লংকার দুই শিক্ষা

শিক্ষা ১- পেপার পত্রিকা পড়লে ফ্লুক শব্দটার সাথে আগ ভালোমতোই পরিচয় হয়েছে । খেলাধুলা নিয়ে পড়লে এটা নিয়ে জেনে থাকবেন আরো ভালোমত । খেলাধুলাতে ফ্লুক বলতে সোজা কথায় ছোট দলের এমন সাফল্য পাওয়াকে বোঝায় যা আসলে তাদের ক্যালিবার আর ক্লাস অনুযায়ী পাবার কথা না কোনভাবেই । শ্রীলংকার নতুন দলের যেটা সবার আগে মাথায় রাখতে হবে সেটা হলো ফ্লুক দিয়ে টেস্ট সিরিজটা জেতা আসলে সম্ভব না । চান্দিমালকে অনেক দিন ধরেই দেখছি । ভালো দিনে খুবই দৃষ্টি সুখের , ওয়ানডেতেও ম্যাচ উইনার হবার যোগ্যতা রাখে । কিন্তু টেস্টে ভালো এটাকের সাথে প্রথম টেস্টের মত ঐরকম একটা ক্লাসি টন খেলে দেওয়া ? না … আসলে এটা চান্দির সাথে যায় না । একদম সেকেন্ড ইনিংসে ওভাবে অমন স্পিনিং উইকেটে একলা দাঁড়িয়ে অমন ইনিংস খেলা হাসি কিংবা ফ্যাফের সাথে যায় । চান্দিমাল ঠিক টেস্টের জন্যে এই প্লেয়ারটা না । তাই চান্দিমালের সেই কীর্তিকে আমি ফ্লুকই বলবো বারবার । তাই লংকার প্রথম শিক্ষা হলো ফ্লুকের ভরসা বাদ দিয়ে বহুদিন যে লাইনাপটাকে সাঙ্গা-জয়া সার্ভিস দিয়ে এসেছে , সেই লাইনাপের ভালো রিপ্লেসমেন্ট বের করা ।

শিক্ষা ২ – হোমে যত বেশি টেস্ট তারা খেলবে , তাদের রিবিল্ডিং করার ধাপটা তত সহজ হবে । আর এখানে খেলার সময় নিজেদের শক্তি বিচার করেই খেলার উইকেট বানানো দরকার । আর দরকার লম্বা সময়ের জন্যে একজন ম্যাচ উইনার । হেরাথের সময় শেষের দিকে । অবসর হবে আজকালের মধ্যেই । দুই দলের মধ্যে পার্থক্য গড়ে দিয়েছে শেষমেষ পূজারার ইনিংসটাই । অমন সলিড কাউকে আনতে হবে খুব জলদি । একজন ম্যাচ উইনারের জন্যে হাহাকার । অনেকটা আমাদের মতোই হাহাকারটা । টেস্টে ম্যাচ উইনার হওয়া সোজা কথা না । সেটা এখনো আমাদের নেই । নেই লংকানদেরও ।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

nineteen − 6 =