জুভেন্টাস-রিয়াল মাদ্রিদ চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল : কে কে খেলেছেন দুই দলের হয়ে?

আজ রাত ১২.৪৫ এর দিকে কার্ডিফে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে রিয়াল মাদ্রিদ আর জুভেন্টাস যখন মুখোমুখি হবে, পুরো পৃথিবীর কেউ জুভেন্টাস বা রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে গলা ফাটাবেন। কিন্তু, এমনও দশজন আছেন, যারা খেলার সময় একটু হলেও চিন্তায় থাকবেন আসলে কাকে সমর্থন দেওয়া যায়, সেই ব্যাপারে। এরা হলেন তারা, যারা তাদের ক্যারিয়ারের বিভিন্ন সময়ে কখনো রিয়াল মাদ্রিদ ও কখনো জুভেন্টাসের হয়ে খেলেছেন, কিংবা কোচিং করিয়েছেন। কে তাঁরা? এক ঝলকে দেখে নেওয়া যাক!

  • জিনেদিন জিদান

তর্কাতীতভাবে এই তালিকার সবচেয়ে বিখ্যাত নাম। বর্তমান রিয়াল মাদ্রিদ কোচ তাঁর খেলোয়াড়ি জীবনের পাঁচ বছর জুভেন্টাস ও পাঁচ বছর রিয়াল মাদ্রিদে কাটিয়েছেন, হয়েছেন বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়। জুভেন্টাসের হয়ে ১৯৯৬ সাল থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত খেলা জিদান ১৫১ ম্যাচে করেছেন ২৪ গোল, খেলেছেন টান তিনটা চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালে, জিতেছেন একটিতে। জুভেন্টাসের হয়ে লিগ, কাপ, সুপারকোপা সবকিছু জেতা এই কিংবদন্তী ফরাসী প্লেমেকারের উত্থান এই জুভেন্টাসেই, যেখান থেকে বিশ্বরেকর্ড ট্রান্সফার ফি তে তাঁকে নিয়ে আসে রিয়াল মাদ্রিদ, ৭৮ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে। জুভেন্টাসে থাকাকালীন সময়ে জিতেছেন ফ্রান্সের হয়ে বিশ্বকাপ ও ইউরোও। পরে রিয়ালে এসেও স্প্যানিশ লা লিগা, সুপার কাপ, চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতেন তিনি। ২০০২ সালের চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালে বেয়ার লেভারক্যুসেনের বিরুদ্ধে রিয়াল মাদ্রিদের জয়সূচক গোলটাও তাঁর পা থেকেই এসেছিল। আজকে যখন রিয়াল মাদ্রিদের কোচ হিসেবে ডাগআউটে বসে থাকবেন, জুভের স্মৃতি কি মনে উঁকি দিয়ে যাবেনা জিদানের?

  • ফ্যাবিও ক্যানাভারো

ইতালির ২০০৬ সালের বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক জুভের হয়ে দুই দফা খেলার মাঝে একবার খেলে গেছেন রিয়াল মাদ্রিদের হয়েও। জুভেন্টাসের হয়ে দুই দফায় ১০১টি ম্যাচ খেলা এই সেন্টারব্যাক রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে তিন বছরে খেলেছিলেন ৯৪টি ম্যাচ। জুভেন্টাসের হয়ে জেতা দুটি লিগ শিরোপা ম্যাচ পাতানোর দায়ে কেড়ে নেওয়া হলে লিগ শিরোপার আক্ষেপ মিটিয়েছেন তিনি মাদ্রিদে এসে, সেখানে জিতেছেন সুপারকোপাও। মাত্র সাত মিলিয়ন ইউরোতে জুভেন্টাস থেকে রিয়ালে যাওয়া ক্যানাভারো তিন বছর রিয়ালে খেলার পর ফ্রি তে আবারো যোগ দেন জুভেন্টাসে। রিয়ালে যাওয়ার পর জিতেছিলেন ফিফা বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের খেতাবটাও।

  • লুইস দেল সল

ষাটের দশকের এই বিখ্যাত স্প্যানিশ মিডফিল্ডার ছিলেন জুভেন্টাসের ইতিহাসের প্রথম স্প্যানিশ খেলোয়াড়। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে দুই বছরে ৫৫ ম্যাচে ২২ গোল করা দেল সল জুভেন্টাসে যোগ দিয়ে খেলেন ২২৮ ম্যাচ। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে লিগ, কাপ, ইউরোপিয়ান কাপ জিতে জুভেন্টাসে যোগ দিয়ে সেখানেও জেতেন লিগ আর কোপা ইতালিয়া।

  • মাইকেল লাউড্রপ

ডেনমার্কের ইতিহাসের অন্যতম শ্রেষ্ঠ এই মিডফিল্ডার জুভেন্টাস ও রিয়াল মাদ্রিদের মাঝে খেলে গেছেন মাদ্রিদের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনাতেও। জুভেন্টাসের হয়ে ১০২ ম্যাচে ১৬ গোল করা এই খেলোয়াড় অনেকের মতেই বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ খেলোয়াড়, জুভেন্টাসের হয়ে জিতেছেন ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপ আর সিরি আ। ওদিকে মাদ্রিদের হয়ে ৬২ ম্যাচে ১২ গোল করে সর্বসাকুল্যে জিতেছেন একটিমাত্র লিগ শিরোপা।

