পিসিবির প্রস্তাব নাকচ বাংলাদেশের

বহুদিন ধরেই নিজের দেশের মাটিতে ক্রিকেট সিরিজ আয়োজন করার জন্য মুখিয়ে আছে পাকিস্তান। বিভিন্ন সন্ত্রাসবাদী হামলার কারণে পাকিস্তান একরকম একঘরেই বলা চলে, বহুদিন থেকে কোন দল পাকিস্তানে গিয়ে সিরিজ খেলতে চায় না। পাকিস্তানকেও আবুধাবি কিংবা মধ্যপ্রাচ্যে গিয়ে “হোম” সিরিজ খেলে আসতে হয়। পাকিস্তানি ক্রিকেট বোর্ডের হর্তাকর্তারা যদিও সবসময় হম্বিতম্বি করেন তাঁদের দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি এখন অনেক ভালো ইত্যাদি ইত্যাদি ইত্যাদি, কিন্তু তাতে আইসিসির সিদ্ধান্তের পরিবর্তন হয়নি কোন। কিন্তু তাতে দমে যায়নি পাকিস্তান, বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন দেশের বোর্ডকে প্রস্তাব দিয়ে আসছে তাঁরা, যাতে তাঁদের দেশে সিরিজ খেলে আসে সেসব দেশের ক্রিকেট দল। এবং এক্ষেত্রে পাকিস্তানের পছন্দের দিকে বরাবরই উপরের দিকে আছে বাংলাদেশ।

এবারও তাঁর ব্যতিক্রম হয়নি। সপ্তাহ তিনেক আগে পাকিস্তানি ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট লিগ পিএসএলের ফাইনাল লাহোরে সফলভাবে আয়োজন করে পাকিস্তান এখন মনে করছে তাঁরা তাঁদের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সম্বন্ধে বাকী বিশ্বের কাছে একটা ইতিবাচক বার্তা পাঠাতে পেরেছে, ফলে তাঁরা এখন দেশের মাটিতে সিরিজ খেলতে পারে। এই কারণে আসছে জুলাই মাসের কিছু আগে দুই ম্যাচের টি২০ সিরিজ খেলার জন্য বাংলাদেশকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে তাঁরা। যদিও বাংলাদেশ প্রস্তাবটি সরাসরি প্রত্যাখ্যান করেছে।

পিএসএল ফাইনালে কেটা গ্ল্যাডিয়েটর্সের পক্ষে বাংলাদেশের আনামুল হক খেলায় এবং গোটা টুর্নামেন্টে সাকিব-তামিম ও মাহমুদুল্লাহ খেলার ফলে পাকিস্তান ভেবেছে বাংলাদেশকে সহজেই রাজী করানো যাবে তাঁদের দেশে সিরিজ খেলার জন্য। তাঁর উপর পিএসএল ফাইনালে সেদিন উপস্থিত ছিলেন বিসিবির প্রতিনিধি মেজর একেএম আনিস-উদ-দৌলা। কিন্তু কিছুতেই কিছু হল না পিসিবির, বিসিবি সে দেশে দল পাঠাতে রাজী হয়নি।

এমনিতেই সামনে জুলাই মাসে বাংলাদেশে সিরিজ খেলতে আসছে পাকিস্তান, এবং সে সিরিজ খেলার জন্যেও লাভের একটা অংশ বিসিবির কাছে দাবি করেছে তাঁরা, তাঁরা মনে করে গত ছয় বছরে পাকিস্তানে সিরিজ খেলার জন্য বাংলাদেশ যে আপত্তি জানিয়েছে তাঁদের “আইনশৃংখলা পরিস্থিতি ঠিক থাকা সত্বেও”, তাতে বাংলাদেশের কাছ থেকে ক্ষতিপূরণ পাওনা হয়ে আছে তাঁদের। এমনকি শেষবার ২০১৫ সালে পাকিস্তান যখন বাংলাদেশে সিরিজ খেলতে আসলো, তখনো বিসিবির কাছ থেকে ৩২৫০০০ ডলার বাগিয়ে নিয়ে গেছে পিসিবি, এবং সেটা যে টেকনিউক্যালি তাঁদের হোম সিরিজ ছিল, সেটা বারবার বলে এই টাকা নেওয়ার বিষয়টা হালাল করার চেষ্টা করেছে তাঁরা সবসময়। যদিও এবার বিসিবি অনেক বেশী কঠোর, এইসব টাকা দেওয়ার মধ্যে আর নেই বিসিবি।

গত দুই বছরের মধ্যে বাংলাদেশকে নিয়ে এই নিয়ে চারটি দেশ পাকিস্তানে সিরিজ খেলতে অস্বীকৃতি জানালো, বাকী দেশগুলো হচ্ছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ, শ্রীলঙ্কা ও আয়ারল্যান্ড।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

one × one =