আনসাং এক স্প্যানিশ ম্যাটাডোর : আরিৎজ আদুরিজ

তিনদিন আগে স্প্যানিশ সুপারকাপের ফাইনাল না দেখে, বার্সার জয় অবশ্যম্ভাবী ভেবে যারা ঘুমিয়ে গিয়েছিলেন, ঘুম থেকে উঠে খুব বড়সড় একটা ধাক্কা খেয়েছেন যে সেটা বলাই যায়। প্রতিদিন আপনি বার্সার চার গোল হজম করার সাক্ষী স্কোরলাইন দেখবেন না, তাও রিয়াল মাদ্রিদ ছাড়া অন্য কোন স্প্যানিশ প্রতিপক্ষের বিপক্ষে ত নাই-ই।

এই অসাধ্য সাধন করেছে অ্যাথলেটিক বিলবাও। বার্সার মতই স্পেইনের আরেক স্বায়ত্বশাসন-প্রত্যাশী বাসক অঞ্চলের ক্লাব। আর এই অসাধ্য সাধন করা তাঁদের পক্ষে সম্ভব হয়েছে ৩৪ বছরের এক বুড়োর হাড়ের ভেলকির জোরে। স্প্যানিশ সেই চিরতরুণ আড়ালের সেই যোদ্ধার নাম আরিৎজ আদুরিজ। ৩৪ বছর বয়সী এই স্ট্রাইকারের হ্যাটট্রিকের সাথে ডিফেন্ডার মিকেল সান হোসের এক গোল মিলিয়ে সুপারকাপের প্রথম লেগে বার্সার জালে এক হালি গোল ভরেছে বিলবাও। আর আদুরিজ অংশ হয়েছেন এক অনন্য রেকর্ডের। ২০০৫ সালের পর এই প্রথম, এই দশ বছরে প্রথম স্ট্রাইকার হিসেবে বার্সার বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করেছেন তিনি। ২০০৫ সালে সর্বশেষ বার্সার বিরুদ্ধে হ্যাটট্রিক করেছিলেন তৎকালীন ভিয়ারিয়ালের উরুগুইয়ান স্ট্রাইকার ডিয়েগো ফোরলান। ৩-৩ গোলে ড্র হওয়া সেই ম্যাচে বার্সার হয়ে জোড়া গোল করেছিলেন ফরাসী উইঙ্গার লুডোভিক গিলি ও বাকী গোলটি ছিল রোনালদিনিওর।

hi-res-86ac290178fd9ede9ef055d4027a0175_crop_north

ত যাই হোক, আদুরিজ প্রসঙ্গে আসা যাক। বাসক অঞ্চলের স্যান সেবাস্তিয়ানে জন্ম নেওয়া এই স্প্যানিশ স্ট্রাইকার ভ্যালেন্সিয়া, ভ্যালাদোলিদ, মায়োর্কার মত ক্লাবে খেললেও বারবার ফিরে গেছেন বিলবাওর টানে। আর সাধারণত নিজের অঞ্চল ছাড়া অন্য কোন অঞ্চলের খেলোয়াড় না খেলানো বিলবাও-ও বারবার নিজের সন্তানকে বরণ করে নিয়েছে উদারহস্তে। এই নিয়ে ভিন্ন ভিন্ন তিনবার বিলবাওয়ের জার্সি গায়ে জড়ানো আদুরিজের ২০০২ সালে বিলবাওর মূল একাদশে অভিষেক ঘটে, এই বার্সার বিপক্ষেই, যে ম্যাচে ২-০ গোলে হেরে যায় বিলবাও। আদুরিজের মধ্যে সেই প্রতিভা দেখেছিলেন তৎকালীন বিলবাও কোচ, বায়ার্ন ও রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে চ্যাম্পিয়নস লিগজয়ী জার্মান কোচ ইয়াপ হেইনকেস। কিন্তু মৌসুম শেষে ছাঁটাই হয়ে চলে যেতে হয় হেইনকেস কে, আদুরিজও দলে নিজের জায়গা হারান, ধারে খেলতে চলে যান বার্গোসে। বার্গোস, ভ্যালাদোলিদ ঘুরে আবার বিলবাওয়ে আসা আদুরিজ দুই মৌসুম শেষে আবার চলে যান মায়োর্কা, সেখান থেকে ভ্যালেন্সিয়া ঘুরে আবার ফিরে আসেন এককালে যুবদলে জাবি আলোনসো, মিকেল আরটেটার সাথে খেলা আদুরিজ, বিলবাওয়ের টানে। বয়স হলেও পায়ে যে বিন্দুমাত্রও মরচে পড়েনি তার প্রমাণ গত মৌসুমে লিগ, কাপ, ইউরোপীয় প্রতিযোগীতা সবকিছু মিলিয়ে খেলেছেন ৪৭ ম্যাচ, গোল করেছেন ২৬টি। স্ট্রাইকে এনরিকে সোলা দের মত তরুণ স্ট্রাইকারকে সরিয়ে কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দের এখনো মূল ভরসার জায়গা তিনি।

Barcelona+v+Athletic+Club+Copa+del+Rey+Final+QAWRf4XA1UGx

ফার্নান্দো টরেস, ডেভিড ভিয়া, ফার্নান্দো ইয়োরেন্তে, রবার্তো সলদাদো, আলভারো নেগ্রেদোদের ভিড়ে কখনই স্পেনের মূল স্ট্রাইকার হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারেননি আরিৎজ আদুরিজ, খেলেছেন সাকল্যে একটি ম্যাচের শেষ পনের মিনিট, ইউরো ২০১২ এর বাছাইপর্বে লিথুয়ানিয়ার বিপক্ষে কোচ ভিসেন্তে দেল বস্কের অধীনে, তাও ফার্নান্দো ইয়োরেন্তের বদলি হিসেবে।

স্পেনে জায়গা না পাওয়া সেই আদুরিজই এখন স্পেনের সবচেয়ে বড় ক্লাবের অন্যতম লজ্জার কারণ। আজ দ্বিতীয় লেগে আদুরিজ অবশ্যই চাইবেন গত লেগের হালি গোলের সাথে কিছু গোল যোগ করে বার্সার বাড়ি ন্যু ক্যাম্প কে স্তব্ধ করে দিতে। চাইবেন ৩৪ বছর বয়সে ক্যারিয়ার সায়াহ্নে এসে বার্সার মত ক্লাবকে হারিয়ে ক্লাব ফুটবলে নিজের প্রথম শিরোপা জিততে!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

three + 20 =