শিরোপা-খরা ঘোচালো আইভোরি কোস্ট

তেইশ বছর। সুদীর্ঘ তেইশ বছর কিছু জিততে পারেনি আইভোরি কোস্টের সোনালী প্রজন্ম। ক্লাবের হয়ে কিংবদন্তীর পর্যায়ে চলে গেলেও দেশের হয়ে খেলার সময় বারবার খালি হাতে ফিরেছেন দিদিয়ের দ্রগবার মত মহীরুহরা। সেই ১৯৯২ সালে জেতা আফ্রিকান কাপ অফ নেশনসটাই ছিল এতদিনের সবেধন নীলমণি। মাঝে ২০০৬ ও ২০১২ সালে খুব কাছাকাছি গিয়েও রানার্সআপ হয়ে স্বপ্নভঙ্গের বেদনায় পুড়তে হয় আইভোরিয়ানদের। কিন্তু এবার আর তীরে এসে তরী ডোবাননি আইভোরি কোস্টের নতুন প্রজন্ম। ইয়ায়া ট্যুরে-কোলো ট্যুরে-উইলফ্রিয়েড বোনি-সেইডু ডুম্বিয়া-সার্জ অওরিয়ের-চেক তিওতে-জার্ভিনিও-লাসিনা ট্রায়োরে-সলোমোন কালু ঘোচালেন পূর্বসুরিদের আক্ষেপ, আফ্রিকার আরেক পরাশক্তি ঘানাকে হারিয়ে দেশকে জেতালেন ২০১৫ আফকন। তবে এবারের জয়ও একেবারে সহজেই আসেনি। রুদ্ধশ্বাস ফাইনালের পেনাল্টি শুটআউটে ৯-৮ গোলে জিতেছে তারা।

২০১৫ আফকন চ্যাম্পিয়ন - আইভোরি কোস্ট
২০১৫ আফকন চ্যাম্পিয়ন – আইভোরি কোস্ট

নির্ধারিত সময়ের ৯০ মিনিট সহ অতিরিক্ত ৩০ মিনিটের খেলা ছিল গোলশূণ্য। দুই দলেরই অতিরক্ষণাত্মক ঝুঁকিহীন ট্যাকটিক্সের জন্য গোলমুখ খুলতে পারেননি দুই দলের তারকাখচিত অ্যাটাকিং লাইনআপের কেউই। পুরো ম্যাচেই বেশ কয়েকটা সুযোগ পেয়েছে দুই দলই, কিন্তু গোল করতে পারেনি কেউই, বিপক্ষ লাইনের ডিফেন্স লাইনের দৃঢ়তার জন্য। ভুলে যাওয়ার মত একটা ম্যাচ খেলেছেন ম্যানচেস্টার সিটির আইভোরিয়ান সুপারস্টার ইয়ায়া ট্যুরে, মিডফিল্ডে সেরকম কোন প্রভাব বিস্তার করতেই পারেননি তিনি। দুর্দান্ত খেলেছেন রাইটব্যাক সার্জ অওরিয়ের ও এরিক বেইলি।

bleacher report

পেনালি শুটআউটে প্রথে শট নিতে আসেন ঘানার মিডফিল্ডার মুবারাক ওয়াকাসো, যিনি কিনা রাশিয়ান ক্লাব রুবিন কাজানে খেলেন। আইভোরি কোস্টের হয়ে প্রথম পেনাল্টি ক্রসবারের উপর দিয়ে পাঠান মাত্র সোয়ানসি সিটি থেকে ম্যানচেস্টার সিটিতে যোগ দেওয়া স্ট্রাইকার উইলফ্রিয়েড বোনি। ঘানার হয়ে এরপর গোল করেন মার্শেই উইঙ্গার আন্দ্রে আয়েউ। এরপর আইভোরি কোস্টের হয়ে রোমার তরুণ ফরোয়ার্ড জুনিয়র টালো গাজি আবারও পেনাল্টি মিস করলে আবারও স্বপ্নভঙ্গের আশঙ্কায় কাঁপতে থাকে আইভোরিয়ানরা। এতটাই ভয়ে ছিলেন তারা যে ১২২ মিনিটে সাবস্টিটিউট হওয়া রোমা উইঙ্গার জার্ভিনহো মুখ ফিরিয়ে নিয়েছিলেন, পেনাল্টি শুটআউট দেখবেন না বলে!

ভয়!
ভয়!

কিন্তু ঘানার হয়ে ইতালিয়ান ক্লাব পারমায় খেলা মিডফিল্ডার আফ্রিইয়ে অ্যাকুয়াহ ও আন্ডারলেখট উইঙ্গার ফ্রাঙ্ক আচেয়াম্পং পরের দুই পেনাল্টি মিস করলে এবং আইভোরি কোস্টের হয়ে মাত্র এএস রোমায় যোগ দেওয়া স্ট্রাইকার সেইডু ডুম্বিয়া ও প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ের রাইটব্যাক সার্জ অওরিয়ের গোল করলে ম্যাচে ফেরে আইভোরি কোস্ট। পরের ১২টি পেনাটি ঘানা ও আইভোরি কোস্টের সবাই গোলে রূপান্তরিত করতে পারলেও শেষরক্ষা হয়নি ‘ব্ল্যাক স্টার’ খ্যাত ঘানাইয়ানদের। ঘানার গোলরক্ষন রাজাক ব্রিমাহ এর শট আটকে পরে নিজেই গোল দিয়ে ম্যাচ জেতান আইভোরি কোস্টের গোলকিপার বোবাকার ব্যারি। ঘোচান সুদীর্ঘ ২৩ বছরের অপেক্ষা।

daily mail
বিজয়ের মুহূর্ত
AP
জয়ের নায়ক বোবাকার ব্যারিকে কাঁধে নিয়ে মাঠ প্রদক্ষিণরত উইলফ্রিয়েড বোনি

গত তিন আফকন টুর্নামেন্টের মধ্যে এই নিয়ে দুটিই জিতলেন ফরাসী কোচ হার্ভ রেনার্ড, প্রথমটা ছিল ২০১২ সালে জাম্বিয়ার হয়ে।

টুর্নামেন্ট সেরা খেলোয়াড় হয়েছে ঘানার চেলসি উইঙ্গার ক্রিস্টিয়ান আটসু।

atsu

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

5 × 2 =