সমালোচনার মুখে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো; হামেস এবং খেদিরাকে জরিমানা।

জরিমানা গুণতে হচ্ছে হামেস রদ্রিগেজ এবং স্যামি খেদিরাকে। তাঁদের দোষ? তাঁরা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর জন্মদিনের পার্টিতে যোগদান করেছিলেন!

রিয়াল মাদ্রিদ ফুটবল ক্লাবের “কোড অব কনডাক্ট” অনুযায়ী ইনজুরিতে আক্রান্ত কোন খেলোয়াড় এমন কোন জায়গায় যেতে পারবেন না যেখানে গেলে নতুন কোন দুর্ঘটনা দ্বারা ইনজুরির ঝুঁকি বেড়ে যেতে পারে। জন্মদিনের পার্টিতে গিয়ে হামেস এবং খেদিরা এই নিয়ম অমান্য করাতেই জরিমানা গুণতে যাচ্ছেন বলে ক্লাবের অফিসিয়াল স্টেটমেন্টে উল্লেখ করা হয়েছে।

বামদিক থেকেঃ কেভিন রোলডান, ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো, হামেস রদ্রিগেজ

তবে ঘটনা আরও আছে। কলম্বিয়ান সংগীতশিল্পী কেভিন রোলডান সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে একটি ছবি প্রকাশ করেন যেখানে পার্টিতে আনন্দরত অবস্থায় হামেস এবং রোনালদোকে দেখা যায়। আর এই পার্টি মাদ্রিদ ডার্বিতে ৪-০ গোলের লজ্জাজনক হারের ঘন্টা তিনেক পরই অনুষ্ঠিত হয়। ফলে ক্লাবের প্রতি আনুগত্য নিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েন পার্টিতে উপস্থিত থাকা খেলোয়াড়রা। তবে পার্টিতে আরও একজন ব্যক্তি ছিলেন। তিনি হলেন লুকা মদ্রিচ। এসব শুনে পার্টি থেকে ফিরেই তিনি তাঁর টুইটার অ্যাকাউন্টে ক্লাবকে মেনশন করে ক্ষমা চেয়ে নেন এবং একই সাথে পরে আবার পেরেজের সাথে ব্যক্তিগত মিটিং করে ক্ষমা প্রার্থনা করেন।

রোনালদোর জন্মদিনের  পার্টিতে তোলা ছবি
রোনালদোর জন্মদিনের পার্টিতে তোলা ছবি

ওইদিকে দলের এই বাজে অবস্থাতেও জন্মদিনের পার্টি করাতে সমালোচনার মুখে পড়েছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। ক্লাব সতীর্থ সার্জিও রামোস এবং ইকার ক্যাসিয়াস তো সরাসরিই বলে দিয়েছেন যে বিষয়টি ভাল লাগেনি তাদের কাছে। আর তাই ক্লাবের অন্যান্য সতীর্থরা রোনালদোর জন্মদিনের পার্টিতে অংশগ্রহণ করলেও সেখানে অনুপস্থিত ছিলেন রিয়াল মাদ্রিদের অধিনায়ক এবং সহ-অধিনায়ক।

তবে সমালোচনার মধ্যেই রোনালদো পাশে পাচ্ছেন দুইজন বিশেষ ব্যক্তিকে। প্রথমজন হলেন তাঁর দেশীয় কিংবদন্তী খেলোয়াড় লুইস ফিগো। তিনি মঙ্গলবারে এএস কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে বলেন, “যারা রিয়াল মাদ্রিদের প্রতি রোনালদোর আনুগত্যকে এবং তাঁর পেশাদারিত্ব নিয়ে প্রশ্ন তুলছে তারা আসলে তাঁর ইতিহাস এবং চরিত্রকে সম্পূর্ণ অবহেলা করছে”

আর বিস্ময়করভাবে দ্বিতীয় ব্যক্তিটি হলেন রোনালদোর সাবেক প্রেমিকা ইরিনা শায়েক! তাঁর সাবেক প্রেমিক রোনালদোর প্রতি সবার এত রাগ এবং সমালোচনা দেখে তিনি আজ এক ম্যাগাজিনের হয়ে ফটোশুট করতে গিয়ে রোনালদোর প্রতি এসব বৈরি আচরণকে “অন্যায্য” বলে আখ্যা দেন।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

two + one =