আর্সেনাল বিশ্লেষণ: গোলকিপার পজিশন

মূল লেখা – আহসানুল হক

 

দলের ১ নম্বর পজিশনটা থাকে গোলকিপার এর জন্য। তবে মাঠে একজন গোলকিপার থাকতে পারবে দেখে এমন কিন্তু না যে কোন ক্লাব তার স্কোয়াডে একজন মাত্র ভালো গোলকিপার দিয়ে চালাতে পারবে.. বিশেষ করে দলটাকে যখন একটা বিশ্বমানের লিগের সেরাদের কাতারে থাকার প্রতিযোগীতা করতে হয়।

আর্সেনালের ফার্স্ট টিমে বর্তমানের দুই গোলকিপার হচ্ছেন পোল্যান্ড এর ওজিয়েইক শেজনি এবং কলম্বিয়ার ডেভিড ওসপিনা। দুইজনই নিজ নিজ দেশের জাতীয় দলে খেলেন এবং সর্বোচ্চ পর্যায়ে প্রথম পছন্দ হিসেবেই বিবেচিত হন।

ওজিয়েইক শেজনি
ওজিয়েইক শেজনি

 

ডেভিড অসপিনা
ডেভিড অসপিনা

আর্সেন তার গোলকিপারদের রোটেট করার ক্ষেত্রে একদম সহজ পদ্ধতি অনুসরন করেন। লিগে দলের প্রথম পছন্দের গোলকি এর জায়গায় কাপ কম্পিটিশন এ দ্বিতীয় পছন্দের গোলকি কে একাদশে রাখেন। গত মৌসুমেও শেজনি এবং লুকাস ফ্যাবিয়ান্সকি এর মধ্যে রোটেশন হয়েছে। এ মৌসুমের শুরুতে ফ্যাবিয়ান্সকি দল ছাড়ার পর ওসপিনাকে সাইন করানো হয়। প্রথম পছন্দ শেযনিই ছিলেন। কাপ কম্পিটিশন এ স্টার্ট করছিলেন ওসপিনা, এফএ কাপের তৃতীয় রাউন্ড এ হাল সিটির সাথে ০-২ গোলে জেতা ম্যাচটা পর্যন্ত ছিলেন দলের দ্বিতীয় পছন্দের কিপার।

তবে ২০১৫ এর প্রথম দিকে সাউদাম্পটনের সাথে ২-০ গোলে হারা ম্যাচটাতে উভয় গোলই শেযনির ভুল থেকে হবার পর থেকেই লিগে ওসপিনা আর্সেনালের প্রথম পছন্দের কিপার। আর শেযনি এর পর থেকে এফএ কাপের ম্যাচগুলোতে স্টার্ট করছেন।

এটাকে ইতিবাচক প্রতিযোগিতা বলা যায়। লিগের সব বড় দলেই আমরা এরকম দেখতে পাই.. যেমন : কোর্তয়া-চেক, ডি হেয়া-ভালদেস, লরিস-ভর্ম, জো হার্ট-কাবালেরো, ব্রাভো-টের স্টেগেন।

কয়েক মাস আগে শেযনি Arsenal.com কে দেয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, “যখন আপনি টপ লেভেল এর ক্লাব এ থাকবেন, তখন আপনার দুইজন টপ কোয়ালিটি গোলকিপার লাগবেই। মৌসুম অনেক লম্বা সময় ধরে হয়… আপনি ইনজুর্ড হতে পারেন, লাল কার্ড খেতে পারেন.. তাই এটা খুবই গুরুত্বপূর্ন যে দুইজন দলের ১ নম্বর পজিশনের জন্যে লড়াই করাটা।”

আর্সেনাল কিংবদন্তি ডেভিড সিম্যান ও অনেকটা একই মত ব্যক্ত করেন সাক্ষাৎকারে, বলেন.. ” গোলকিপাররা একসাথে ট্রেনিং করে। দুইজন যখন একই সাথে ট্রেনিং করে তখন পরষ্পরকে ছাড়িয়ে যাবার তাড়না দুইজনকেই বেটার গোলকিপারে পরিনত করে।”
তিনি আরো বলেন.. ” ওসপিনা দলে সুযোগ পেয়েছে এবং যোগ্যতা প্রমান করেছে। শেযনি – ওসপিনা দুইজনই ভালো গোলকিপার এবং প্রথম একাদশের যোগ্য। যে ভালো করবে সেই সুযোগ পাবে।”

