আর দেখতে চাই না কেলেঙ্কারি

নিজ দেশের যখন খেলা চলে তখন আপনি কাকে সমর্থন করবেন?
নিজের দেশ নাকি তার বিপক্ষ দলকে?
প্রশ্নটা করা অবান্তর বেশিরভাগ মানুষের কাছেই, কেননা আমি জানি নিজ দেশের কথাই বলবেন সবাই। সত্যি বলতে এটার জন্য কোন যুক্তিতর্কের মনে হয় প্রয়োজন পরেনা।
ঠিক একইভাবে আমাদের বেনিফিটের কথা চিন্তা করে গতকাল সকল বাংলাদেশীরা চেয়েছিল ইংল্যান্ডের জয় অথবা বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচ। জীবনে প্রথমবার বাংলাদেশ ব্যতীত অন্য কোন টিমের জয় চেয়েছিলাম অজিদের বিপক্ষে, কারণ? একটাই, বাংলাদেশ ….
লাক, এ্য ওয়ার্ড হুইচ ইজ রিলেটেড উইথ এভ্রি ওয়ার্ক … আর স্পোর্টস তা ফুটবল, ক্রিকেট, টেনিস, হকি যাই হোকনা কেন।
ছোট থেকে বড় হওয়া পর্যন্ত স্পোর্টস রিলেটেড যা কিছুই হোক সেখানে গাইড আমার বাবা, ব্রাজিল সাপোর্টার হওয়া অনেকটা হেরিডিটিকাল ব্যাপার আর পরে এইটার পেছনে কাজ করেছিল ‘০২ এর ওয়ার্ল্ডকাপ। পরবর্তীতে ক্লাব ফুটবল ফলো করার সময় থেকে সেই একইভাবে দুইজনেই বার্সেলোনার সাপোর্টার।
যদিও বাংলাদেশের ম্যাচ ছাড়া এখন ক্রিকেটের খুব একটা খবর রাখা হয়না যতোটা ফুটবলের খবরাখবর রাখি। তবে ক্রিকেটের ক্ষেত্রে দু’জনের মধ্যে বিষয়টা একটু আলাদা হয়ে গেছে, আফ্টার বাংলাদেশ বাবা ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাপোর্টার আর আমি অস্ট্রেলিয়ার।
স্টিভ ওয়াহ্, গিলি, হেইডেন, পন্টিং, বেভানদের সময় থেকে এখন পর্যন্ত। গিলক্রিস্টকে খুব খুব বেশি পছন্দ করতাম সবসময়, আজও করি।
তবে কি, ঐ যে ‘আফ্টার বাংলাদেশ’ …
কিছু ক্ষেত্রে অন্ধ দেশপ্রেম কাজ করে,
করেই …
চেষ্টা করেও তা বন্ধ করা যায়না।
যেকারণে জীবনে কখনো পাকিস্তান সাপোর্ট করার কথা মাথায়ও আসেনি, যেকারণে ‘১৫ বিশ্বকাপ কোয়ার্টার ফাইনালের ঐ কেলেঙ্কারি দেখার পর বলেছিলাম যে ইন্ডিয়াকে সাপোর্ট করার কখনো প্রশ্নই আসেনা কারণ আমি আত্মমর্যাদাহীন নই। যদিও এসবই আমার ব্যাক্তিগত মতামত, সবাই তো আর এভাবে চিন্তা করতে বাধ্য নন।

যাইহোক, সেমিতে ইন্ডিয়ার মুখোমুখি হওয়ার সম্ভাবনাই বেশি। আর যা কিছুই হোক, ‘১৫ ওয়ার্ল্ডকাপের মতো কেলেঙ্কারি দেখতে চাইনা ….
Best of luck Tigers, show your best ….

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

2 × 1 =