দায়টা যাবে মুশির কাঁধেই

২০১২ সালের এশিয়া কাপের ফাইনালের কথা আমাদের জেনারেশনের ক্রিকেটবোঝা একটা ছেলেপেলেও মরার আগ পর্যন্তও ভুলবে না । শেষের ওভারটা তো না-ই ! রিয়াদ কেন প্রথম বলে সিঙ্গেল নিয়ে রাজ্জাককে স্ট্রাইকে দিলো সেটার ব্যাখ্যা একেকজনের কাছে একেক রকম ।

তবে এই বিপিএলে মুশফিকের দল সিলেট চিটাগাং এর কাছে হারলো এক রানে আর আজকে রংপুরের কাছে হারলো ৬ রানে । দুটো ক্ষেত্রেই শেষের ওভারটাতে পুরো ব্যাট করার সুযোগ ছিলো মুশফিকের কাছে । দুটো ম্যাচেই নন স্ট্রাইকিং এন্ডে সেট ব্যাটসম্যান হয়েও দলের পরাজয় দেখেছেন ।

সেদিন নিজে স্ট্রাইকে গিয়ে আমিরের প্রথম বলে সিঙ্গেল নিয়ে আনকোরা মেন্ডিসকে ছেড়ে দিলো আমিরের মুখের সামনে আর আজকে ১৯তম ওভারের শেষ বলে মেন্ডিসকে সিঙ্গেল এলাউ করে আবারও মেন্ডিসকে শেষ ওভারের সমীকরণে ছেড়ে দিলো নিজের পিঠ বাঁচিয়ে । আজকের চাওয়াটা আরো ছোট ছিলো । আমিরের চাইতে আজকের আবু জায়েদ বোলার হিসেবেও সহজ । আগের দিনের ৯ রানের চেয়ে আজকের ৭ রানটাও আরও সোজা ছিলো ।

কিন্তু কীসের কী ?

সেই নিজের পিঠ বাঁচানো কাজ । এইসব সিচুয়েশনে হারলে পুরো দায়টা নিজের ঘাড়ে যেমনে আসে , আবার জিতলে ধন্যি ধন্যি পড়ে যায় একদম । ব্যাটসম্যান মুশির ক্লাস নিয়ে দুটো নেতিবাচক কথা বলার যোগ্যতা আমার নেই । কিন্তু কিছু লোক থাকে ন্যাচারাল লিডার না ! মুশফিক সেই ধাঁচের একজন ।

২০০৭ এর টি২০ বিশ্বকাপের ফাইনালে ধোনি যদি যোগীন্দর শর্মার হাতে সাহস করে বলটা না তুলে দিত , তাহলে কী হত সে কথা আমি জানি না । অন্য কেউ হয়তো আরো ভালোভাবে ভারতকে ম্যাচটা জিতিয়ে দিত । কিন্তু এই যোগীন্দর শর্মাই মিসবাহর কাছে মার খেয়ে ভারতকে ম্যাচটা হারিয়ে দিলে কী হত সেটা আমি খুব ভালোভাবে জানি । অনেক ক্রিকেট পন্ডিত ধোনির ক্রিকেট সেন্স নিয়ে অনেক কথা বলত । অনেক পেপারওয়ালা কাটতি বাড়ানোর জন্যে নানান রকম কথাবার্তা লিখত । তবে মাঠের লিডারকে নেগেটিভলি কি হতে পারে সেগুলো নিয়ে ভাবতে হয় না … ভাবলে সবচেয়ে ভালো ডিসিশনটা আসে না । ২০০৯ এর ট্রাই সিরিজের ফাইনালে শেষের দিকের একটা ওভারে রুবেলের ডুবিয়ে দেওয়ার কথা ভেবে সাকিব যদি ২০১০ এ বাংলাওয়াশের ফাইনাল ওভারটা রুবেলের হাতে না দিয়ে কোন স্পিনারকে দিতেন, তাহলে কী হত আমি জানি না । তবে এটা জানি সে জায়গায় মুশফিক থাকলে রুবেলকে বলটা দেওয়ার সাহস পেতেন না ।

নিজের প্রথম ওয়ানডে সেঞ্চুরি করেছিলেন মুশফিক জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে । সেদিন বাংলাদেশ হেরে মাঠ ছাড়লেও কেউ মুশফিককে দোষ দেয় নি । তবে এখনকার পরিণত মুশফিককে বিপিএলের এই দুটো ম্যাচ হারার দায়টা নিজের কাঁধে নিতেই হবে ।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

sixteen + 1 =