জুভেন্টাসে রোনালদো : চুক্তির বৃত্তান্ত

জুভেন্টাসে রোনালদো : চুক্তির বৃত্তান্ত

সবাইকে অবাক করে দিয়ে রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে জুভেন্টাসে নাম লিখিয়েছেন পর্তুগিজ মহাতারকা ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। এটা গতকালকের খবর। রিয়াল মাদ্রিদের খেলোয়াড় হিসেবে পাওয়া বেতন-ভাতা, সুযোগ-সুবিধা সবকিছু নিয়েই বিরক্ত রোনালদো “এই ছাড়ছি”, “এই ছাড়বো”, “ছেড়ে দিলাম কিন্তু” করতে করতে অবশেষে আসলেই রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে জুভেন্টাসে নাম লেখালেন তিনি। স্পেনে কর ফাঁকির মামলায় এমনিতেই জেরবার রোনালদো চেয়েছিলেন নেইমার ও মেসির সমান বেতন পেতে। নেইমার যেখানে সপ্তাহে ৬৫০,০০০ পাউন্ড ও মেসি যেখানে সপ্তাহে ৮৫০,০০০ পাউন্ড করে পাচ্ছেন, সে তুলনায় রোনালদোর কাছে তার নিজের ৩৫০,০০০ বেতনটা স্বাভাবিকভাবেই বেশ কম লেগেছিল। কিন্তু ৩৩ বছর বয়সী তারকাকে এত বেশী বেতন দিয়ে রাখার কোন ইচ্ছাই ছিল না রিয়াল মাদ্রিদের, তা সে যতই তাদের ইতিহাসের শ্রেষ্ঠতম গোলদাতা হোক না কেন। এ কারণেই জুভেন্টাসে নাম লিখিয়েছেন রোনালদো ।

জুভেন্টাসে রোনালদোর চুক্তিটা চার বছরের। অর্থাৎ এই চুক্তি অনুযায়ী ৩৭ বছর বয়স পর্যন্ত জুভেন্টাসে থাকবেন রোনালদো । চার বছরের এই চুক্তিতে প্রতি বছরে ৬০ মিলিয়ন ইউরো করে বেতন পাবেন রোনালদো। অর্থাৎ প্রতি মাসে রোনালদোর বেতন হবে ৫ মিলিয়ন ইউরো করে, প্রতি সপ্তাহে বেতন হবে ১,২৫০,০০০ ইউরো করে।

জুভেন্টাসে রোনালদো : চুক্তির বৃত্তান্ত
gollachhut.com

তবে এর মধ্যেও একটা ‘কিন্তু’ আছে। ইতালিতে যেকোন খেলোয়াড়েরই বেতনের ৫০% কর হিসেবে প্রদান করতে হয়। সে হিসাবে রোনালদোর বাৎসরিক বেতন দাঁড়াচ্ছে ৩০ মিলিয়ন ইউরো, মাসিক ২.৫ মিলিয়ন ইউরো ও সাপ্তাহিক ৬২৫,০০০ ইউরো। যেটা কি না অবশ্যই তাঁর মাদ্রিদে পাওয়া বেতন ৩৫০,০০০ এর অনেক বেশী, প্রায় দ্বিগুণ।

এদিকে রোনালদো কে পাওয়ার জন্য রিয়াল মাদ্রিদকে ১০৫ মিলিয়ন ইউরো প্রদান করেছে জুভেন্টাস। বেশ কিছুদিন আগেই রোনালদোর বাই-আউট ক্লজ (অন্য কোন ক্লাব রোনালদো কে কিনতে চাইলে যে পরিমাণ অর্থ অবশ্যই দিতে হত রিয়াল মাদ্রিদকে) ১ বিলিয়ন ইউরো থেকে কমিয়ে ১০ ভাগের ১ ভাগ করে ফেলেছে রিয়াল মাদ্রিদ – অর্থাৎ রিলিজ ক্লজ ১০০ মিলিয়ন ইউরো করে ফেলেছে তারা। এই ১০০ মিলিয়ন ইউরো দিয়েই রিয়াল মাদ্রিদ থেকে রোনালদো কে কিনে নিচ্ছে জুভেন্টাস, সাথে ঐ ফি এর ৫% বাবদ আরো ৫ মিলিয়ন ইউরো দিচ্ছে সলিডারিটি ফি হিসেবে। মোট ১০৫ মিলিয়ন ইউরো রিয়াল মাদ্রিদকে দিচ্ছে জুভেন্টাস।

মোটামুটি রোনালদোর পিছনে জুভেন্টাসে খরচ এটাই, যা শুধুমাত্র জুভেন্টাসই বহন করবে না। জুভেন্টাসে আসার সাথে সাথে গাড়ি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ফিয়াট রোনালদো কে তাদের মুখপাত্র বানানোর পরিকল্পনা করছে। জুভেন্টাসের মালিক আগনেল্লি পরিবারই ফিয়াটেরও মালিক। তাই এ ব্যাপারে বিশেষ সমস্যা হবেনা। ফিয়াটই রোনালদোর বেতনের একটা বিশাল অংশ বহন করবে বলে জানা গেছে।

 

আরও পড়ুন –

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

10 + five =