স্যালুট, মাশরাফি!

টানা পাঁচটা সিরিজ জিতে গেলাম আমরা!! পাঁচটা!! চিন্তা করা যায়? গতবছর শেষের দিকে জিম্বাবুয়ে দিয়ে শুরু, তারপর অসাধারণ এক বিশ্বকাপ শেষে একে একে পাকিস্তান, ইন্ডিয়া, সাউথ আফ্রিকার পর আবার জিম্বাবুয়ে দিয়ে এই অসাধারণ বছরটা শেষ করছি, এই বছরের সফলতম দলের তালিকায় দ্বিতীয় হয়ে!! অথচ গত বছরের প্রায় পুরোটা জুড়ে অসহায়ের মত খাবি খেতে থাকা, জিততেই ভুলে যাওয়া এই দলটা এভাবে বদলে গেলো কার হাতের যাদুতে? হ্যাঁ, আপনি মুস্তাফিজের চোখ ধাঁধানো অভিষেক, সৌম্যের এগ্রেসিভ ব্যাটিং, তামিম-মুশফিকের অসাধারণ ফর্ম, নাসিরের অলরাউন্ডার হয়ে যাওয়া কিংবা সাব্বিরের অদম্য তারুণ্যের কথা বলতে পারেন, কিন্তু আমার কাছে সব কিছুর পেছনে মূল কালকাঠি একজনের হাতেই বলে বিশ্বাস- হ্যাঁ, আমাদের কাপ্তান মাশরাফি !!
.
একজন অসাধারণ ক্যাপ্টেন দলের হাল ধরলে কি করতে পারেন, সেটা মাশরাফি আজ সাকিব-সৌম্য-রুবেল-তাস্কিনের মত চার চারজন তারকাকে বাইরে রেখেও, কিছুটা অনিরাপদ টার্গেট দিয়েও, ম্যাচটা কি সুন্দর করে বের করে দেখিয়ে দিলেন!! অনফিল্ড অধিনায়ক যখন এরকম এনার্জেটিক হন, সারা দেশের মানুষের অটুট সমর্থন আর ভালোবাসা যখন তাঁর সাথে থাকে, যিনি দলের সিনিয়র থেকে জুনিয়র সব খেলোয়ারের রোলমডেল, তিনি যতদিন এই দলটার নেতা হয়ে ফর্মের সাথে লড়তে থাকা কিংবা একদমই নতুন একজন খেলোয়ারকে জড়িয়ে কানে কানে ফিসফিস করে বলবেন “তুই পারবি, যা, খাইয়া দে” ততদিন এই দলের কেউ হারার আগেই হেরে যাবে না … এই ক্রিকেট দুনিয়া বহু কিংবদন্তি অধিনায়ক, সফল অধিনায়ক দেখেছে, কিন্তু বাংলাদেশের এই দলটার মত নিজের আপন ভাইয়ের চেয়েও প্রিয় মানুষটার অধিনায়কত্বে খেলার সৌভাগ্য কারো হয় নি, হবেও না

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

9 − eight =