রজার ফেদেরারের যত কীর্তি!

সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ টেনিস খেলোয়াড় কি তিনি? কেউ বললেও অত্যুক্তি করা হবেনা মোটেও। ১৯৯৮ সালে শুরু হওয়া প্রফেশনাল ক্যারিয়ারে কত শত যে রেকর্ড করেছেন, নিজেও হয়ত জানেন না। জানেন না তাঁর ভক্তকুলও, এতই তাঁর রেকর্ড। আজ এই মহান কিংবদন্তীর জন্মদিনে তাই একটু পেছনে ফিরে দেখা যাক এই চলমান বিশ বছরের সফরে

দুজনই সত্যিকারের চ্যাম্পিয়ন

"গড, ইটস কিলিং মি..." গাল বেয়ে নামছিল জল। কামড়ে ধরা ঠোঁট। নিজেকে সামলানোর অনেক চেষ্টা করেও পারেননি। এই রড লেভার অ্যারেনার হার্ড কোর্ট সিক্ত হয়েছিল তার অশ্রু ফোটায়। ১৩টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম জেতা হয়ে গেছে ততদিনে। কিন্তু রাফায়েল নাদালের কাছে টানা তিনটি ফাইনাল হারার পর ভেঙে পড়েছিলেন রজার ফেদেরার। মাইক্রোফোনের সামনে দাঁড়িয়ে

অঘটন!

এক পঞ্জিকাবর্ষের চারটি গ্র্যান্ডস্ল্যামের চারটি জেতার কৃতিত্ব ছিল স্টেফি গ্রাফের, ১৯৮৮ সালে। যে গতি নিয়ে এগোচ্ছিলেন, সেরেনা উইলিয়ামসের কাছে সে রেকর্ডটা অনতিক্রমণীয় বলে মনে হচ্ছিল না মোটেও। এ বছরে এর মধ্যেই অস্ট্রেলিয়ান ওপেন, উইলম্বডন, ফ্রেঞ্চ ওপেন জয়ী সেরেনার ইউএস ওপেন জয়েও আপাতদৃষ্টিতে কোন বাধা আছে বলেও মনে হচ্ছিল না। কিন্তু

স্বপ্ন পূরণ হল ক্যারোলিন ওজনিয়াকির!

অবশেষে ক্যারোলিন ওজনিয়াকি এক ঢিলে দুই পাখি মেরে ফেললেন – নতুন চুক্তি সই এবং চকোলেট খাওয়া! বর্তমানে মেয়েদের টেনিস র‍্যাঙ্কিংয়ে পাঁচ নম্বরে থাকা ২৪ বছর বয়সী এই টেনিস তারকা বেলজিয়ামের বিখ্যাত চকোলেট প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান “গডিভা চকোলেটিয়ার” এর সাথে নতুন চুক্তি সই করেছেন। ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল প্রোফাইলে এই কিছুদিন আগেই ওজনিয়াকি একটি চকোলেট

ষষ্ঠবারের মত অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের শিরোপা জিতে নিলেন সেরেনা উইলিয়ামস

রেনা উইলিয়ামসের বিপক্ষে এবারও জয় ছিনিয়ে আনতে ব্যর্থ হলেন মারিয়া শারাপোভা। ক্যারিয়ারে ১৯ বারের মুখোমুখিতে জয় দেখেছেন মাত্র ২ ম্যাচে। সর্বশেষ জয় আজ থেকে ১১ বছর আগে! আর এবার তো ৬-৩, ৭-৬ (৭-৫) গেমে হেরে গিয়ে অস্ট্রেলিয়া ওপেনের শিরোপাটাই হাতছাড়া করলেন। অন্যদিকে মেয়েদের টেনিস রাঙ্কিংয়ে বর্তমান বিশ্বসেরা ৩৩ বছর বয়সী সেরেনা