আর যেন কোন ফিক্সার না আসে

আমার মন প্রচণ্ড খারাপ, গত কয়েক রাত প্রায় নির্ঘুম ছিলাম! আজ রাতেও হয়তো ঘুম আসবেনা। বাংলাদেশ ক্রিকেট দল আমার প্রিয় প্রতিপক্ষ শ্রীলংকার বিপক্ষে খেলতে নামবে তাও আবার গলে! সেবারই তো, হ্যাঁ সেবারই তো মুশির সাথে বেশ ভালো একটা জুটি গড়েছিলাম। পুরনো রোগেই হেরাথকে ডাউন দ্যা উইকেটে এসে খেলতে গিয়ে আউট হলাম ১৯০ রানে, মুশিটা ভালো খেলে ডাবল সেঞ্চুরি পেলো। আমি পারলাম না মাইলফলক স্পর্শ করতে, সে নিয়ে আফসোস নেই। ক্যারিয়ারের প্রথম টেস্টের কথা মনে পড়ে গেলো, তখন আমি একদম বাচ্চা! সেবার মুরালি আর ভাসকে ভালোই সামলিয়েছি, প্রথম সেঞ্চুরি পেয়ে যাই প্রথম টেস্টেই তাও একেবারে বিশ্বরেকর্ড গড়ে! টাকলু জয়সুরিয়া স্লিপে দাঁড়িয়ে শুধু দুসরা দিতে বলতেছে, দেখে মুচকি হাসতাম শুধু। সে তখন থেকেই লংকানদের বিপক্ষে আমি ভালোই খেলি। অজিদের বিপক্ষে সেঞ্চুরি, আফতাবের ছয়ে আমাদের জয়! ইংলিশদের তুলোধোনা করে ৯৪, সেই ম্যাচে বেচারা অভিষিক্ত ক্রিস ট্রেলমেটের বলে প্রথম বলেই জীবন পেয়ে আউট হয়েছিলাম প্রিয় ‘এ্যাশ স্কুপ’ খেলতে গিয়ে পল কলিংউডের বলে। সেসব সবাই জানে, আজ বলতে ইচ্ছে করতেছে না।

সেবার বিশ্বকাপ খেলতে ওয়েস্টইন্ডিজ গেলাম, ভারতের বিপক্ষে জয়ে আমার অবদান নেই! তবে আফ্রিকাকে হারাতে খেলেছিলাম ক্যারিয়ারের অন্যতম সেরা ইনিংস। এসবও তো সবাই জানে, বলে লাভ নাই। আচ্ছা কিছু অন্ধকারের কথা বলা যাক, কিছুদিন আগে ফিক্সিং করতে গিয়ে ধরা খেলাম, আকসুর কাছে গিয়ে সব গলগল করে স্বীকার করলাম যদি কিছুটা সুবিধা পাই। মায়াকান্নায় চোখ ভিজিয়েছি যদি কিছু আবেগী ভক্তকুল পেয়ে যাই, পেয়েও গেলাম! আমি জানিনা, আমার ফিক্সিং এর জন্য আমায় ক্ষমা করতে পেরেছে কিনা সে ছাত্রটি যে কিনা পরীক্ষার পড়া না পড়ে বসে থাকতো আমার ইনিংস দেখার জন্য, সে রিকশাচালক যে রিকশা থামিয়ে দিতো আমার স্কুপের জন্য, সে দিনমজুর যে অনাহার থাকবে জেনেও কাজে বের হয় নাই আমার একটি ভালো টেস্ট ইনিংস দেখবে বলে। সে বাবাটি, যে কিনা তার বাচ্চাকে ব্যাট হাতে তুলে দিয়ে বলেছে আশরাফুল হওয়ার জন্য। আমি আমাদের ক্রিকেটের প্রথম তারকা ছিলাম সম্ভবত! যদিও আমি তার যোগ্যই ছিলাম না কখনো, আপনারাই ভুল করে বানিয়েছেন। আমি ফিক্সিং করে বেঈমানি করেছি, আবেগ নিয়ে খেলেছি হাজার হাজার মানুষের! আদৌ আমি কী ক্ষমার যোগ্য? জানিনা। তবে সম্ভাব্য উত্তর না।

পাদটীকা: এতক্ষণে বুঝে যাবার কথা লিখাটি বাংলাদেশের প্রথম ‘স্বীকৃত ফিক্সার’ মোহাম্মদ আশরাফুলের না। এটি আমার লেখা, যে কিনা আশরাফুলের কয়েকটি প্রথম জয়ের জন্য তাকে সম্মান করতো আর আজ প্রথম ফিক্সার হওয়ার জন্য তাকে প্রচণ্ড ঘৃণা করে। আর যাইহোক, আমাদের ক্রিকেটে আর যেন কোন ফিক্সারের আগমন না ঘটে।

@রিফাত এমিল

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

one + seven =