জেইমি ভার্ডি : এক রূপকথার গল্প

সময়টা বেশী নয়। মাত্র চার বছর। চার বছরের ব্যবধানে জীবনে এত কিছু পরিবর্তন ঘটে যাবে, বোধহয় স্বয়ং জেইমি ভার্ডিও কল্পনা করেননি। চার বছর আগে খেলতেন অপেশাদার লিগে, এখন সেই ভার্ডিকেই মানা হচ্ছে বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ লীগ ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের অন্যতম শ্রেষ্ঠ একজন স্ট্রাইকার। টাইম মেশিনে করে আরো একটু পেছনে চলে যাওয়া

নেভিল-মার্শে অস্ট্রেলিয়ার ভবিষ্যৎ

পিটার নেভিল যতটা আন্ডাররেটেড কিপার তার থেকে বেশি আন্ডাররেটেড ব্যাটসম্যান। একইরকম কথা মিচেল মার্শের ক্ষেত্রেও বলা যায়। ওর বোলিংটা তেমন গুরুত্ব পায় না। কিন্তু আমার মনে হয় খুবই ক্যাপাবল পেসার। দারুণ সিম প্রেজেন্টেশন। খুব ভালো আউটসুইং পায়। ইন্টেলিজেন্ট। শুধু গতিটা একটু কম। পিঙ্ক টেস্ট দেখি আর বডিলাইন সিরিজের বিশ্লেষণ শুনি। কমেন্ট্রি

আমলা-প্লেসিসের সংগ্রাম

আমলা-প্লেসিস সাম্প্রতিক কালে দেখা সবচেয়ে স্পিন প্রতিকূলতায় ব্যাটিং স্কিলের পরীক্ষা দিচ্ছে। আমলার কথা আলাদা করে না বললে পাপ হবে! মিডল স্ট্যাম্পে স্ট্যান্স নিলো বেশ ক'বার। অনেক বেশি ফ্রন্টফুটে খেলছে। কন্ডিশন হিসেবে আনলে প্রথম ইনিংসের বিজয়ের পর সবচেয়ে 'সলিড' ব্যাটিং। আমলাকে প্রথম ইনিংসে ওয়াক করেছিলো। পিঙ্ক টেস্ট দেখছি একইসাথে। স্টার্কের হ্যামসট্রিং চোটটা

খুলনা থাকলে তারাই জিতত বিপিএল!

ঢাকা-চট্টগ্রামের খেলা দেখছিলাম। জিয়াউর রহমানকে দেখে খুলনার কথা মনে হচ্ছিলো। আহ! খুলনা রয়েল বেঙ্গলস। বিপিএলে দুইটা নাম পছন্দ হইছিলো। একটা দুরন্ত রাজশাহী, আরেকটা খুলনা রয়েল বেঙ্গলস। বাকি সব নামই কপি-পেস্ট। দেখা যাবে অন্য লিগে বুলস-রাইডার্স-ডিনামাইটস-বার্নার্স টাইপ নাম আগেই ব্যবহৃত হইছে। রয়েল বেঙ্গলসও থেকে থাকতে পারে। কিন্তু দুরন্ত রাজশাহী নামটা আসলেই

স্পিনের স্বর্গ নাগপুর

নাগপুরে স্পিনে দক্ষিণ আফ্রিকাকে নাগ-নাগিনীর মত নাচাচ্ছে অশ্বিন-জাদেজা। বিরাট কোহলি বলে দিয়েছে, স্পিন নিয়ে এত কথা হচ্ছে কেন? কয়েকজন ভারতীয় লিজেন্ড সুর মিলিয়ে আকারে ইঙ্গিতে বলেছে, অন্য দলগুলো যখন তাদের শক্তিমত্তা আর ভারতের দুর্বলতা বিবেচনায় নিয়ে পেস সহায়ক উইকেট বানায় তখন পিচ নিয়ে কথা হয়? আফ্রিকা এই মুহুর্তে ৩৬/৬। নিদেনপক্ষে

দায়টা যাবে মুশির কাঁধেই

২০১২ সালের এশিয়া কাপের ফাইনালের কথা আমাদের জেনারেশনের ক্রিকেটবোঝা একটা ছেলেপেলেও মরার আগ পর্যন্তও ভুলবে না । শেষের ওভারটা তো না-ই ! রিয়াদ কেন প্রথম বলে সিঙ্গেল নিয়ে রাজ্জাককে স্ট্রাইকে দিলো সেটার ব্যাখ্যা একেকজনের কাছে একেক রকম । তবে এই বিপিএলে মুশফিকের দল সিলেট চিটাগাং এর কাছে হারলো এক রানে