বিশ্লেষন:

শেযনি এবং ওসপিনা দুইজন দুই ধরনের গোলকিপার। শেযনি ৬ ফিট ৫ ইঞ্চি লম্বা টিপিক্যাল পুর্ব ইউরোপিয়ান গোলকিপার। নিজ বক্সে কর্তৃত্ব রাখতে পছন্দ করেন এবং প্রতিপক্ষের ক্রসগুলো লুফে নিতেই পছন্দ করেন।

hi-res-ef2333bc0a57ebdeeb8ddb3e7e40eadf_crop_north

দক্ষিণ অামেরিকার গোলকিপারদের সাধারনত লম্বা হতে দেখা যায় না, ওসপিনাও খুব একটা দীর্ঘকায় নন। বক্সে ভেসে আসা ক্রস গুলো ক্যাচ করার চাইতে শক্তিশালী পাঞ্চ করতেই স্বচ্ছন্দ্য বোধ করেন এই কলম্বিয়ান। স্কুল জীবনে ভলিবল দলের অপরিহার্য খেলোয়ার কেন ছিলেন দেখেই বোঝা যায়।

hi-res-4771733a2956cbd29414cbdb4dd653e8_crop_exact

লাতিন অামেরিকা থেকে রোজারিও চেনি, হোসে লুই চিলাভার্ট এবং রেনে হিগুইতার মতো বল পায়ে দক্ষ গোলকিপার দেখা গেলেও আর্সেনালে সুইপার কিপার রোলের কথা চিন্তা করতে গেলে শেযনি এগিয়ে আছেন ওসপিনার থেকে। বল পায়ে আত্মবিশ্বাসী এবং চাপের মুখেও সঠিক ভাবে বল রিলিজ করতে পারেন তিনি।

দুইজনের মধ্যে একটা বড় পার্থক্য হল পাসিং অ্যাকুরেসি তে। WhoScored.com এর তথ্য অনুযায়ী শেযনি তার টোটাল পাস এর ৬৩.৭% সম্পন্ন করেছেন এবং ওসপিনা করেছেন ৫৬.১%
অথচ আর্সেনালের ফার্স্ট টিমে সুযোগ পাবার পর তার বল ডিস্ট্রিবিউশন ক্ষমতায় ঘাটতি নিয়ে অনেক ঘাটাঘাটি হয়েছে। আসল ব্যাপার হল ব্রেন্টফোর্ড এ লোনে থেকে ফেরত আসার পর আর্সেনালের খেলার ধরনে মানিয়ে নিতে সময় লেগেছে। এর পর কিন্তু ঠিকই পাসিং এর এই দুর্বলতটা কাটিয়ে উঠেছেন।

মিডলসবোরে এর সাথে এফএ কাপের পঞ্চম রাউন্ড এ খেলায় ২-০ গোলে আর্সেনাল জেতার পথে শেযনিকে পাস মিসপ্লেসড করতে দেখা যায়নি (পাসম্যাপ ১) তেমন একটা।
আবার রিডিং এর সাথে সর্বশেষ ম্যাচেও (টাচম্যাপ) তাকে একাধিকবার বক্স থেকে বাইরে এসে আর্সেনালের পাসিং বিল্ডআপ এ ভূমিকা রাখতে দেখা গেছে।

অন্যদিকে ওসপিনার পাসিং অ্যাকুরেসি তে সাম্প্রতিক সময়ে যথেষ্ট উন্নতি হয়েছে। একটা ব্যাপার লক্ষ্য করা যায় আর্সেনালকে যখনই হাই প্রেস করা হয় এবং গোলকিপার কে প্রেসারে রাখা হয় তখনই ওসপিনা লম্বা বল বাড়িয়ে অলিভিয়ের জিরুকে খুজে নিচ্ছে। আর্সেনালের ম্যানসিটির সাথে জয়লাভ করার ম্যাচটি (পাসম্যাপ ২) খেয়াল করলে দেখা যায় এটার সত্যতা। আর্সেনালের রক্ষন কে সহসাই আক্রমনে রুপান্তরিত করার চাবিকাঠি হয়েছিল ওই ম্যাচে এই লং বল গুলো।
গোল কিপারের বল ডিস্ট্রিবিউশন এত গুরুত্বপুর্ন কেন?? কারন আর্সেনালের খেলার ধরনে গোল কিপার থেকেই অনেক সময় পাসিং বিল্ডআপ শুরু হয়। মার্টসেকার কে অনেক অনেক বার ব্যাকপাস করতে দেখার একটা মুল কারন ও এটা।

