স্টেইনের চোখে সেরা

মিরপুরে ৪০০তম উইকেট পেয়েছে ডেল স্টেইন, একই দিনে এজবাস্টনে ৩০০তম উইকেট পেয়েছে মিচেল জনসন। একজন সময়ের সবচেয়ে সফল ও কার্যকরি বোলার, আরেকজন সময়ের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ফাস্ট বোলার। তো এ্ই দুইজনের মধ্যে সেরা কে? উত্তর: ভারনন ফিল্যান্ডার! আমার দোষ নাই, প্রেস কনফারেন্সে জিজ্ঞেস করলাম। স্বয়ং ডেল স্টেইন এই উত্তর দিছে! লেখকের ফেইসবুক স্ট্যাটাস অবলম্বনে...

স্টেইনের জীবনবোধ

“আমি কখনোই লক্ষ্য ঠিক করি না। যে কোনে সময়ই হতে পারে যে কোনো কিছু। আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে একটি উইকেট পেলেই আমি খুশি থাকতাম। দক্ষিণ আফ্রিকার হয়ে খেলা, দক্ষিণ আফ্রিকার জন্য একটি উইকেট নেওয়াই তো যথেষ্ট! সেখানে ৪০০ পেয়ে গেছি…জীবনে কখনো ভাবতেও পারিনি।” “আমি স্রেফ প্রতিটি ম্যাচ খেলতে চাই। আগামীকাল আবার বোলিং করতে

শুরুর সেশনে তামিমের বোকামি

আশা ছিলো ... দ্বিগুণ আশা নিয়ে খেলা দেখতে বসলাম ... তামিমের আউট হবার স্টাইল দেখলাম ... ... সুন্দর সকাল । অসুন্দর আউট । আউট হওয়া ক্রাইম না ডেল স্টেইনের কাছে । কিন্তু এত ভালো বল থাকতে এইটায় আউট হওয়া ক্রাইম । অবশ্যই ক্রাইম । "টামেম বায়ের শাটা আসে" TAMIM BAER SHATA ASE বলার চাইতে এই ক্রাইমগুলা বোঝা জরুরি

বরখাস্ত হলেন হেরেরা

সদ্য কনক্যাকাফ গোল্ডকাপ জয়ী কোচ মিগুয়েল হেরেরাকে বরখাস্ত করেছে মেক্সিকান ফুডবল ফেডারেশান। সদ্য জিতেছেন কনক্যাকাফ গোল্ডকাপ। এখন তাঁর উদযাপনের সময়। তা আর করতে পারলেন কোথায় মিগুয়েল হেরেরা! মেক্সিকান টেলিভিশান অ্যাজটেকা স্পোর্টস এর উপস্থাপক ক্রিস্টিয়ান মার্টিনোলিকে ঘুষি মারার দায়ে বরখাস্ত হতে হল তাকে। ঘটনাটি ঘটে গোল্ডকাপ জিতে যুক্তরাষ্ট্র থেকে মেক্সিকোর দেশে ফেরার পথে

শুভ জন্মদিন, স্যার গারফিল্ড সোবার্স!

ক্রিকেট মানব সম্প্রদায়ের খেলা। তবে একজন অতিমানবও এই খেলাটা খেলেছেন! না, অতি মানব হয়ে তিনি জন্মাননি। এই খেলা খেলেই হয়ে উঠেছেন অতি মানব। স্রেফ ব্যাটসম্যান হিসেবেই থাকবেন সর্বকালের সেরাদের ছোট্ট তালিকায়। ৯৩ টেস্টে ৫৭.৭৮ গড়ে ৮০৩২ রান। ২১ বছর বয়সে করেছিলেন ট্রিপল সেঞ্চুরি, এখনও যা সবচেয়ে কম বয়সে ট্রিপল সেঞ্চুরির রেকর্ড।

ট্রান্সফার টুকিটাকি : বার্সা ২.০ = স্টোক সিটি

দেখে নেওয়া যাক এই একদিনে কে কোথায় গেলেন - ১. সার্জিও রোমেরো - আর্জেন্টাইন গোলরক্ষক - সাম্পদোরিয়া থেকে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড - ফ্রি - তিন বছরের চুক্তি ২. জ্যাকসান মার্টিনেজ - কলম্বিয়ান স্ট্রাইকার - পোর্তো থেকে আটলেটিকো মাদ্রিদ - ২৫ মিলিয়ন পাউন্ড ৩. জর্ডান আইয়ু - ঘানাইয়ান স্ট্রাইকার - লরিয়েঁ থেকে অ্যাস্টন ভিলা -

