বিশ্বকাপ ২০১৮ : টিম প্রিভিউ – সুইডেন

বিশ্বকাপ ২০১৮ : টিম প্রিভিউ - সুইডেন

ব্রাজিল, কোস্টারিকা আইসল্যান্ডের পর চতুর্থ দল হিসেবে ২০১৮ বিশ্বকাপ এর জন্য ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত স্কোয়াড ঘোষণা করেছে সুইডেন। এই টুর্নামেন্টের মাধ্যমেই আনুষ্ঠানিকভাবে বড় টুর্নামেন্টগুলোতে সুপারস্টার জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ বিহীন যুগ শুরু করতে যাচ্ছে তারা। ইউরো ২০১৬ খেলেই অবসরে যাওয়া সুইডিশ এই সুপারস্টারের সম্ভাবনা ছিল অবসর ভেঙ্গে বিশ্বকাপ খেলতে আসার, কিন্তু তিনি অবসর ভেঙ্গে আসেননি, ওদিকে সুইডিশ কোচ জেইনে অ্যান্ডারসনও স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছিলেন ইব্রা যদি অবসর ভেঙ্গে আসেনও তাও তাঁকে স্কোয়াডে রাখা হবেনা। প্লে-অফে চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইতালির আশা ভেঙ্গে দিয়ে আসা সুইডেন এবারের বিশ্বকাপ এ এফ গ্রুপে লড়বে বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানি, মেক্সিকো আর দক্ষিণ কোরিয়ার সাথে। যে স্কোয়াডে ভর করে তারা বাছাইপর্ব পার হয়েছিল, মোটামুটি সেই স্কোয়াডটাকেই বিশ্বকাপের জন্য পছন্দ করেছেন কোচ অ্যান্ডারসন। দেখে নেওয়া যাক সুইডেন দলের হয়ে কে কে যাচ্ছেন বিশ্বকাপে!

বিশ্বকাপ ২০১৮ : টিম প্রিভিউ - সুইডেন
দলে নেই ইব্রাহিমোভিচ

গোলরক্ষক

  • রবিন ওলসেন (কোপেনহ্যাগেন)
  • কার্ল ইয়োহান জনসন (গুইনগ্যাম্প)
  • ক্রিস্টোফার নর্ডফেল্ট (সোয়ানসি সিটি)

ডিফেন্ডার

  • অ্যান্দ্রেয়া গ্র্যাঙ্কভিস্ট (কুবান ক্রাসনোদার) – অধিনায়ক
  • মিকায়েল লাস্টিগ (সেল্টিক)
  • ভিক্টর লিন্ডেলফ (ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড)
  • মার্টিন ওলসন (সোয়ানসি সিটি)
  • লুডভিগ অগাস্টিনসন (ওয়ের্ডার ব্রেমেন)
  • ফিলিপ হেলান্দের (বোলোনিয়া)
  • এমিল ক্র্যাফত (বোলোনিয়া)
  • পন্টাস ইয়ান্সন (লিডস ইউনাইটেড)

মিডফিল্ডার

  • সেবাস্তিয়ান লারসন (হাল সিটি)
  • আলবিন একদাল (হ্যামবুর্গ)
  • এমিল ফোর্সবার্গ (র‍্যাসেনবলস্পোর্ত লাইপজিগ)
  • গুস্তাভ সভেনসন (সিয়াটল সাউন্ডার্স)
  • অস্কার হিলয়েমার্ক (জেনোয়া)
  • ভিক্টর ক্লায়েসন (কুবান ক্রাসনোদার)
  • মার্কাস রোহদেন (ক্রোটোন)
  • জিমি দুরমাজ (তুলোঁ)

স্ট্রাইকার

  • ওলা টোইভোনেন (তুলোঁ)
  • মার্কাস বার্গ (আল আইন)
  • জন গুইদেত্তি (আলাভেস)
  • ইসাক কিয়েসে থেলিন (ওয়াসলান্ড বেভেরেন)

বিশ্বকাপে যেসব দল ৪-৪-২ ফর্মেশানে খেলবে তাদের মধ্যে অন্যতম হল সুইডেন। সুইডেন এর মূল একাদশে দলের গোলরক্ষক হিসেবে থাকবেন কোপেনহেগেনের ২৮ বছর বয়সী গোলরক্ষক রবিন ওলসেন। তাঁর ব্যাকআপ হিসেবে দলে নেওয়া হয়েছে গুইনগ্যাম্পের কার্ল ইয়োহান জনসন আর সোয়ানসি সিটির ক্রিস্টোফার নর্ডফেল্টকে।

