ভুল ধরে দিলেই হেইট্রেড নয়

এবং তোমরা যারা মুশফিকুরের জঘন্য ক্যাপ্টেন্সী দেখেও না দেখার ভান করো অথবা ক্রিকেটটা বোঝার ক্ষমতা নাই অর্থাৎ না বুঝেই লাফাও , #মুশিয়ান বনে যাও , ভালো কথা , কিন্তু আবার গতকাল মুশফিকের ক্যাপ্টেন্সীতে ম্যাচ জিতেছে বলে যারা তার সমালোচক ( লাগে যে মুশফিকের সাথে জমিজমা নিয়ে ক্যাচাল আছে তাদের )

শুভ জন্মদিন জেনারেল

দুঙ্গা, আপনাকে ২য় বার নিয়োগ দেবার সময় দুনিয়ার যেই অল্প কয়েকজন লোক আপনাকে সমর্থন দিয়েছিলো, তার মধ্যে আমি একজন । কারণ ছিলো ৩টা । প্রথমত, আপনি জয়ের মানসিকতা নিয়ে খেলেন এবং হারতে ঘৃণা করেন । দলের সেই জার্মানি বিপর্যয়ের পরে ফ্রেশ স্টার্টের জন্য এমন কাউকে বড্ড দরকার ছিলো । আর দ্বিতীয়ত, আপনি আপনার

বড় দল হয়ে ওঠার হাতছানি

কালকে একটা কথা বলতে ভুলে গিয়েছিলাম। আমি এই সিরিজের শুরু থেকে খুব করে চাচ্ছিলাম অন্তত একটা টেস্ট জিততে। তার কারণ ছিল টেস্টের প্রতি বিসিবির অনীহা আর একটা ছিল প্লেয়ারদের দুর্বল মানসিকতা। লাস্টের রিজনটা একটু খুলে বলি। ওয়ানডেতে আমাদের একটা মানসিকতা তৈরি হয়েছে যে যাই অবস্থা হোক না কেন আমরা জিততে

সুদিন আসছে ক্রিকেটে

::: ইরেশ হক ::: আমাদের ওয়ানডে টিম দাঁড়ায় গেসে, এখন এই জয়ের হাত ধরে টেস্ট টিমটাকে গুছানো দরকার। কয়েকটা ব্যক্তিগত অবসারভেশন: ১. ১-৩ আগামী কিছু সময়ের জন্য সেটল, ইংল্যান্ড এর টপ ৩ কলাপ্স করসে তিন ইনিংসেই, আমাদের তামিম, কায়েস, মমিনুল সেই তুলনায় অসাধারণ খেলসে। ২. ৪ এ রিয়াদের বিকল্প নাই, হাতুরাসিংহের কাজ এখন

দুনিয়ার মজদুর এক হও!

বড় টিমগুলা ভাব মারায় বুঝলাম। বিসিবি চাইলে কি আলাপ-আলোচনা করে জিম্বাবুয়ের সাথে হোম-এওয়ে টেস্ট সিরিজ আয়োজন করতে পারেনা? জানিনা এই ব্যাপারে কি কি সমস্যা আছে বা বিসিবি আসলেই চেষ্টা করে কিনা। ২০০১-২০০৪ প্রায়ই এরকম সিরিজ হইতো। আমাদের উপকার হইলো, ওদেরও হইলো। আয়ারল্যান্ড, নেদারল্যান্ডস, আফগানিস্তান এদের মত উঠতি দলগুলার সাথে ট্রাইনেশন

ইংল্যান্ড সিরিজ : পথচলার আরেকটি ধাপ – ১

পর্ব-১ঃ নিরাপত্তা ইস্যু ও সিরিজ বাতিলের সম্ভাবনা খুব একটা লেখালেখির অভ্যাস নেই। মাঝে মাঝে মাথায় কিছু লাইন ঘোরে, কিছুটা পড়ার মত রূপ দিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাসে দিয়ে দেই। ক্রিকেট নিয়ে হালকা পাতলা লেখালেখি এইভাবেই শুরু। কিন্তু ওইভাবে মোটামুটি পন্ডিতের ভাষায় কখনই লেখা হয় নি। ফেসবুকে আমার লেখালেখি দেখেই আমার কিছু বন্ধুর প্রেরণা,

