যদি হালকা মাইন্ড না করেন ……আর কি

অ্যান্থনি মার্সিয়াল। কে এই খেলোয়াড়। আমি দাবী করতে পারি সিংহভাগ ম্যানচেষ্টার ইউনাইটেড সমর্থকের কোন ধারণা ছিল না কে এই মার্সিয়াল। কিন্তু তার জন্য ৩৫ মিলিয়ন !!! ব্যাপারটা বেশী হয়ে যাচ্ছে না ??? মনে হচ্ছে খুব বেশীই হয়ে যাচ্ছে। এক আর্সেনালের সাথে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচ ছাড়া গোটা ইউটুউবেও এই মার্সিয়ালকে নিয়ে তেমন কোন ভিডিও পর্যন্ত নেই সেই কিনা আগামীর অরি। মাথা ঠিক আছে তো?? নাকি অন্ধের মতনই সাপোর্ট করেন দলকে ?? লুই ভ্যান গাল যা করবে যা বলবে সবই হালাল ??
উপরের কথাগুলোই ঘুরপাক খাচ্ছিল আমার মাথায় যখন এই ১৯ বছরের আশ্চর্য দামী মার্সিয়ালের মেডিক্যাল হচ্ছিল ম্যানচেষ্টার ইউনাইটেডে। ভাবছিলাম এতো দিন যেই অ্যান্ডি ক্যারল কিনাবা ফেরনান্ডো টোরেসকে নিয়ে ব্যান্টার দিতাম লিভারপুল আর চেলসি ফ্যানদের, না জানি আমার ভাগ্যে কি অপেক্ষা করছে। ফুটবল নিয়ে বেশী মাতামাতি করার কারণে বন্ধুমহলে এমনিতেই ম্যানচেষ্টার ইউনাইটেডের সব হারের পর মস্করা ঠাট্টা সুন্তে হয়। মনে হচ্ছিল “এখন আমার কি হপে”। আর ব্রিটিশ মিডিয়ার উপর রাগ হচ্ছিল। শালারা এক সপ্তাহের মধ্যে আমাকে নেইমার থেকে চার্লি অস্টিনে নামায়ে আনল। তারপর এই নাম না জানা পোলারে আমার দলের সাথে লিঙ্ক করল। ফুটবল গ্রুপ আর পেইজগুলোর কল্যাণে আজকাল ফুটবলদের অভাব নাই। সবাইরে ব্যালন ডি ওঁর জিতার মতন খেলা লাগবে প্রতি ম্যাচে, কেন মেসিকে কেনা হচ্ছে না, “মেরা রোনাল্ডো আয়েগা” এইগুলা দেখে কমেন্টে একজনের মা বাপ উদ্ধার করা আজকাল কমন হয়ে দাঁড়িয়েছে। ের মধ্যে আবার অ্যান্থনি মার্সিয়াল। ধুর !!! আর শালার খেলাই দেখব না। যা আছে কপালে।
ম্যানচেষ্টার ইউনাইটেড বনাম লিভারপুল।
আমার কাছে ক্লাব ফুটবলের সবচেয় বড় খেলা। এইটা নাকি এখন কোলকাতার বস্তা পচা সিরিয়ালের থেকেও বোরিং। এক ফুলবল গ্রুপে দেখলাম। শালারপুতেরে ফুটবল খেলা দেখার লাইসেন্স কে দিছে জানতে ইচ্ছা করে। তারপর সব বাঁধা বিপত্তি উপেক্ষা করে খেলা দেখতে বসলাম। দেখি ভ্যান গাল চুলওয়ালা ফেলাইনিরে বানাইছে স্ট্রাইকার। মেজাজ খারাপ হওয়ার কথা কিন্তু কেমন জানি মজা লাগতেসিল। মনে হচ্ছিল কিছু একটা হবে আজকে। লিভারপুলের সবচেয় আজাইরা খেলা দেখলাম। বেনটেকের সেইরকম একটা গোল দেখলাম। ডেইলি বিন্ড (ড্যানি ব্লিন্ডের পোলা) গোল দিল ভ্যান গালের ফিলসফি অনুযায়ী। হেরেইরা যে দলে আছে সেইটা বুঝানোর জন্য স্কোরসিটে নাম লেখাইলো।
কিন্তু আমার এতোতোতো……… অপছন্দের সেই মার্সিয়াল একটা কাটাইয়া গোল দিল ক্যাম্নে ???? এখন ডেইলি মিররের কি হপে???? কি হপে আমার মতন সেইসব জোচ্চোর ফ্যানদের। যাদের জন্য পাঙ্খা কিংবা টেবিল ফ্যানই ঠিক আছে, যারা মনে করে ভ্যান গালের কোন ফুটবল সেন্স নাই, যারা মনে করে ডি মারিয়ার দলে থাকা উচিত ছিল, যারা বিশ্বের সেরা ক্লাবে লোনে যাওয়া চিচারিতোর জন্য কান্দে, এইসব যারা আসলে গ্লরি হান্টার।
মাঝে মধ্যে আমার লিভারপুল ফ্যানদের দেখে খুব্বব্বব্বব্বব হিংসা হয়, কারন আমার মনে হয় একমাত্র ওদের ফ্যানরাই আসল। ভাই আমি আসলে খেলা দেখি না, জার্সিটা ভাল লাগসে, এই শালাদের আসলে ঘিন্না লাগে আমার। আমার প্রিয়দল “বারসা” মেসি হাগা আমি পায়েস মনে করে খেয়ে ফেলব। যদি কিছু মনে না করেন জানতে পারি আমার হাগা কি হাগা মনে করে খাবেন ???? একবার এক বিশেষজন বলসিল আমার নাকি ইমসন বেশী, Now I think she has a point , you know. আচ্ছা আসল কথায় আসি, মার্সিয়াল গোল দিল, স্কাই স্পোর্টসের কমেন্ট্রি শুনে চোখে পানি চলে আসল। ওই সালারপুত মার্সিয়াল গোল দিছে, ওয় গোল দিছে। এখন তদের কি হবে রেহহহ “ডেইলি মিরর”। তদের ব্যাক পেইজে এখন কি আসবে ????
হয়ত মার্সিয়ালকে নিয়ে এখন মাতামাতি বেশী হচ্ছে, ওঁরি’কে তার থেকে ছোট খেলোয়াড় বলে ব্যান্টার বের হচ্ছে, ম্যেমেস বের হচ্ছে। কিন্তু সত্যি কথা হচ্ছে অনেক দূর জেতে হবে এই মার্সিয়ালকে। হয়ত তাহলেই কিছু একটা হবে। আশা করি আমার এই লেখা পড়ে আনন্দে আত্মহারা হয়ে মডেলদের সাথে ছবি তুলবে না এই মার্সিয়াল, নতুন ওঁরি না, নতুন একজন মার্সিয়াল দেখার অপেক্ষায় থাকলাম আমি।
(অনেক কথা লেখে ফেললাম, নিজের কথা , ঠিক কি ভুল জানি না, ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখুন, আপনার মা-বোনদের প্রতি সম্মান)

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

4 + 5 =