  • এমারসন ফেরেইরা

ব্রাজিলিয়ান এই ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডারের কাহিনীটাও অনেকটা ক্যানাভারোর মতই। ম্যাচ পাতানো স্ক্যান্ডালে জুভেন্টাস অবনমিত হলে জুভদের হয়ে ৬৭ ম্যাচ খেলা এই মিডফিল্ডার রিয়াল মাদ্রিদে যোগ দেন কোচ ফ্যাবিও ক্যাপেলোর সাথে। জুভেন্টাসের হয়ে পাওয়া দুটো লিগ শিরোপা কেড়ে নেওয়া হলে রিয়ালে এসে লিগ শিরোপা জেতেন, রিয়াল মাদ্রিদে বছরখানেক থেকে যোগ দেন জুভেন্টাসেরই সিরি আ প্রতিপক্ষ এসি মিলানে।

  • নিকোলাস আনেলকা

আর্সেনালের হয়ে বিশ্বের অন্যতম সেরা টিনএজ তারকা এই আনেলকাকে তখন পাওয়ার জন্য রিয়াল মাদ্রিদ খরচ করেছিল ২০ মিলিয়ন পাউন্ডের মত, তাও বিশ বছর আগেকার কথা। এক বছরের বেশী টেকেননি রিয়ালে, ১৯ ম্যাচ খেলে করেছিলেন মাত্র ২ গোল। ক্যারিয়ার সায়াহ্নে চাইনিজ ক্লাব সাংহাই শেনহুয়া থেকে ধারে জুভেন্টাসে যোগ দিয়ে ২ ম্যাচ খেললেও গোল পাননি কোন। রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে একবার চ্যাম্পিয়নস লিগ জেতা আনেলকা জুভেন্টাসের হয়ে জিতেছেন একটিমাত্র লিগ শিরোপা।

  • রবার্ট জারনি

ক্রোয়েশিয়ান এই মিডফিল্ডার কখনই নিজের প্রতিভার প্রতি সুবিচার করতে পারেননি রিয়াল মাদ্রিদ কিংবা জুভেন্টাসের হয়ে খেলার সময়। জুভেন্টাসের হয়ে এক বছর খেলে খেলেছিলেন ১৫টার মত ম্যাচ, রিয়াল মাদ্রিদেও এক বছর খেলে খেলেছিলেন ২৭ ম্যাচ। জুভেন্টাসের হয়ে সিরি আ ও কোপা ইতালিয়া জেতা জারনি মাদ্রিদের হয়ে জিতেছেন একটি ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপ।

  • আলভারো মোরাতা

বর্তমান সময়ের খেলোয়াড়দের মধ্যে যারা জুভেন্টাস ও রিয়াল মাদ্রিদ দুই দলের হয়েই খেলেছেন তাদের মধ্যে অন্যতম এই আলভারো মোরাতা। আজকে যখন ফাইনালে মাদ্রিদের বেঞ্চে বসে থাকবেন, বছর দুয়েক আগের এই মাদ্রিদের বিপক্ষেই জুভেন্টাসের হয়ে তাঁর গোলটার কথা কি মনে পড়বে? সেই গোলেই সেমিফাইনাল থেকে বাদ গিয়েছিল মাদ্রিদ। ২৪ বছর বয়সী এই স্ট্রাইকার কখনই জুভেন্টাস বা রিয়াল মাদ্রিদের মূল একাদশের খেলোয়াড় ছিলেন না, তবে দুই ক্লাবের হয়ে লিগ ও কাপ – প্রত্যেকটাই জিতেছেন চারবার করে, চ্যাম্পিয়নস লিগ জিতেছেন একবার।

  • স্যামি খেদিরা

জার্মান এই সেন্ট্রাল মিডফিল্ডার রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে ছয় বছর খেলে ২০১৫ সালে যোগ দেন জুভেন্টাসে, ফ্রি তে। বিশ্বকাপজয়ী এই মিডফিল্ডার রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে জিতেছেন সম্ভাব্য সবকিছুই, আর জুভেন্টাসের হয়ে জিতেছে কোপা ইতালিয়া আর লিগ শিরোপা।

  • গঞ্জালো হিগুয়াইন

রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে সাত বছরে প্রায় দুইশ’টার মত ম্যাচ খেলা এই আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার মাদ্রিদের জার্সি গায়ে করেছেন শতাধিক গোল। গত মৌসুমে ৭৫ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে নাপোলি থেকে জুভেন্টাসে যোগ দিয়ে ইতালিয়ান ফুটবলের সবচেয়ে বড় দলবদলের কেন্দ্রবিন্দু ছিলেন। এই মৌসুমে জুভেন্টাসকে লিগ জিতিয়েছেন ৩৮ ম্যাচে ২৪ গোল করে।

মজার ব্যাপার হল, আজকে খেলার সময় বিভিন্ন সময়ে মাঠে থাকবেন হিগুয়াইন, খেদিরা ও মোরাতা!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

3 + 7 =