বিশ্বকাপ ২০১৮ : টিম প্রিভিউ – পোল্যান্ড

বিশ্বকাপ ২০১৮ : টিম প্রিভিউ - পোল্যান্ড

১৯৭৮ সালের বিশ্বকাপে সেমিফাইনাল পর্যন্ত নিজেদের স্বপ্নযাত্রা অব্যাহত রেখেছিল পোল্যান্ড। পোল্যান্ড এর সেই দলে ছিলেন আডাম নাওয়ালকা। সেই নাওয়ালকার হাতেই এখন পোল্যান্ড জাতীয় দলের দায়িত্ব। দায়িত্ব নিয়েই পোল্যান্ড কে বিশ্বের সেরা দশটা ফুটবল দলের একটা হিসেবে গড়ে তুলেছেন। গত ইউরোতে কোয়ার্টার ফাইনাল থেকে বাদ পড়া পোল্যান্ড এবার বিশ্বকাপেও নিজেদের ছাপ রাখতে চায়, স্বাভাবিক, সেই লক্ষ্যেই কোচ নাওয়ালকা ২৩ সদস্যের দল ঘোষণা করেছেন। দেখে নেওয়া যাক কে কে রয়েছেন পোল্যান্ড দলে!

গোলরক্ষক

  • ওজিয়েইক শোয়েজনি (জুভেন্টাস)
  • লুকাস ফাবিয়ানস্কি (সোয়ানসি সিটি)
  • বারতোশ বিয়ালকোস্কি (ইপসউইচ টাউন)

ডিফেন্ডার

  • কামিল গ্লিক (মোনাকো)
  • মিশাল পাজদান (লেজিয়া ওয়ারশ’)
  • লুকাস পিশচেক (বরুশিয়া ডর্টমুন্ড)
  • মাসিয়েজ রাইবাস (লোকোমোটিভ মস্কো)
  • ইয়ান বেদরানেক (সাউদাম্পটন)
  • থিয়াগো সিওনেক (এসপিএএল)
  • আর্তুর জেদরেশজিক (লেজিয়া ওয়ারশ’)
  • বারতোশ বেরেজিনস্কি (সাম্পদোরিয়া)

মিডফিল্ডার

  • কামিল গ্রসিচকি (হাল সিটি)
  • ক্যারল লিনেত্তি (সাম্পদোরিয়া)
  • গ্রেগর্জ ক্রিচোভিয়াক (ওয়েস্টব্রমউইচ আলবিওন)
  • ইয়াচেক গোরালস্কি (লুডোগোরেতজ রাজগ্রাড)
  • ইয়াকুব ব্লাশ্চিকউস্কি (ভলফসবুর্গ)
  • পিওতর জিয়েলনিস্কি (নাপোলি)
  • রাফায়েল কুরজাওয়া (গোরনিক জাবারজে)
  • স্লাওমির পেশকো (লেচিয়া দানস্ক)

স্ট্রাইকার

  • রবার্ট লেফান্ডোফস্কি (বায়ার্ন মিউনিখ)
  • আরকাদিউশ মিলিক (নাপোলি)
  • লুকাস তেওদোরজিক (আন্ডারলেখট)
  • ডেভিড কোয়ানিচকি (সাম্পদোরিয়া)

গত ইউরোতে মাত্র একটা গোল করেছেন এই পোল্যান্ড দলের সবচেয়ে বড় সুপারস্টার রবার্ট লেফান্ডোফস্কি। সেই যন্ত্রণাটা কি তাকে কুরে কুরে খায় না? অবশ্যই খায়। সেই যন্ত্রণা থেকে এবার হয়তো আরো আগ্রাসী লেফান্ডোফস্কিকে দেখা যাবে, এবারই শেষ বিশ্বকাপ হতে পারে ২৯ বছর বয়সী বায়ার্ন মিউনিখের এই সুপারস্টারের।

বিশ্বকাপ ২০১৮ : টিম প্রিভিউ - পোল্যান্ড
gollachhut.com

দলকে মূলত ৪-২-৩-১ ফর্মেশনেই খেলাতে পছন্দ করেন আডাম নাওয়ালকা। কারণটা স্বাভাবিক, একক স্ট্রাইকার হিসেবে সবচেয়ে বেশী ভালো খেলেন সুপারস্টার রবার্ট লেফান্ডোফস্কি। তার পিছে থাকেন দুইজন উইঙ্গার (বামদিকে কামিল গ্রসিচকি, ও ডানদিকে ইয়াকুব ব্লাশ্চিকউস্কি) আর একজন সেন্ট্রাল এটাকিং মিডফিল্ডার (পিওতর জিয়েলিনস্কি)। সেন্ট্রাল মিডফিল্ডে যে দুজন থাকেন তাদের মধ্যে একজন বক্স-টু-বক্স মিডফিল্ডার (ক্যারল লিনেত্তি) অর্থাৎ প্রায়ই মিডফিল্ড থেকে সোজা উঠে গিয়ে লেফান্ডোফস্কির সাথে কানেকশন রাখার চেষ্টা করেন, যে কাজটা করেন জিয়েলিনস্কিও। মিডফিল্ডের বাকী একজন পুরোপুরি ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার (গ্রেগর্জ ক্রিচোভিয়াক)। ডিফেন্সের ডানদিকে থাকবেন লোকোমোটিভ মস্কোর মাসিয়েজ রাইবাস ও বামদিকে থাকবেন বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের নির্ভরযোগ্য লেফটব্যাক লুকাস পিশচেক। সেন্ট্রাল ডিফেন্সে জুটি বাঁধবেন মোনাকোর কামিল গ্লিক আর লেজিয়া ওয়ারশ’ এর মিশাল পাজদান, এটা নিশ্চিত।

বিশ্বকাপ ২০১৮ : টিম প্রিভিউ - পোল্যান্ড

পোল্যান্ড দলে যেরকম ডানদিক থেকে পিশচেক/ব্লাশ্চিকউস্কি ও বামদিকে রাইবাস/গ্রসিচকির মত বল ক্রস করতে পারার মত যোগ্য খেলোয়াড় আছেন, মিডফিল্ড থেকে সামনে উঠে গিয়ে লেফান্ডোফস্কির সাথে ওয়ান-টু করে আক্রমণে যাওয়ার মত কার্যকরী মিডফিল্ডারও আছে। ক্রস আয়ত্বে এনে গোল করার মত দক্ষ স্ট্রাইকার লেফান্ডোফস্কির চেয়ে খুব কম আছেন এখন বর্তমান বিশ্বে। ফলে যে জিনিসটা হয়, পোল্যান্ড দলের খেলাগুলোতে অনেক গোল হয় সাধারণত। এবারের বাছাইপর্বে পায় প্রতি ম্যাচেই গড়ে তিনটা করে গোল করেছে পোল্যান্ড, গোল হজমও করেছে বাছাইপর্বের যেকোন গ্রুপ চ্যাম্পিয়নের চেয়ে বেশী।

এবার গ্রুপ এইচ এ পোল্যান্ড দলের সঙ্গী সেনেগাল, জাপান ও কলম্বিয়া। যে কেউই উঠতে পারে এই গ্রুপ থেকে পরবর্তী রাউন্ডে, আর পরবর্তী রাউণ্ডে ওঠার জন্য লেফান্ডোফস্কির ঝলসে ওঠাটা খুব জরুরি। পারবেন তো তিনি?

স্কোয়াড প্রিভিউ দেখুন আরও –

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

18 − eight =