বিশ্বকাপ ২০১৮ : টিম প্রিভিউ - সুইডেন

সেন্টারব্যাক হিসেবে কোচ জেইনে অ্যান্ডারসনের পছন্দ সুইডেন অধিনায়ক অ্যান্দ্রেয়া গ্র্যাঙ্কভিস্ট, যিনি এখন রাশিয়ান ক্লাব কুবান ক্রাসনোদারে খেলছেন। সেটপিসে প্রায়ই গোল করার কারণে গ্র্যাঙ্কভিস্ট বেশ বিপজ্জনক। গ্র্যাঙ্কভিস্টের সঙ্গী হিসেবে মূল একাদশে জায়গা নিশ্চিত ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের সেন্টারব্যাক ভিক্টর লিন্ডেলফের। তাদের পরিবর্ত হিসেবে দলের সাথে যাচ্ছেন লিডস ইউনাইটেডের পন্টাস ইয়ানসেন ও বোলোনিয়ার সেন্টারব্যাক ফিলিপ হেলান্দের। রাইটব্যাক হিসেবে সুইডেন এর মূল একাদশে অবশ্যই থাকবেন সেল্টিকের মিকায়েল লাস্টিগ। রাইটব্যাক পজিশনে লাস্টিগের ব্যাকআপ হিসেবে রয়েছেন বোলোনিয়ার রাইটব্যাক এমিল ক্র্যাফথ। লেফটব্যাক পজিশনে কোচের মূল পছন্দ ওয়ের্ডার ব্রেমেনের লেফটব্যাক লুডভিগ অগাস্টিনসন, যাকে জায়গা দিতে গিয়ে মূল একাদশ থেকে জায়গা হারিয়েছেন সোয়ানসি সিটির লেফটব্যাক মার্টিন ওলসন, বিশ্বকাপে ওলসন থাকছেন ব্যাকআপ হিসেবে।

৪-৪-২ ফর্মেশানে বোঝাই যাচ্ছে, সুইডেন মিডফিল্ডে চারজন মিডফিল্ডার থাকবেন যাদের মধ্যে দুইজন থাকবেন সেন্ট্রাল পজিশনে আর বাকি দুইজন থাকবেন ওয়াইড মিডফিল্ডার হিসেবে। দুইজন সেন্ট্রাল মিডফিল্ডারের মধ্যে একজনের জায়গা নিশ্চিত মূল একাদশে, তিনি হলেন দলের সহ-অধিনায়ক, হাল সিটির মিডফিল্ডার সেবাস্তিয়েন লারসন। আর্সেনালের হয়ে ক্যারিয়ার শুরু করা লারসন খেলেছেন স্যান্ডারল্যান্ড ও বার্মিংহ্যাম সিটির হয়েও, প্রিমিয়ার লিগের ভক্তরা তাঁকে ভালোই চিনবেন। লারসনের সাথে সেন্ট্রাল মিডফিল্ডে খেলতে পারেন হ্যামবুর্গের আলবিন একদাল ও জেনোয়ার অস্কার হিলয়েমার্কের মধ্যে একজন, একদালের খেলার সম্ভাবনাই বেশী। দলের সেন্ট্রাল মিডফিল্ডের বাকী খেলোয়াড় হলেন সিয়াটল সাউন্ডার্সের গুস্তাভ সভেনসন।

ইব্রাহিমোভিচ বিহীন এই সুইডেন দলের সবচেয়ে বড় সুপারস্টার, র‍্যাসেনবলস্পোর্ত লাইপজিগের লেফট মিডফিল্ডার এমিল ফোর্সবার্গের জায়গা স্বভাবতই পাকা। ডানদিকের মিডফিল্ডার হিসেবে মূল একাদশে থাকছেন কুবান ক্রাসনোদারের ভিক্টর ক্লায়েসন। ফোর্সবার্গের ব্যাকআপ হিসেবে যাচ্ছেন ক্রোটনের মার্কাস রোহদেন, ওদিকে ক্লায়েসেনের ব্যাকআপ হলেন তুলোঁর রাইট উইঙ্গার জিমি দুরমাজ।

দুইজন স্ট্রাইকার হিসেবে সুইডেন এর মূল দলে খেলবেন অভিজ্ঞ দুই স্ট্রাইকার, ফরাসী ক্লাব তুলোঁর ওলা টোইভোনেন ও আল আইনের বার্কাস বার্গ। তাদের পরিবর্ত হিসেবে দলে যে আরও দুইজন স্ট্রাইকার যাচ্ছেন তারা হলেন আলাভেসের সাবেক ম্যানচেস্টার সিটি স্ট্রাইকার জন গুইদেত্তি ও বেভেরেনের ইসাক কিয়েসে থেলিন। সুযোগ পাননি বরুশিয়া ডর্টমুন্ডে খেলা সুইডেনের তরুণ প্রতিভা আলেক্সান্দার ইসাক।

১৯৫৮ বিশ্বকাপের রানার্সআপ, পঞ্চাশ ও চুরানব্বইয়ের বিশ্বকাপে তৃতীয় স্থান অর্জন করা দল সুইডেন এবার কি পারবে ইব্রাহিমোভিচকে ছাড়া চমক দেখাতে?

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

15 − 13 =