্যাত ৪-৪ গোলে ড্র হওয়া ম্যাচটায়, যে ম্যাচে ৪ গোলে পিছিয়ে থেকেও ৪টা গোল করে ম্যাচ ড্র করে নিউক্যাসল, সেই ম্যাচে নিউক্যাসলের হয়ে শেষ গোলটা করে দলকে চিরস্মরণীয় এক ড্র এনে দিয়েছিলেন তিনি।

তিনি চেইক তিওতে। জাতীয় দলে দিদিয়ের দ্রগবা, সলোমন কালু, কোলো ত্যুরে ও ইয়ায়া ত্যুরে দের সতীর্থ এই মিডফিল্ডার আজকে ক্লাবের হয়ে ট্রেনিং করতে দিয়ে হঠাৎ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে পাড়ি জমিয়েছেন পরপারে। টুইটারে খবরটা নিশ্চিত করেছেন বিবিসির বেশকিছু সাংবাদিক ও সেনেগাল স্ট্রাইকার দেম্বা বা।

এই মৌসুমের চাইনিজ সুপার লিগের দ্বিতীয় বিভাগের ক্লাব বেইজিং এন্টারপ্রাইজে যোগ দিয়েছিলেন তিনি, সাত বছর নিউক্যাসল ইউনাইটেডে থাকার পর। ঘটনাটা ঘটেছে সেই ক্লাবের ট্রেনিং গ্রাউন্ডেই। আইভোরি কোস্টের হয়ে ৫২ ম্যাচ খেলা এই মিডফিল্ডার খেলেছেন ২০১০ ও ২০১৪ বিশ্বকাপও।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

thirteen − six =