স্মৃতি অম্লানঃ ফতুল্লা ২০০৬, এবার চাই জয়

আমাদের জাতীয় কবি বলেছেন,
” অতীত দিনের স্মৃতি,
কেউ ভোলে না কেউ ভোলে”
টেস্ট ক্রিকেটে আমাদের এই ১৭ বছরের পদচারনার অনেক স্মৃতি যেমন ভুলে যাবার মতো, তেমনি অনেক স্মৃতি মনের মণিকোঠায় সযত্নে সাজিয়ে রাখার মতো। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ২০০৬ সালের ফতুল্লা টেস্ট তেমনি এক গল্প, যে গল্প একই সাথে গৌরবের আবার “ইশ!” এর। যদি মাশরাফি পন্তিং এর ক্যাচ না ফেলতেন! যদি হাবিবুল এভাবে আউট না হতেন! ক্রিকেট ম্যাচ মানেই অনেক যদি কিন্তুর গল্প। তবে শাহরিয়ার নাফিস ওরফে আবীর, সেদিন রাঙিয়ে দিয়েছিলেন ম্যাচ, তার প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি এবং সেটা এমন ঢঙে করা, যেন মনে হচ্ছিলো ২০০৬ এর বিশ্বজয়ী অস্ট্রেলিয়া না, খেলছে কোন পাড়ার দল!

নাফিস- হাবিবুলের ১৮৭ রানের জুটি ছিল মুগ্ধতার আবেশ ছড়িয়ে দেওয়া। ওয়ারন এর দুঃস্বপ্নে নাকি শচীন আসেন নিয়মিত, আমাদের নাফিস ও আসতে পারতেন কিন্তু। মনে রাখবেন, সে যুগে ৫ দিনে খেলা নিতে পারাই ছিল কৃতিত্বের ব্যাপার, সেখানে এমন দাপুটে ব্যাটিং বিস্ময়ের উদ্রেক করতেই পারে।

১১ বছর পর অসিদের সাথে আগামীকাল আবার যখন মাঠে নামবে বাংলাদেশ, তখন কিন্তু আমাদের দলটা জানে, ম্যাচ ক্লোজ করতে হয় কিভাবে। আর অসিদের স্বর্ণযুগ অনেক আগেই গেছে। লি, ওয়ারন নেই। তাই বলে ছু মন্তর বললেই জেতা হয়ে যাবে না। অস্ট্রেলিয়ান মানসিকতা কিন্তু এই দলেরও আছে, হারার আগ পর্যন্ত পরাজয় না স্বীকার করা, শেষ পর্যন্ত লড়ে যাওয়ার। ওয়ারনার যদি পুরো এক দিন টিকতে পারেন, সাথে স্মিথ সঙ্গ দিলে…..
ঘূর্ণির মায়াজালে বাঁধবেন? স্মিথ কিন্তু মায়াজাল কাটার ওস্তাদ। আর বুমেরাং হয়ে গেলে? ও কিফ এর কথা মনে আছে? ভারতকে অবাক করে দেওয়া সেই কিফ না থাকলেও নাথান লায়ন আছেন।
হ্যা, আমাদেরও জবাব দেবার মত অস্ত্র আছে। বিশ্বসেরা সব্যসাচী সাকিব আল হাসান আছেন, তামিম ইকবাল আছেন- ওয়ারনারের চেয়ে তিনি কম কিসে? নাসির হোসেন ফিরবেন বলেই মনে হয়। মুমিনুল কে নিয়ে যে নাটক হয়ে গেলো, এরপর দলে সুযোগ পেলে তিনিই যে ২০০৬ এর শাহরিয়ার হবেন না, তার গ্যারান্টি আছে? বিস্ময়বালক মেহেদি হাসানের ঘূর্ণিতে ইংলিশরা কাত হয়েছিলো, এবার অসিদের পালা- এটাও আশা করা যায়। পরিণত বাংলাদেশ এখন টেস্টের ভাষা বোঝে, জয়ের জন্যই নামে। কোচ হাথুরু আর বিশ্বসেরা সব্যসাচী সাকিব দুজনেই বলে দিয়েছেন, ২-০ তে জেতার কথা।

সাকিব তামিম দুজনেরই কিন্তু টেস্ট খেলার ফিফটি হতে যাচ্ছে কাল। সব মিলিয়ে জয়ের প্রত্যাশা বাড়াবাড়ি নয় তবে বৃষ্টির মুখ কেউ এই পাঁচ দিন দেখতে চাইবে না, এটাই স্বাভাবিক।
টাইগার দের জন্য শুভ কামনা।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

five × 1 =