যেখানে ধুঁকছে দুঙ্গার ব্রাজিল (৩)

৩০শে জুন ব্রাজিলের পেন্টা জয়ের ১৩ বছর পূর্তি হলো তাই সে উপলক্ষ্যে সবাইকে দেখলাম প্রচুর পোস্ট করছে তবে দুঃখের বিষয় অনেকেই তাদের পোস্টে লিখেছেন যে বর্তমান ব্রাজিল দলের নাকি ক্ষমতা নাই ২০০২ ব্রাজিল দলের মত পারফর্ম করার আর পোস্টগুলোর কমেন্টেও দেখলাম অনেকেই আফসোস করছেন বর্তমান দল নিয়ে,কেউ আবার জ্যোতিষী হয়ে বলেই দিয়েছে যে ব্রাজিল নাকি আগামী বারো বছরেও কাপ পাবে না আচ্ছা,২০০২ এর দল কি বর্তমান দলের চেয়ে খুব বেশিই ভালো ছিল ?? নাকি বর্তমান ব্রাজিল দলটাই বেশী খারাপ??প্রশ্নের উত্তর পাওয়ার জন্য চলুন ফিরে যাই ২০০২ বিশ্বকাপ শুরুর ঠিক আগমুহূর্তে ২০০২ বিশ্বকাপে ব্রাজিল চান্স পেয়েছিলো বহুত ঘাম ঝরিয়ে,বাছাই পর্বের একদম লাস্ট ম্যাচে ভেনিজুয়েলাকে হারিয়ে কোনোমতে বিশ্বকাপ খেলার টিকিট পায় সেলেসাওরা,এই ইনফো থেকেই বুঝে নেওয়া উচিত টুর্নামেন্ট শুরুর আগে ব্রাজিলের অবস্থা কেমন ছিল এমনকি বিশ্বকাপ শুরুর আগে কিং পেলে ডিরেক্ট বলে দিয়েছিলো এই ব্রাজিল দলের হয়ে কাপ জেতা সম্ভব না!!!!!!আর বিগ ফিল বলে দিয়েছিলো যে তিনি ওইসব সাম্বা কিংবা জোগো বোনিতার ধার ধারবেন না,ম্যাচ জেতাই তার মূল লক্ষ্য!!!! ব্যাস,আর কি চাই,বিগ ফিল টুর্নামেন্ট শুরুর আগেই রামধোলাই খেয়ে নিলো এক ডোজ (যেটা বর্তমান কোচ দুঙ্গা ডেইলি খাচ্ছে),এরপর রোমারিওকে দলে না নেওয়া নিয়েও জল ঘোলা হলো,ফেনোমেনন বহুত কাহিনীর পর দলে জায়গা পেলো,অবশ্য কাহিনী হওয়াই স্বাভাবিক কারণ ইনজুরির ধাক্কায় ফেনোমেননের ক্যারিয়ারই হুমকির মুখে চলে গিয়েছিলো !! নাম্বার টেন রিভালদোর সময়ও তেমন ভালো যাচ্ছিলো না,আর রোনালদিনহো তখন নেহাত একজন রাইজিং স্টার।তারউপর রেগুলার ক্যাপ্টেন এমারসন টুর্নামেন্ট শুরুর আগে চলে গেলো মাঠের বাইরে…… কি মনে হচ্ছে এগুলো পড়ে?? নিশ্চই ভাবছেন যে তাহলে মূল আসরে ব্রাজিল এতটা ভালো খেললো কি করে??? ব্রাজিল সেবার বিশ্বকাপ জিতেছিলো কারণ প্রতিটা প্লেয়ার কোচের ফর্মেশন এর সাথে খাপ খাইয়ে নিজেদের দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করেছিলো, ৩-৫-২ ডিফেন্সিভ ফর্মেশনে সবাই নিজেদের রোলে ঠিক যা করা দরকার তাই করেছিলো,প্রতিটা ম্যাচেই ব্রাজিল নিজেদের ডিফেন্স ঠিক রেখেই অ্যাটাকে গিয়েছিলো আর এটার বড় প্রমাণ হচ্ছে পুরো নক আউট রাউন্ডে ব্রাজিল গোল খেয়েছিলো মাত্র একটা!!! মূলত বিগ ফিল তার কথামত জোগো বনিতার ধার ধারেন নি এরপরেও আমরা যা সুন্দর