স্টোকস-কীর্তি

কেপ টাউন টেস্টের প্রথম দিনে যখন উইকেটে গিয়েছিলেন বেন স্টোকস, ইংল্যান্ড তখন উইকেট হারিয়েছে টানা দুই বলে। ভড়কে না গিয়ে স্টোকসের প্রতিআক্রমণ শুরু, প্রথম দিন শেষ করেছিলেন ৯৩ বলে ৭৪ রানে। দ্বিতীয় দিনে প্রথম ওভার থেকেই শুরু করলেন তান্ডব। দ্বিতীয় দিনে যখন লাঞ্চে গেলেন, নামের পাশে অপরাজিত ২০৪। মানে এক সেশনেই ১৩০!

টেস্টের প্রথম দিনে লাঞ্চের আগে সেঞ্চুরি করেছেন ৪ জন–ভিক্টর ট্রাম্পার, চার্লস ম্যাকার্টনি, অতি অবশ্যই স্যার ডন ও মাজিদ খান। অন্যান্য দিন মিলিয়ে লাঞ্চের আগে, মানে প্রথম সেশনে মোট সেঞ্চুরি ২১টি। কিন্তু প্রথম সেশনে সবচেয়ে বেশি রান স্টোকসের এই ১৩০। বিশ্বরেকর্ড!

প্রথম সেশনে আগের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ছিল ইংল্যান্ডের আরেকজনের। ১৯৩৫ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেই ওভাল টেস্টের তৃতীয় দিন শুরু করেছিলেন লেস অ্যামিস ২৫ রান নিয়ে। লাঞ্চের আগে ইনিংস ঘোষণার সময় উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান অপরাজিত ছিলেন ১৪৮ রানে। অর্থাৎ, প্রথম সেশনেই করেছিনে ১২৩! ২০১০ সালে ভারতে বিপক্ষে সেঞ্চুরিয়ন টেস্টের তৃতীয় দিনে প্রথম সেশনে এবি ডি ভিলিয়ার্স করেছিলেন ১১৯।

সেশনে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডের পথে ১৬৩ বলে ডাবল সেঞ্চুরি ছুঁয়েছেন স্টোকস। বলার অপেক্ষা রাখে না, টেস্ট ইতিহাসের দ্বিতীয় দ্রুততম। ২০০২ সালে ক্রাইস্টচার্চে নাথান অ্যাস্টলের করা ১৫৩ বলে ডাবল সেঞ্চুরি এখনও অনেকটা ধরাছোঁয়ার বাইরে। দ্রুততম দুই ডাবল সেঞ্চুরিয়ানের মাঝে দারুণ একটা মিলও আছে। অ্যাস্টলের জন্ম ক্রাইস্টচার্চে, ইংল্যান্ডের স্টোকসের জন্মও নিউ জিল্যান্ডের ক্রাই্স্টচার্চে!

দ্রুততম ডাবল সেঞ্চুরিতে স্টোকস দুই থেকে তিনে ঠেলেছেন বিরেন্দর শেবাগকে। ২০০৯ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ২৫৪ বলে ২৯৩ রানের ইনিংসের পথে ১৬৮ বলে ডাবল সেঞ্চুরি করেছিলেন শেবাগ!

তৃতীয় দ্রুততম ডাবলের মত টেস্ট ইতিহাসের চতুর্থ দ্রুততম ডাবলও শেবাগের, ১৮২ বলে। ১৯৪ বলে ডাবল সেঞ্চুরি আছে তাঁর, ২২২ বলে আছে একটি, ২২৭ বলে একটি। টেস্টের দ্রুততম ১১টি ডাবলের ৫টিই শেবাগের! এখানে তাঁবে পেছনে ফেলা কঠিন!

এই লেখা যখন লিখছি, স্টোকসের রান ১৮২ বলে ২২৫। দ্রুততম ট্রিপল সেঞ্চুরির রেকর্ড শেবাগের, ২৭৮ বলে। রেকর্ড ভাঙা থুবই সম্ভব! ৮টি ছক্কা মেরে ফেলেছেন স্টোকস। ইংল্যান্ডের রেকর্ড ১০টি ওয়ালি হ্যামন্ডের, বিশ্ব রেকর্ড ১২টি ওয়াসিম আকরামের। এই দুটি রেকর্ডও খুবই সম্ভব!

জনি বেয়ারস্টোর সঙ্গে ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে ৩২৬ রান হয়ে গেছে। বিশ্বরেকর্ড গত জানুয়ারিতেই করেছিলেন কেন উইলিয়ামসন ও বিজে ওয়াটলিংয়ের অপরাজিত ৩৬৫। এই রেকর্ডও হাতের নাগালে!

আউট হতে যদিও একটি বলই লাগে!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

seventeen − four =