পরম আরাধ্য জয়

তোরা সব জয়ধ্বনি কর, তোরা সব জয়ধ্বনি কর, ঐ নতুনের কেতন ওড়ে, কালবোশেখির ঝড়, তোরা সব জয়ধ্বনি কর। অভিষেক টেস্ট থেকেই দেখছি টাইগারদের টেস্ট অভিযাত্রা। ২০০৫ সালে জিম্বাবুয়েকে প্রথম টেস্ট হারানো, ২০০৯ এ সাকিব বীরত্বে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে বাংলাওয়াশ করা, তারপর ২০১৪ এর শেষে ঘরের মাটিতে জিম্বাবুয়েকে বাংলাওয়াশ- সবই দেখেছি। তবুও এই জয় থাকবে সবার

শুভ জন্মদিন, ওয়ালশ!

তিনি ছিলেন ম্যালকম মার্শাল, জয়েল গারনারদের শেষ সার্থক উত্তরাধিকারী। ৯০ এর দশকে ক্রিকেট দেখা শুরু করা এবং গতির ঝড় তোলার স্বপ্ন দেখা কিশোর তরুণের বিরাট এক অংশের কাছে ওয়ালশ ছিলেন স্বপ্নের নায়ক। ক্যারিবিয়ানদের রক্তে মিশে থাকা আমোদ ফুর্তি তার মাঝেও আছে। কোর্টনি ওয়ালশ আর কার্টলি অ্যামব্রোস এর পেস বোলিং জুটি

‘ম’ তে আমরা পেলাম মেহেদী হাসান

৩য় দিনেই শেষ হয়ে গেল বাংলাদেশ বনাম ইংল্যান্ড ২য় টেস্ট ম্যাচ। নাহ্, ছিলোনা এখানে কোন ফলোঅনের প্রসঙ্গ, ছিলোনা আমাদের কোন মাথা নিচু করার মুহূর্ত.... আর আজকের এই বিজয়ের গল্পটাতে চরিত্র অনেকগুলো থাকলেও মূল কাহিনী আবর্তিত হয়েছে ৩জনকে ঘিরে। মেহেদী, সাকিব এবং তামিম। প্রথম ইনিংসে তামিমের সেঞ্চুরির বদৌলতে আসা দলীয় সংগ্রহ

আজ আনন্দ করার দিন

হচ্ছে, হবে অনেকবার এসেছে। হয়ে গেলো বলতে পারি নি। মুলতানে ইনজামামের জন্যে পারি নি। ফতুল্লায় গিলক্রিস্টের জন্যে পারি নি। ঢাকায় কুক-ডাকেট মুলতানের ইনজি বা ফতুল্লার গিলি হবার পত্তনটুকু রোদের দুপুরে ভালোমতোই করে গিয়েছিলেন। তারপরেরটুকু যেনো বিশ্বাস না হতে চাওয়া কোন গল্পের ক্ল্যাইমেক্স। যেখানে এন্টি ক্লাইমেক্স নেই।

শুভ জন্মদিন, ডন ডিয়েগো!

পৃথিবীতে এমন কিছু ফুটবলার আছে যাদের নিয়ে কিছু লেখার আগে আপনাকে অসংখ্যবার ভাবতে হবে। থেকে শুরু করবেন? কি দিয়ে শুরু করবেন? তার কোনো সীমা-পরিসীমা নেই। এরকমই একজন আর্জেন্টাইন কিংবদন্তী ডিয়েগো আরমান্দো ম্যারাডোনা। কারো মতে সর্বকালের সেরা ফুটবলার। নিজ দেশ আর্জেন্টিনায় তো আছেই, পৃথিবীর এমন কোনো দেশ নেই যেখানে ম্যারাডোনাকে চিনে না

স্যানচেজের পঞ্চাশ

বার্সেলোনার হয়ে নিজের ক্যারিয়ারের সেরা মৌসুমটা কাটানোর পরেও (২১ গোল) লিওনেল মেসি, পেদ্রো ও নেইমারদের জন্য দলে নিজের জায়গা হারাতে হয় চিলিয়ান সুপারস্টার অ্যালেক্সিস স্যানচেজকে। তারপর দলে আসছিলেন লুইওস সুয়ারেজ। সেই ২০১৪ সালে স্যানচেজের দলে এহেন অবস্থা দেখে দাঁও মারতে ভুল করেননি আর্সেন ওয়েঙ্গার। মোটামুটি ৩২ মিলিয়ন পাউন্ডের বিনিময়ে স্যানচেজকে