এবার দৃষ্টি ফেরানো যাক গোলকিপারের মুল কাজ.. গোল বাচানো। গোলকিপিং টেকনিক বা অ্যাবিলিটির এর দিক থেকে শেযনি এগিয়ে আছে ওসপিনা থেকে এবং শেযনির প্রতিভা ও সামর্থ্য নিয়ে কোন সন্দেহ ছিলনা কখনো। তার রিফ্লেক্স, পজিশনিং সেন্স বা ফুটওয়ার্ক ও ওসপিনা থেকে ভালো।
তাহলে কেন শেযনি কে বসিয়ে ওসপিনা?? পার্থক্যটা পরিণতিবোধ এ। তিন-চার বছর আগে শেযনি এবং ডেভিড ডি গ্যায়া এর মধ্যে কে বেটার এই প্রশ্নের জবাবে শেযনির নাম আসলে কেউ অবাক হত না। কিন্তু এখন.. গ্যায়া যতটা উন্নতি করেছে শেযনি ততটা উন্নতি করতে পারে নাই।
২০১১ সালের লিগ কাপ ফাইনালে শেযনির ভুলে গোল হজম করে শিরোপা জিততে না পারাটা সহজেই ভোলার মত ছিল না। একই সাথে শেযনির কাছে প্রত্যাশা ছিল আরো ধারাবাহিক পার্ফমেন্স এর। কিন্তু এ মৌসুমেও শেযনির ভুলে আর্সেনাল একাধিকবার গোল হজম করেছে। সর্বশেষ এফএ কপের সেমিফাইনালের গোলটাতেও এই লেভেলের গোলকিপার যে ১৮০ এর কাছাকাছি ম্যাচ খেলেছে তার থেকে আরো বেটার আশা করা উচিত।

এই দিক গুলোতেই ওসপিনা কিছুটা এগিয়ে। তার অভিজ্ঞতাও তাকে সাহায্য করছে। সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নেবার ক্ষমতাই ফার্স্ট চয়েজ হতে ওসপিনাকে শেযনির চাইতে প্রাধান্য দিতে সাহায্য করেছে।
Squawka.com এর থেকে নেয়া তথ্য (Squawka Comparison 1,2,3) মতে দেখা যায় পরিসংখ্যানের বিচারে ওসপিনাকে সহজেই লিগের সেরা গোলকিপারদের কাতারে ফেলা যায়। লিগের ৩২ তম গেমউইক এর আগে পর্যন্ত অন টার্গেট গোল অ্যাটেম্ট যা ব্লক হয়নি তার ৮৪% সেভ করেছিলেন ওসপিনা। এর পরের বার্নলির সাথে ম্যাচেও রেখেছেন ক্লিনশিট।

তবে আর্সেনালের সাম্প্রতিক ভালো ফর্মের পেছনে অন্যতম অনুঘটক ডিফেন্স লাইনের সামনে ডিফেন্সিভ মিডফিল্ড এর ভালো করা। ওসপিনার ভালো পরিসংখ্যানের পেছনে এটাও একটা কারন।

তো ওসপিনা এত ভালো করলে শেযনির কি আর্সেনাল ক্যারিয়ার শেষ???
মোটেই না। শেযনি গত মৌসুমের সর্বোচ্চ বার নিজের গোল পোস্ট অক্ষত রেখেছিলেন শেযনি এবং একই সাথে গোল্ডেন গ্লাভস জিতে ছিলেন শেযনি। তাই তার অ্যাবিলিটি নিয়ে কোন প্রশ্ন তোলার অবকাশ নাই।

আর্সেনে ওয়েঙ্গার এখন তার গোল কিপিং পজিশনে সুবিধমত শেযনি বা ওসপিনা কে ব্যাবহার করতে পারছেন এবং এটাই স্কোয়াড রোটেশন। আর ইতিবাচক প্রতিযোগিতা যে শুধু দুইজনের থেকে যে সেরাটা বের করে আনবে তা নয়.. বরং ফার্স্ট টিমের পাইপ লাইনে থাকা গোল কিপার এমিলিয়ানো মার্টিনেজ, রায়ান হুডার্ট, ডিয়্যান ইলিয়েভ, ম্যাট ম্যাকাই, জশ ভিকার্স, হুগো কেটো দের মধ্যেও আরো ভালো করার তাড়না থাকবে।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

12 + ten =