”শুভ জন্মদিন ম্যাশ‬”

আজকের দিনটা অন্যান্য কোন দিনের মত সাধারণ নয়! আজকের দিনটি অনেক বেশি গুরুত্ববহ, অনেক বেশি রোমাঞ্চকর, অনেক বেশি আনন্দের, অনেক অনেক বেশিই স্পেশাল!

১৯৮৩ সালের এই দিনেই ধরনীর বুকে বাংলা মায়ের কোল জুড়ে এসেছিলেন তার অন্যতম শ্রেষ্ঠ সন্তান, সাহসী বীর, যোদ্ধা, ১৬ কোটি বাংলাদেশীর কলিজা, যার হাত ধরেই আজ বিশ্বক্রিকেটে টাইগারদের রাজত্ব প্রতিষ্ঠা হতে চলেছে!

যিনি বার বার ইঞ্জুরি তে পড়েও ফিরে আসার প্রেরণা খুঁজেছেন দেশ মাতার শ্রেষ্ঠতম সন্তান মুক্তিযোদ্ধাদের থেকে! চরম দু:সময়ে যখন চোটের কারণে সোজা হয়ে দাঁড়াতে পর‍্যন্ত পারছিলেন না, তখন নিজ মনে বিড়বিড় করেছেন, “পায়ে গুলি লাগার পরও মুক্তিযোদ্ধারা যুদ্ধ করেছিলেন, কীভাবে? আর আমার তো মাত্র একটা লিগামেন্ট ই ছিড়েছে! আমাকে পারতে হবে, দেশের জন্য আমাকে পারতেই হবে!”

বলা যেতে পারে তিনি বিশ্ব ক্রিকেটের সমগ্র ইতিহাসেরই এক রোমাঞ্চকর মহাকাব্য, যেখানে অন্যান্য ক্রিকেটার এক-দুবার ইঞ্জুরি তে পড়েই খেলা ছেড়ে দিয়েছেন, সেখানে তিনি এক পায়ে সাতবার অন্য পায়ে আটবার অপারেশন এর পরও স্বরুপে মাঠ মাতিয়ে যাচ্ছেন!!

জ্বী, তিনি আর কেউ নন, ব্রেভেস্ট ক্রিকেটার অফ অলটাইম। আমাদের পাগলা, যিনি আমাদের কে মাথা উচু করে সামনে এগিয়ে যাওয়ার সাহস জুগিয়ে যাচ্ছেন….

তিনিই আমাদের……..

আমাদের…..

আমাদের ‪#‎মাশরাফি_বিন_মোর্তুজা‬
‪#‎বাংলাদেশের_কলিজা‬
‪#‎১৬_কোটি_বাংলাদেশীর_চোখের_মণি_হৃদ_স্পন্দন_এগিয়ে_যাওয়ার_প্রেরণা‬

আজ যতো ফুল ফুটেছে এই পৃথিবীতে, সবই তোমার জন্য, যতো শিশু হেসেছে সেও তোমার জন্য। ঐ নীল আকাশ, ঐ দখিন হাওয়া সব সবই তোমার …