ফুটবল দেখেছি সেটার মূল কারণ ছিল তিনজন জাদুকরের মোহময় ফুটবল!!! রিভালদো নাম্বার টেন জার্সিতে ছিল অনন্য তবে রোনালদিনহোর মতন তরুণ সেবার যা দেখিয়েছিলো সেটা ছিল অপ্রত্যাশিত ভালো পারফর্মেন্স!!!!! তবে,সবচেয়ে অবিশ্বাস্য ছিল রোনালদোর পারফর্মেন্স, যার কিনা ইনজুরির কারণে খেলারই কথা ছিল না,সেই ফেনোমেনন ৮ গোল করে বাজিমাত করলেন!!! আর এই তিনজন প্রমাণ করেছেন ডিফেন্সিভ ফর্মেশন নিয়ে খেলেও দলে অল্প কিছু জাদুকর থাকলে সুন্দর ফুটবল খেলা সম্ভব!!! ২০০২ দল নিয়ে এত কথা বলার উদ্দেশ্য একটাই আর সেটা হলো বর্তমান দল ঠিক কোন অবস্থায় আছে সেটা দেখানো, আমাদের দলের সবচেয়ে খারাপ সময় যাচ্ছে এটা অনেকেই মনে করেন কিন্তু সত্যি কথা হচ্ছে সবচেয়ে খারাপ সময় আমরা পিছনে ফেলে এসেছি,প্রতিভার অভাবে আমরা ভুগেছি ২০০৬-১০ এ কিন্তু এখনকার দলে প্রতিভার কোনো অভাব নাই,২০০২ এ রিভো ফেনোমেনন রনি যেই রোল প্লে করেছে সেই রোল প্লে করার জন্য ইনশাআল্লাহ দুইজন প্লেয়ার আমাদের আছে,রিভো ২০০২ এ যেই রোল প্লে করেছিলো সেই রোল প্লে করার ক্ষমতা অস্কার এর আছে,গ্রুপে কিছু পাবলিকের অস্কার এর প্রতিভা নিয়ে ডাউট আছে,আমি তাদের বলছি যুব বিশ্বকাপ ফাইনালে অস্কার এর হ্যাটট্রিক টা দেখে আসুন, অস্কার এই দলের সাথে দীর্ঘদিন আছে আর ইনশাআল্লাহ ২০১৮ সালে আরো ধারালো হবে আর রনি ২০০২ এ খেলেছিলো আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি তারচেয়ে বেটার পারফর্ম করার ক্ষমতা নেইমির আছে,শুধু ক্যারিয়ার টা ঠিক পথে রাখতে পারলেই হবে কিন্তু প্রবলেম হচ্ছে দলের ফেনোমেনন এর ধারেকাছে একটা ফিনিশার এখনো পাওয়া যায়নি,তবে আমাদের হাতে এখনো তিন বছর আছে,ইনশাআল্লাহ একজন স্ট্রাইকার খুঁজে পাবোই,এছাড়া নেইমার আর অস্কার কে যোগ্য সাপোর্ট দেওয়ার জন্য লুকাস,উইলিয়ান, কৌতিনহো, অ্যান্ডারসন সবাই আছে, সুতরাং প্রতিভার অভাব আমাদের নেই,এখন দরকার একটা মাস্টারপ্ল্যান এর আর তার সাথে এদের সঠিক পরিচর্যার।আর,এরা ঠিকভাবে জ্বলে উঠলে দেখবেন দুঙ্গা যেই ফর্মেশন এইই খেলাক সেটাই সুন্দর, মোহময় হবে আর এখন নিশ্চই বুঝতে পারছেন যে ২০০২ এর ভাঙ্গাচোরা দল বিশ্বকাপ জিততে পারলে এই দলও ২০১৮ তে হেক্সা আনতে পারবে,তাই প্লিজ ত্রিশ বছরেও কাপ পাবে না ব্রাজিল,এই দল নিয়ে কিছু হবে না প্লিজ এইসব কথা বলবেন না,বিশ্বাস রাখুন, ইনশাআল্লাহ এই জেনারেশন বিশ্বাস এর অমর্যাদা করবে না

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

twelve − 4 =