রোনালদো এবং রেকর্ড

রিসেন্ট ফর্মের উপর ভিত্তি করে কিছুদিন আগেই CIES এর এক জরিপে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে বর্তমান সময়ের সেরা স্ট্রাইকারদের তালিকায় রাখা হয়েছিল ২৯ নম্বরে! তবে সেটাই কি তাতিয়ে দিয়েছিল ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোকে? ওই জরিপ প্রকাশের পরের ম্যাচ দেখলে তা-ই মনে হবে। ওই জরিপের পরই তো গ্রানাডার বিপক্ষে সর্বশেষ ম্যাচে ৫ গোলের অসাধারণ এক কীর্তি করে লা লিগায় এখন ২১৩ গোলের মালিক বনে গেলেন পর্তুগিজ রাজপুত্র ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। আর সেই সাথে তিনি পেরিয়ে গেলেন স্প্যানিশ ফুটবল ইতিহাসের ভয়ংকরতম স্ট্রাইকারদের একজন পাহিনো-কে।

এই গ্যালিশিয়ান (স্পেনের একটি প্রদেশ) স্ট্রাইকারকে ছাড়িয়ে লা লিগার সর্বোচ্চ গোলদাতার তালিকায় রোনালদো এখন ৮ নম্বরে। বলা বাহুল্য যে এই কীর্তি করতে তাঁর মাত্র ৬ টি সিজন লেগেছে। তবে কথা সেটা না। কথা হল গিয়ে গতকাল মাত্র ৮ মিনিটের মাথায় হ্যাট্রিক করেছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। ফলে লা লিগার ইতিহাসে একজন নন-স্প্যানিয়ার্ড হিসেবে দ্রুততম হ্যাট্রিকের রেকর্ড হয়ে গেছে তাঁর। আর সেই সাথে রিয়ালের কোন খেলোয়াড় হিসেবে এক ম্যাচে ৫ গোলের কীর্তির জন্যও তাঁর নাম রেকর্ডবুকে নতুন করে লিখতে হয়েছে।

এগুলো ছাড়াও আরও দুটি যায়গায় রেকর্ড হয়ে গেছে তাঁর। আরেকটু স্পষ্ট করে বলতে গেলে বিশেষ একজন ব্যক্তির জোড়া রেকর্ডে ভাগ বসিয়েছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। লা লিগায় এই নিয়ে ৬ সিজনে মোট ৪ বার একই ম্যাচে চার বা ততোধিক গোল করে ফেললেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো এবং সেই সাথে রিয়ালের হয়ে ২৮ টি হ্যাট্রিক হয়ে গেল তাঁর। ঠিক এই একই কাজ করে দেখিয়েছিলেন রিয়াল মাদ্রিদের ইতিহাসেরই সেরা ফুটবলার কিংবদন্তি আলফ্রেডো ডি স্টেফানো।

তবে এবার রোনালদোর সামনে সুযোগ এসেছে রিয়ালের ইতিহাসের সর্বকালের সেরা ফুটবলারের সিংহাসনে শুধুই তাঁর নামটি খোদাই করে লেখানোর। বর্তমানে ৩২৩ গোল নিয়ে রিয়ালের অল টাইম টপ স্কোরারের তালিকায় এক নম্বরে আছেন কিংবদন্তি রাউল গঞ্জালেস। তবে এই কীর্তি করতে তাঁর লেগেছে ৭৪১ ম্যাচ! আর এইদিকে গতকালের ম্যাচের দ্বারা রিয়ালের হয়ে ৩০০ গোল করে ফেললেন ক্রিস। সেও কিনা মাত্র ২৮৭ ম্যাচে!! (রীতিমত বাঘের বাচ্চা)। যাই হোক আর দরকার মাত্র ২৪ টি গোল। আর তারপরই রোনালদোর রঙে মাতবে রিয়ালের রেকর্ড বুক। “কিংবদন্তি” ট্যাগটা তখন অফিসিয়ালি ঝুলবে রোনালদোর বুকে।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

15 − fourteen =