ইতালির ম্যানেজার হচ্ছেন রবার্তো মানচিনি

ইতালির ম্যানেজার হচ্ছেন রবার্তো মানচিনি

কানাঘুষা বেশ ক’দিন আগে থেকেই শোনা যাচ্ছিল। জিয়ামপিয়েরো ভেঞ্চুরা ইতালি দলকে স্মরণকালের সবচেয়ে খারাপ সময়ে নিমজ্জিত করার পরে নতুন কোচ আসাটা একরকম নিশ্চিতই ছিল। শোনা যাচ্ছিল কার্লো অ্যানচেলত্তি, রবার্তো মানচিনি, আন্তোনিও কন্তে, ক্লদিও রানিয়েরি বা ভারপ্রাপ্ত ম্যানেজার লুইজি ডি বিয়াজিওর মধ্যে কেউ একজন ইতালির ম্যানেজার হবেন, ইতালিকে আবার স্বর্ণালি সময়ে ফেরত নিয়ে যাওয়ার দায়িত্ব কাঁধে নেবেন। অবশেষে সকল জল্পনা কল্পন শেষে ইতালি জাতীয় দলের দায়িত্ব নিতে যাচ্ছেন সাবেক ম্যানচেস্টার সিটি, লাজিও, ফিওরেন্টিনা, গ্যালাতাসারাই, ইন্টার মিলান, জেনিত সেইন্ট পিটার্সবার্গ কোচ রবার্তো মানচিনি।

বর্তমানে জেনিতের দায়িত্বে থাকা রবার্তো মানচিনি ইতালির দায়িত্ব পাওয়ার জন্য প্রায় ১৫ মিলিয়ন ইউরো বেতন ছেড়ে দিতে রাজী হয়েছেন। জেনিতের সাথে তাঁর চুক্তি ছিল ২০২০ সাল পর্যন্ত, বাৎসরিক ৬ মিলিয়ন ইউরো বেতনে সেখানে রাখা হয়েছিল তাঁকে। আগামীকাল সোমবার দুই পক্ষের সমঝোতায় জেনিতের সাথে চুক্তি বাতিল করে রবার্তো মানচিনি রোমে আসবেন ইতালির দায়িত্ব নিতে। ইতালির সাথে তাঁর চুক্তি হতে যাচ্ছে দুই বছরের, প্রতি বছর ২ মিলিয়ন ইউরো করে উপার্জন করবেন তিনি। ইউরো ২০২০ তে কোয়ালিফাই করতে পারলে পাবেন আকর্ষণীয় বোনাস। এদিকে রাশিয়ান লিগেও জেনিতের অবস্থা ভালো নয়, রবার্তো মানচিনি কে ম্যানেজার করে আনার পরেও এবার লিগে পঞ্চম স্থানে থেকে লিগ শেষ করেছে তারা, হারিয়েছে চ্যাম্পিয়নস লিগে জায়গা করে নেওয়ার সুযোগ। খেলোয়াড়ি জীবনে স্ট্রাইকার হিসেবে খেলা ৫৩ বছর বয়সী এই ইতালিয়ান ম্যানেজার কাপ জিতেছেন লাজিও ও ফিওরেন্টিনার হয়ে, তবে তাঁর ক্যারিয়ারের সবচেয়ে বড় হাইলাইট খুব সম্ভবত ইন্টার মিলান ও ম্যানচেস্টার সিটির ম্যানেজার থাকার থাকার সময়টা। ইন্টারের ম্যানেজার থাকার সময় তিনবার সিরি আ, দুইবার কোপা ইতালিয়া ও দুইবার সুপারকোপা ইতালিয়ানা জিতেছেন রবার্তো মানচিনি। ৪৪ বছর পর ম্যানচেস্টার সিটিকে তিনিই এনে দিয়েছেন লিগজয়ের স্বাদ।

তবে কোচ হিসেবে ইতালি ফেডারেশনের সর্বপ্রথম পছন্দ ছিল সাবেক এসি মিলান, চেলসি, রিয়াল মাদ্রিদ, বায়ার্ন মিউনিখ, জুভেন্টাস ও প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ের ম্যানেজার কার্লো অ্যানচেলত্তি। তবে অ্যানচেলত্তি জানিয়ে দিয়েছেন এখনই জাতীয় দলের কোচ হবার ইচ্ছা নেই তাঁর, ক্লাবের ম্যানেজার হয়েই থাকতে চান তিনি।

বিশ্বকাপ ফুটবলে জায়গা না পাওয়া ইতালি থেকে বেশ ক’জন সুপারস্টার অবসর নিতে যাচ্ছেন, এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল কিংবদন্তী গোলরক্ষক জিয়ানলুইজি বুফন, ডিফেন্ডার আন্দ্রেয়া বারজাগলি। নতুন দিনের নতুন ইতালিকে কতদূর এগিয়ে নিতে পারবেন রবার্তো মানচিনি সেটার বিবেচনা সময়ের হাতেই তোলা থাকলো!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

10 + 20 =