সান্তিয়াগো সোলারি – কে এই রিয়াল মাদ্রিদের নতুন কোচ?

সান্তিয়াগো সোলারি - কে এই রিয়াল মাদ্রিদের নতুন কোচ?

গতরাতে রিয়াল মাদ্রিদ কোচ হুলেন লোপেতেগি ছাঁটাই হয়েছেন, এর মধ্যে সবারই কমবেশী এই খবরটা জানা হয়ে গিয়েছে। লোপেতেগির জায়গায় রিয়ালের স্থায়ী কোচ হবার দৌড়ে রয়েছে বেশ কিছু নাম – আন্তোনিও কন্তে, গুতি, জুলিয়ান নাগেলসম্যান, মরিসিও পচেত্তিনো প্রমুখ। কিন্তু স্থায়ী কোচ আসার আগেই আপাতত কাজ চালিয়ে নেওয়ার জন্য যুবদলের কোচ সান্তিয়াগো সোলারিকে রিয়াল সামলানোর দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

যারা অনেক আগে থেকে রিয়াল মাদ্রিদের খেলা দেখেন, তারা চিনতে পারবেন এই সোলারিকে। এককালে রিয়াল মাদ্রিদের মাঝমাঠের তারকা ছিলেন যে তিনি! ২০০০ থেকে ২০০৫ পর্যন্ত ছয় বছরে সব মিলিয়ে রিয়ালের হয়ে ১৬৭ ম্যাচ খেলে ১৬ গোল করেছেন এই উইঙ্গার। জাতীয় দলে আর্জেন্টিনার হয়ে খেলা এই তারকা আলবিসেলেস্তেদের জার্সি গায়ে চড়ানোর সুযোগ পেয়েছেন ১১ বার, তবে দুর্ভাগ্যবশত আর্জেন্টিনার হয়ে কোন বড় টুর্নামেন্টে কখনো খেলার সুযোগ হয়নি তাঁর। তাতে কি হয়েছে? রিয়াল মাদ্রিদের হয়ে সাফল্যবিধৌত কিছু বছর কাটিয়ে জাতীয় দলে অপাংক্তেয় হবার দুঃখ ভুলেছেন তিনি। ছিলেন রিয়াল মাদ্রিদের প্রথম ‘গ্যালাকটিকো’ এর অংশ। ফলে সতীর্থ হিসেবে পেয়েছেন একঝাঁক তারকাকে – লুইস ফিগো, জিনেদিন জিদান, রবার্তো কার্লোস, রাউল গঞ্জালেস, ইকার ক্যাসিয়াস, রোনালদো, ডেভিড বেকহাম প্রমুখ। রিয়ালের হয়ে লিগ, সুপারকোপা, চ্যাম্পিয়নস লিগ, সুপার কাপ, ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপ – কোনটাই জিততে বাকী রাখেননি তিনি। ২০০২ চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনালে জিদানের সেই বিখ্যাত গোলটার কথা মনে আছে? সে গোলের আগে রিয়ালের ঐ আক্রমণটা কি সোলারির পা থেকেই শুরু হয়েছিল।
রিয়ালের নগরপ্রতিদ্বন্দ্বী অ্যাটলেটিকোতেও খেলেছেন সোলারি, রিভার প্লেটের এককালের এই তরুণ প্রতিভাবান উইঙ্গারের ইউরোপিয় ফুটবল পাঠটা শুরু হয়েছিল কিন্তু অ্যাটলেটিকোর হাত ধরেই। সে মৌসুমে অ্যাটলেটিকো অবনমিত হয়ে গেলে রিয়াল দলে নিয়ে আসে তাকে। তখন সোলারির চুক্তিতে একটা ক্লজ ছিল, অ্যাটলেটিকো অবনমিত হয়ে গেলে রিলিজ ক্লজ দিয়েই যেকোন খেলোয়াড়কে অ্যাটলেটিকো থেকে নিয়ে আসা যাবে, আর সেই সুযোগটাই নিয়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ, নগরপ্রতিদ্বন্দ্বীরা অবনমিত হয়ে যাওয়ার পর। অ্যাটলেটিকো ও রিয়াল ছাড়া ইন্টার মিলানেও খেলেছেন তিনি।
খেলোয়াড় হিসেবে ফুটবল ক্যারিয়ার শেষ করেও ফুটবলেই থাকতে চেয়েছেন তিনি, যে কারণে তাকে দেখা গেছে কোচ হিসেবে, ডাগআউটে। ছিলেন রিয়াল মাদ্রিদের অনুর্ধ্ব-১৯ দলের কোচ, শেষ দুই মৌসুমে রিয়ালের যুবদল ‘কাস্তিয়া’র দায়িত্বেও ছিলেন তিনি। তবে কাস্তিয়ার হয়ে তাঁর রেকর্ড যে খুব ভালো তা কিন্তু নয়। প্রথম মৌসুমে তাঁর অধীনে রিয়ালের যুবদল সেগুন্ডা ডিভিশনে ১১তম হয়েছিল, দ্বিতীয় মৌসুমে অবস্থার একটু উন্নতি ঘটিয়ে ৮ম স্থানে মৌসুম শেষ করেছিল সোলারির দল। তবে মাদ্রিদের সবাই তাঁর সম্পর্কে ইতিবাচক ধারণ পোষণ করেন, এটা সোলারির একটা বড় পাওয়া। এমনও হতে পারে পাকাপাকিভাবে এই সোলারিকেই মূল দলের কোচের দায়িত্ব দিয়ে দিলেন ফ্লোরেন্তিনো পেরেজ!

সোলারি দায়িত্ব নেওয়ার মাধ্যমে মাদ্রিদের দুই বড় দলের দায়িত্ব এখন পালন করবেন আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের দুই সাবেক সতীর্থ – ডিয়েগো সিমিওনে ও সান্তিয়াগো সোলারি।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

2 + 8 =