জয় হলো উচ্চতার ভয়ঃ তিতের ব্রাজিল উড়লো

সময়-সৌন্দর্য্য আর সুবচন সর্বদা বিজয়ীর পক্ষে। আজ ম্যাচ জেতার পরে যে কোচের ডাগ আউট থেকে নিরন্তর উঁচু গলায় কথা বলা আর চেঁচামেঁচিকে আপনার অনেক ভালো মনে হচ্ছে আর ছেলেদের সাথে একদম মিশে যাবার একটা চিহ্ন মনে হচ্ছে, সেই ম্যাচটার রেজাল্টই ০-০ বা আমাদের বিপক্ষে ১-০ হয়ে গেলে আপনি বলতেন খামোখা ডাগ আউট থেকে চিল্লাপাল্লা করা এক কোচ।

একটা দল চেয়েছিলাম যেটা ডিফেন্সিভলি অনেক সাউন্ড হবে আর সঠিক সময়টায় সঠিক সুযোগটা কাজে লাগানোর মত দুর্দান্ত হবে। স্রেফ দু লাইনের টার্গেট। দুই লাইনের টার্গেটের ২য়টা ব্রাজিল শেষ ৩০ মিনিটে পূরণ করেছে আর প্রথমটা থেকে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতাই বলুন আর যে কারণই বলুন অনেক দূরে আছে। ডিফেন্সিভলি এই দলটা এখনো কলম্বিয়ার চাইতেই অনেক পেছানো। মিরান্ডার চেয়ে জিল কোপাতে ভালো পারফর্মার ছিলেন। সেই খারাপের রাশ আরো টেনে আনলেন মিরান্ডা। আর তার সাথে অগাস্টো থেকে মিরান্ডা-মার্কুইনহোসকে পরীক্ষায় ফেলেছেন বারবার। দানি আলভেজের জেফারসন মনতেরোকে রাতের বেলা দু:স্বপ্নে দেখার কথা। প্রথম ৫ মিনিটেই ২/৩ বার ওভারল্যাপ করে পাড়ার খেলোয়াড় বানিয়ে একদম উঠে পড়া। মার্কুইনহোস- ক্যাসেমিরো ম্যান মার্কিং গুলো ঠিকঠাক না করলে একদম খেয়ে যেত স্রেফ। সব মিলিয়ে ওয়ান লাইনার হলো, মার্কুইনহোসকে আরো দেখতে চাই আর ক্যাসেমিরো ছাড়া কেউই প্রত্যাশার মাত্রার আগেপিছে নেই। ব্যাক ফোর আর ডিপ লাইং মিডে একটু একটু করে চাঁছাছোলা করে শেইপ করতে হবে। বাচ্চাদের হাতে বানানো কাঠের ব্যাটের মত।

তবে যেখানে ব্রাজিল আসলে উড়তে পেরেছে সে জায়গাটা হলো শেষ ৩০ মিনিটের দারুন প্রয়োগবাদী ফুটবল। মাঝে মাঝে প্রেস করতে যেয়ে যতোটুকু জায়গাই ইকুয়েডর ছেড়েছে সেটুকুর একদম পুরো ব্যবহার করে নিজেদের রেজাল্ট বের করে এনেছে ব্রাজিল। আর মূলত এখানেই দুঙ্গার ব্রাজিল থেকে কিছুটা হলেও শ্রেষ্ঠত্বের পরিচয় দিয়েছে ব্রাজিল। নেইমারের সাথে জায়গা এক্সচেঞ্জ করে জেসুসকে প্রথমার্ধে সাবলীল না মনে হলেও সময় গড়াতে ওয়ার্করেট বেড়েছে এবং শেষমেশ এই জায়গাটাই ফল এনে দিলো ব্রাজিলকে।

আমি ফুটবল হালকা বোঝা বাস্তববাদী লোক। এটা খুব ভালোভাবেই জানি, সাম্বা টাম্বা এগুলো পেপারওয়ালাদের পেপার চালানোর ধান্ধা স্রেফ! আর কিছু না! মডার্ন ফুটবলে আপনি আপনার নিজের স্টাইলের সাথে প্রতিপক্ষ অনুযায়ী নিজেকে না বদলালে সাফল্য পাবেন না। আপনার দলের ফুটবলারেরা সারাটা বছর ইউরোপে খেলবে আর তাদের মধ্য়ে ইউরোপের খেলার কোন ছাপকে বাদ দিয়ে আপনি রেজাল্ট আশা করলে আপনি অনেক উচ্চমাত্রার বোকা মানুষ । আমি চাই তিতে স্রেফ সাফল্য পাক। যেখানে অনেক ডিফেন্সিভলি নিয়ন্ত্রিত পারফরমেন্স এর সাথে থাকবে গতকালটার শেষ ৩০ মিনিটের মত নির্দয় ফলমুখী কার্যকারিতা।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

seventeen + 20 =