‪#‎শুভ_জন্মদিন_ম্যাশ‬

কমেন্টস

কমেন্টস

নির্ঝর
প্রথমত, No light, No dark, No you , No me, Know light, Know dark, Know you, Know me. কিছু কথা আছে বাকী.. # সব বাবা-মায়ের মত আমিও আমার বাবা-মায়ের অত্যন্ত আদরের সাধনারই ফল, অন্তত ওনাদের কাছে। ধূলো-বালীতে ভরা এক প্রত্যন্ত গ্রামের প্রচলিত ধারার এক পরিবারে জন্ম এবং সেখানেই বেড়ে ওঠা ও প্রাথমিক শিক্ষার হাতে-খড়ি। পৃথিবীতে আসার আগেই দাদা, দাদী কে হারিয়েছি। এজন্য আম্মুকে মানুষের কাছ থেকে খোটা শুনতে কোন রেহায় হইনি। তবে, পৃথিবীর আলো দেখার পর থেকেই নিজের পরিবার, আত্মীয় এবং পাড়া প্রতিবেশি সবার কাছ থেকেই নিখাদ স্নেহ পেয়েছি। উল্লেখ্য, আজ অবধি সবাই আমাকে ততটাই স্নেহ করেন। # কলেজ জীবনটাকে একটা মফঃস্বল শহরে কাটিয়ে এবং তারপর ইউনিভার্সিটি থেকেই নাগরিক জীবনের অবতারণা। কিছু তথ্য দেয়া এখনও বাকি, # উচ্চতাঃ ৫'৬", ওজনঃ ৬৪+, চোখে চশমা পড়ি। # স্বভাবঃ নীতিতে অবিচল, মুডে চলি, মুহূর্তে মুহূর্তে মুড বদল হয়। সবাই বলে, আমি নাকি অনেক বেশি ইমোশনাল। তাই অনুরোধ, আমাকে একবার দেখে বা কথা বলেই আমার সম্পর্কে কোন সিদ্ধান্ত নিয়ে নেবেন না প্লিজ। # স্মার্টনেস লেভেলঃ 'শুন্য', মানে বলতে পারেন ক্ষ্যাত। গান শুনতে অনেক বেশি ভালবাসি এবং আমি কখনো কখনও অনেক বেশি আত্মবিশ্বাসী ও সরল জীবন-যাপন পছন্দ করি। # ধুমপান কিংবা এই টাইপ বা অন্য কোন প্রকার নেশাই আমার নেই, আগেও কখনও ছিলনা। তবে নেশা বলতে দুইটাঃ ১.বইপড়া, ২.ক্রিকেট। বলতে পারেন আমি একজন সেই লেবেলের 'ক্রিকেটখোর'। সেইরকম লেভেলের কোন ব্যাস্ততা না থাকলে, কোন ক্রিকেট ম্যাচই মিস করিনা, টিভি কিংবা যদি স্টেডিয়ামে যাওয়ার সুযোগ থাকে। টিভিতে পুরাতন কোন খেলা দেখালেও, সেটা দেখাতেই আমার প্রায়োরিটি। তবে, আই পি এল দেখিনা, কেনোনা এটি ক্রিকেট কে ধ্বংস করছে। # মেয়েদের সাথে দোস্তি করতে কিংবা ভাব জমাতে পছন্দ করি (খুব সরাসরিভাবে কথাগুলো বল্লাম), এটাকে লুলামী বলেও সংগায়িত করলেও করতে পারেন। তবে কখনোই কোন মেয়েকে উত্তোক্ত বা বিরক্ত করিনা এবং এগুলি চরমভাবে ঘৃণা করি। আরও বিশেষ কিছু কথা বলাটা জরুরী মনে করছিঃ # স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তির প্রতি জিরো টলারেন্স। ছাগু পেলে সোজা খাসীর লেগ রোস্ট বানিয়ে খাওয়া, তারপর অন্য কথা। পাকিস্তানকে ঘৃণা করি, খেলার সাথে রাজনীতি মিশাই। # প্রচন্ডভাবে ব্যক্তিস্বাধীনতায় বিশ্বাস করি। সমাজ ছাড়া মানুষ চলতে পারেনা স্বীকার করি, কিন্তু অন্য কারো সরাসরি ক্ষতি না করে যতক্ষণ পর্যন্ত নিজের ইচ্ছেঘুড়ি আকাশে মেলছি, ততক্ষণ সে ঘুড়ির নাটাই ধরে টান দেবার অধিকার আমি সমাজকে দিতে রাজী নই। আমার চরম বিপদে সমাজের তথাকথিত বিবেকের দল পরম পুলকে হেসেছে এবং ভবিষ্যতেও হাসবে। হোয়াই বদার দেন?! # কোপ খাওয়া থেকে বাঁচার জন্যে নয়, অনেকের প্রশ্নের উত্তরে বলছি, আমি আস্তিক লোক। অতি দুর্বল মানের মুসলিম, বিপদ আপদ ছাড়া আর বিপদ কেটে গেলে শুকরিয়া আদায়ের সময় ছাড়া আল্লাহকে ডাকিনা| ধর্মকে একান্ত ব্যক্তিগত বিষয় বলে মানি এবং বিজ্ঞান দিয়ে ধর্মকে যাস্টিফাই করার চেষ্টাকে হাস্যকর বলে মনে করি। মাঝে মাঝে ইস্যুভিত্তিক মত দিলেও কাউকে ধর্মজ্ঞান দেবার ধৃষ্টতা আমার নেই, এই একই ধৃষ্টতা আমাকেও না দেখালে খুশি হব। আমার জবাবদিহিতা আল্লাহর কাছে, মানুষের কাছে না। # বই আমার কাছে ক্ষুধার খাদ্য। আপনি বই ভালোবাসেন ? উই আর বেস্ট ফ্রেন্ডস ফ্রম নাও! # ভন্ডামিমূলক ট্যাবুগুলোকে হিপোক্রেসি বলে মনে হয়। শিশুদের যৌনশিক্ষা স্কুলে দেখতে চাই, পারস্পরিক সম্মতিতে প্রেমিক প্রেমিকার ঘনিষ্টতা সমর্থন করি, চুম্বনে অশ্লীলতা দেখিনা। # ভুল কে সঠিক বলে চালানোটা আমি খুব বেশি ঘৃণা করি। নিজেকে সহজ সরল কমুনা, তবে পার্ট জিনিষটা আমার মধ্যে নাই(পরিচিত কাউকে কোথাও দেখসি,কিন্তু ডাক দিয়া কথা বলিনাই এমন কথা কেউ বলতে পারবেনা কোনদিন, অবশ্য মাঝে মাঝে এক্সসেপশন হয়, সেটা অন্য কারণে)। তাই আমি পার্টবিহীন মানুষ পছন্দ করি, সেই সাথে সহজ সরল ও ফ্রেন্ডলি মানুষদেরও পছন্দ করি। # সব সময় যে কথাগুলো ইম্পলিমেন্ট এর ইচ্ছা পোষন করি, যেখানে দেখিবে কোন অন্যায় অত্যাচার, সেইখানে শোনাতে চাই হুংকার, সময় এসেছে বন্ধুরা সব অন্যায়ের বিরুদ্ধে আবার নতুন করে গর্জে উঠার...., আহবান ঐক্যবধ্য হবার, রুখে দাঁড়াবার... # নিজের দোষগুলাকে 'আমি এমনই, সমস্যা থাকলে দূরে যা' ডায়লগ দিয়ে ঢাকার চেষ্টা করিনা(যারা এইগুলো করে তাদেরকেও আমার খুব অপছন্দ)।কোন আচরণ খারাপ লাগলে নির্দিধায় কোন প্রকার সংকোচ ছাড়াই বলতে পারেন.... আমি শুধরানোর চেষ্টা করব। # সর্বোপরি, একজন মাইক্রোস্কোপিক প্রানী ব্যাতিত কিছুই নয়। এবার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কথা, আপনি কোনরকম "কিন্তু/তবে/যদি" ছাড়া মুক্তিযুদ্ধ এর আলোয় উদ্ভাসিত মানুষ?? বুকে আসুন..

মন্তব্য করুন

three − 3 =