নতুন পারমা ক্লাব অবশেষে সিরি ডি তে

অনেকেই হয়ত জানেন না, ইতালির অন্যতম বিখ্যাত ক্লাব পারমা এফসি গত মৌসুমে মার্চ মাসে ২০০ মিলিয়ন ইউরোর দেনায় ভুগে দেউলিয়া ঘোষিত হয়। পরে সিরি এ এর শেষ পজিশনে মৌসুম শেষের পর পারমা এফসি পুরোপুরিভাবে ডিসব্যান্ড হয়ে যায় যখন কোন মানুষ ক্লাবটি কিনতে অপারাগতা পোষণ করে। তবে তাই বলে পারমা ক্লাবটি

মেক্সিকোর গোল্ডকাপ জয়

জ্যামাইকাকে ৩-১ গোলে হারিয়ে ২০১৫ কনক্যাকাফ গোল্ডকাপ জিতে নিলো মেক্সিকো। এটা তাদের সপ্তমবারের মত কনক্যাকাফ গোল্ডকাপ জয়। প্রথমার্ধে পিএসভি আইন্দহোভেনের উইঙ্গার আন্দ্রেয়া গুয়ার্দাদোর ৩১ মিনিটের গোলে এগিয়ে যায় মেক্সিকো, দ্বিতীয়ার্ধে আরেক ডাচ ক্লাব এফসি টোয়েন্টের উইঙ্গার হেসাস কোরোনার ৪৭ মিনিটের গোলে ব্যবধান দ্বিগুণ করে তারা, ৬১ মিনিটে ক্লাব আমেরিকার স্ট্রাইকার ওরিবে

ট্রান্সফার টুকিটাকি : রোমার পথে শোয়েজনি

দেখা যাক এই একদিনে কে কোথায় গেলেন - ১. জেফারসন ফারফান - পেরুভিয়ান উইঙ্গার - শালকে ০৪ থেকে আল জাজিরা - ৭ মিলিয়ন পাউন্ড - তিন বছরের চুক্তি - বাৎসরিক বেতন ৭ মিলিয়ন পাউন্ড ২. অ্যালেক্স ম্যাকার্থি - ইংলিশ গোলরক্ষক - কুইন্স পার্ক রেইঞ্জার্স থেকে ক্রিস্টাল প্যালেস - ৩.৫ মিলিয়ন পাউন্ড -

চিরতরুণ দিলশান

সবচেয়ে বেশি বয়সে বিশ্বের ১১ তম ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়ানডেতে দশ হাজারি ক্লাবের সদস্য হলেন তিলকরত্নে দিলশান। ৩৮ বছর ২৮৫ দিনে। প্রায় চল্লিশ গড়ে। দশ হাজারি ক্লাবের চতুর্থ শ্রীলংকান ক্রিকেটার। আগের তিনজন সনৎ জয়সুরিয়া, কুমার সাঙ্গাকারা এবং মহেলা জয়বর্ধনে। দশ হাজারি ক্লাবে একাধিক সদস্য আর আছে শুধু ভারতের। শচীন টেন্ডুলকার, সৌরভ

বেকহামের নতুন ট্যাটু

নিজের চামড়ার এক বিশাল পরিমাণ অংশ ট্যাটু দিয়ে ভর্তি থাকলেও ডেভিড বেকহাম আবার আরেকটি ট্যাটু লাগানোর উদ্যোগ নিয়েছেন। তবে, এই নতুন ট্যাটু ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ফ্যানদের জন্য সোনালী অতীতের কথা স্মরণ করে দিবে, কারণ বেকহামের নতুন ট্যাটু "99" সংখ্যাটি দেখাচ্ছে। "99" ট্যাটুটি অন্য কিছু নয়, বরং বার্সেলোনায় যে রাতে বেকহামের ক্যারিয়ারের সেরা

ডাচ-কথন : কি হল, কি হতে পারত – আয়াক্স অ্যামস্টারডাম

নেদারল্যান্ড। ফুটবল রূপকথার এক বিশাল অংশ জুড়ে রয়েছে ওলন্দাজদের কীর্তি-কাহিনী। ক্রুইফ-বাস্তেন-মিশেলস-বার্গক্যাম্পদের হল্যান্ড ফুটবলকে যা দিয়েছে তার লিস্টি করা শুরু করলে শেষ করা যাবেনা। কপাল খারাপ তাদের, বিশ্ব ফুটবলকে এত কিছু দেওয়ার পরেও এখনো পর্যন্ত সেই ২০১০ বিশ্বকাপ আর ১৯৭৪-১৯৭৮ এর ফাইনাল খেলা ছাড়া বিশ্বকাপ জয়ের স্বাদ এখনো পাওয়া হয়নি ডাচদের। ওলন্দাজ