সপ্তম স্বর্গে ইব্রাহিমোভিচ

জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচের একমাত্র গোলে গতকাল ইউরোপা লিগের গ্রুপপর্বের ম্যাচে ইউক্রেইনিয়ান ক্লাব জোরিয়া লুহানস্কের বিপক্ষে কষ্টসাধ্য জয় পেয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। আর এই গোল করেই মোটামুটি একটা ইতিহাসের অংশ হয়ে গিয়েছেন এই সুইডিশ সুপারস্টার।

সুইডিশ কিংবদন্তী ইব্রাহিমোভিচ এখন তৃতীয় খেলোয়াড় হিসেবে ইউরোপীয় প্রতিযোগিতায় (ইউয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ/ইউয়েফা ইউরোপা লিগ) সাত-সাতটি ভিন্ন ভিন্ন ক্লাবে গোল করার অনন্য এক রেকর্ড গড়েছেন, যে রেকর্ডের খাতায় তাঁর আগে নাম লিখিয়েছেন আরও দুইজন।

aston-villas-john-carew
জন ক্যারিউ

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগ যারা মোটামুটি অনুসরণ করেন তাঁদের কাছে জন ক্যারিউ একটি পরিচিত নাম। সাবেক নরওয়েজিয়ান এই স্ট্রাইকার প্রিমিয়ার লিগে খেলে গিয়েছেন অ্যাস্টন ভিলা, স্টোক সিটি ও ওয়েস্টহ্যামের মত ক্লাবের হয়ে। এই রেকর্ডের একজন অংশীদার তিনি। নরওয়েজিয়ান ক্লাব ভ্যালেরেঙ্গা ও রোজেনবোর্গ, স্প্যানিশ ক্লাব ভ্যালেন্সিয়া, ইতালিয়ান ক্লাব এএস রোমা, তুর্কি ক্লাব বেসিকতাস, অ্যাস্টন ভিলা ও ফরাসী ক্লাব লিওঁর হয়ে ইউরোপিয়ান প্রতিযোগিতায় গোলগুলো করে ইতিহাসে নাম লিখিয়েছিলেন ক্যারিউ। আর রোমানিয়ান স্ট্রাইকার আদ্রিয়ান মুটুর গোলগুলো ছিল ইংলিশ ক্লাব চেলসি, ইতালিয়ান তিন ক্লাব ফিওরেন্টিনা-পারমা ও জুভেন্টাস, রোমানিয়ান তিন ক্লাব আর্জেস পিতেস্তি, পেত্রোলুল প্লোইতেস্তি ও ডায়নামো বুখারেস্টির হয়ে।

আদ্রিয়ান মুটু
আদ্রিয়ান মুটু

এই সম্মানজনক রেকর্ডের তৃতীয় ও এই পর্যন্ত সর্বশেষ সদস্য ইব্রাহিমোভিচ তর্কাতীতভাবে এই রেকর্ডের সবচাইতে পরিচিত ফুটবলারও বলা চলে। ইব্রাহিমোভিচের গোলগুলো এসেছে আয়াক্স আমস্টারডাম, জুভেন্টাস, ইন্টার মিলান, এসি মিলান, বার্সেলোনা, প্যারিস সেইন্ট জার্মেই ও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে খেলতে গিয়ে। সাত-সাতটা ক্লাবের হয়ে ইউরোপীয় প্রতিযোগিতায় গোল পেলেও বলে রাখা ভালো, দুর্ভাগ্যবশত এখনো ইউয়েফা চ্যাম্পিয়ন লিগ বা ইউয়েফা ইউরোপা লিগ কোনোটাই জেতা হয়নি এই সুইডিশ সুপারস্টারের!

 

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

12 − 12 =