ঢা.বি. আন্তঃবিভাগ ক্রিকেট টুর্নামেন্ট – ফিন্যান্সের কথকতা

সেই আশির দশকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আন্তঃবিভাগ ক্রিকেট টুর্নামেন্টজয়ী ফিন্যান্স ডিপার্টমেন্ট প্রায় প্রত্যেক বছরই সম্ভাব্য শিরোপাজয়ী দল হিসেবে আবির্ভূত হলেও, কখনই শেষপর্যন্ত ভাগ্যের শিকে ছেঁড়েনি। গতবার দ্বিতীয় রাউন্ডেই দুর্ভাগ্যজনকভাবে ফ্যাকাল্টি অফ বিজনেস স্টাডিজের আরেক জায়ান্ট, মার্কেটিং বিভাগের কাছে ৪ উইকেটে হেরে গিয়ে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নেয় তারা। এবারও প্রত্যেকবারের মতই দুর্দান্ত

আমি যেন অসত্য হই ! আমি যেন মিথ্যে হই !

নিজস্ব মতামত দেই একদম । হয়তো এ টুর্নামেন্ট নিয়ে আগের অভিজ্ঞতা আমার মত অনেকেরই মনমানসিকতাটাই এমন করে দিয়েছে । রংপুর-ঢাকার ম্যাচে রংপুরের ব্যাটিং এর শেষ দিকটায় সাকিবের যে ক্যাচটা ফরহাদ রেজার হাত থেকে ছুটলো , সেটা দেখেই কোনভাবে "ছুটলো" মনে হয় নাই আমার কাছে । তার চেয়ে বেশি ছেড়ে দিলো মনে

তাসকিন ! সময়টা এখনই !

৪-১-৩৪-০, ৪-০-৩৫-১, ৪-০-৪৬-০ । আপাতত এই হলো বিপিএলের এখনো পর্যন্ত তিন ম্যাচে তাসকিন আহমেদের বোলিং ফিগার । চার ওভারে ৩৪ বা ৩৫ রান দেওয়া খুব একটা বড় ক্রাইম না । ফ্ল্যাট উইকেটে ৪৬ রানও যেকোনো ভালো বোলার নিজের খারাপ দিনে দিয়ে দেয় । তবে যা আমাকে ভাবায় , তা হলো তাসকিনের গেইম

রিয়াদে মুগ্ধ

মুশফিকের জায়গায় মাহমুদউল্লাহ ক্যাপ্টেনসি করলে এতদিনে বাংলাদেশের জয়ের তালিকায় ৯৮ টা ওয়ানডে, ৫ টা টেস্ট এবং ১৩ টা টি টুয়েন্টি জয়ের সাথে আরও কিছু জয় যোগ হতো বলেই মনে হচ্ছে। একাধিক ম্যাচে দারুণ ক্রিকেট মস্তিষ্কের পরিচয় দিলো। মাঠে খুব শান্ত। নেইল বাইটিং মোমেন্টে ক্যাচ মিস করলে অস্থির না হয়ে বরং

ট্যাকটিক্যাল মাস্টারক্লাস

ট্যাকটিক্যাল মাস্টারক্লাস। এই দুটো শব্দ ছাড়া আর কি-ই বা বলতে পারেন আপনি এই সপ্তাহে ম্যানচেস্টার সিটির মাঠ এতিহাদে সিটির বিপক্ষে লিভারপুলের পারফরম্যান্সকে? রিভার প্লেট, ভিয়ারিয়াল, রিয়াল মাদ্রিদ, মালাগা হয়ে ম্যানচেস্টার সিটিতে আসা পোড় খাওয়া ম্যানেজার ম্যানুয়েল পেলেগ্রিনিকে যেভাবে ট্যাকটিক্সের প্রত্যেকটা ক্ষেত্রে হারালেন লিভারপুলের ম্যানেজার ইয়ুর্গেন ক্লপ - আর কোন শব্দ মাথাতেও

অভিনন্দন মারুফুল হক

এতদিন পরে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশনের বোধোদয় হল। যে লাখ লাখ টাকা দিয়ে তারা বিদেশ থেকে কোচ এনেছে তার চেয়ে কয়েক গুণ কম মূল্যে তাদের চেয়েও ভালো কোচ এইদেশের টিটু, মারুফুল হক। সদ্য দায়িত্ব নেয়া কোচ ফ্যাবিও লোপেজকে বরখাস্ত করেছে বাফুফে; নতুন কোচ মারুফুল হক। অভিনন্দন মারুফুল হক