জাগতে হবে ধ্বংসস্তূপ থেকে

শান্ত থাকেন । শক্ত থাকেন ।
এটা দরকার ছিলো । আসলেই দরকার ছিলো । দলের দীর্ঘমেয়াদে অনেক ভালো কিছুর জন্যে দরকার ছিলো । প্রতিকূলতা ছাড়া আপনি সবচেয়ে সেরা হতে পারবেন না । ব্রাজিলে গরমের কারণে সবাই ইউরোপীয়ান দলগুলোকে হিসাবের বাইরে ফেলে দিয়েছিলো । সেখানে জার্মানি এই গরমে বেশ কয়েকটা ম্যাচে খুব খারাপ সিচুয়েশন থেকে ঘুরে দাঁড়িয়ে ট্রফি জিতে ব্রাজিল ছেড়েছে । ২০১০ এর দেল বস্কের স্পেনের জন্যে শিক্ষা ছিলো ২০০৯ এর কনফেড কাপ । সেজন্যেই তারা ফার্স্ট ম্যাচ সুইজারল্যান্ডের কাছে হেরেও শেষমেষ যেয়ে ট্রফি জিতেছে । ২০০৬ এর ইতালি টুর্নামেন্টের আগে কতটা ফেবারিট ছিলো সবাই জানে ।
ছোট স্টেজে প্রতিকূলতা ফেইস করা মানে সামনের বড় স্টেজের জন্যে অনেক বেশি তৈরি থাকা । একজনে ভর করে ওয়ার্ল্ড কাপ জেতার যুগ ম্যারাডোনার আমলেই শেষ । প্লেয়ারেরা এখন কোচদের কাছে খোলা বই । খুব ভালো ট্যাকটিশিয়ান একটা পার্টিকুলার ম্যাচে একটা পার্টিকুলার প্লেয়ারের ফ্লো অফ করার সিস্টেম কোন না কোনভাবে বের করেই ফেলে ! আমি আগেও বলেছি, আবারও বলি , আমি বিশ্বাস করি না , সেমিতে নেইমার খেললেই আমরা জিতে যেতাম । কখনোই না ।
কৌতিনয়ো এত বড় একটা লীগে একটা টীমের সবচেয়ে সাকসেসফুল প্লেয়ার । তাকে নিচু করে দেখার কিছুই নেই । একটা খারাপ ম্যাচের পরে সবারই একদম “হায় আল্লাহ ! এখন কী হবে? ” ভাবটা বিরক্ত করছে । ব্যাপারটা কি এমন যে, খালি নেইমার খারাপ খেললো আর বাকি সবাই ভালো খেললো … তারপরেও আমরা ম্যাচটা হেরেছি ? না তো । বাকি সবার খারাপ খেলাও অনেক বড় কারণ । তাই নেইমারকে আপনি সর্বোচ্চ পুরো দলের দায়ের ১১ ভাগের ১ ভাগ দিতে পারবেন । এর বেশী ? কোনভাবেই না । বাকি ১১ ভাগের ১০ ভাগই সামনের ম্যাচে ক্লিক করে গেলেই তো আবার ভালো দিন …
জিনিসটা সিম্পল … ফুটবল আগের চেয়ে অনেক টীমগেইম এই প্রযুক্তির যুগে ।
এমনকি ল্যাটিন ফুটবলও ।
আর যদি এক নেইমারকে ভরসা করে বিশ্বকাপ জেতার স্বপ্ন দেখেন , তাহলে আমার বলতে কষ্ট হচ্ছে , আর্জেন্টিনাওয়ালাদের সাথে তর্কাতর্কি ছেড়ে দেন । স্পেইন ২০১০ সালের বিশ্বকাপের ২য় রাউন্ডেই পর্তুগালকে ফেইস করছে , সেমিতে জার্মানিকে ফেইস করছে । অন্যপাশে নেদারল্যান্ডস ? ২য় রাউন্ডে স্লোভাকিয়া আর সেমিতে উরুগুয়ে । দিনের শেষে মানুষ স্পেইনকেই মনে রেখেছে । সব সিচুয়েশন ওভারকাম না করতে পারলে চ্যাম্পিয়নশীল পসিবল না ।
র‍্যাঙ্কিং এ ১ নাম্বারে থেকে বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়া অন্তত ব্রাজিলের সবচেয়ে বড় লক্ষ্য না ।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

2 × 1 =