ম্যাচ রিভিউঃরিয়াল মাদ্রিদ বনাম শালকে

bleaherreport

ম্যাচ রিভিউঃরিয়াল বনাম শালকে

bleacherreport

শালকেকে ২-০ গোলে হারিয়ে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে এক পা দিয়ে রাখলো রিয়াল মাদ্রিদ। গোল করেছেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো এবং মার্সেলো।

bleaherreport
শালকের ঘরের মাঠ ‘ভেলটিনস এরেনা’য় ম্যাচের আগে থেকেই আলোচনায় ছিলেন ইউসিএল অভিষেকের অপেক্ষায় থাকা দুই তরুন রিয়ালের লুকাস সিলভা আর শালকের টিমন ওয়েলেনরুথার।
ইস্কো আর ক্রুসের সাথে প্রথম থেকেই মধ্যমাঠ সামলানোর দায়িত্ব পড়ে সিলভার উপর। এ ম্যাচ দিয়ে আবারো ইনজুরি কাটিয়ে মাঠে ফেরেন পেপে।
মাঝমাঠ থেকে লম্বা ক্রসে উইং দিয়ে খেলার মাধ্যমে শুরু করে রিয়াল। যার বেশিরভাগ ই দেওয়া হচ্ছিল গ্যারেথ বেলের দিকে। ৫-৩-২ এ খেলা শালকে ভালোই জবাব দিচ্ছিল তার। যদিও ২৫ মিনিট পর্যন্ত প্রতিপক্ষ ডিফেন্সকে চ্যালেঞ্জ জানানোর মত তেমন কোন সুযোগই তৈরী করতে পারেনি কোন দল। সাবেক রিয়াল মাদ্রিদ প্লেয়ার হুন্টেলার ই প্রথম পরীক্ষা নেন রিয়াল গোলবারে থাকা ইকার ক্যাসিয়াসের। হুন্টেলারের বক্সের বাইরে থেকে নেওয়া একটি শট রুখে দেন ইকার।
এরপরই একটি সংঘবদ্ধ আক্রমন থেকে বক্সের ডান পাশ থেকে করা কারভাহালের ক্রসে মাথা ছুয়ে বল জালে পাঠান ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।

bleacherreport
গোল পেয়েছেন ক্রিস্টিয়ানো

২৯৯ মিনিট গোল খরা কাটিয়ে রোনালদোর এই গোলের চাইতেও রিয়ালের জন্য বেশি গুরুত্বপূর্ণ ছিল রোনালদোর আত্মবিশ্বাস ফিরে পাওয়া। এর পর কয়েকটি দৃষ্টিনন্দন ড্রিবল,পাস এবং একটি দুর্দান্ত ফ্রিকিকে নিজের ফর্মে ফেরার জানানই যেন দিলেন সিআরসেভেন।
এর কিছুক্ষন পরই আঘাত পেয়ে মাঠ ছাড়েন হুন্টেলার। প্রিন্স বোয়াটেং ও হলুদ কার্ড দেখেছেন তার পরপরই ফলে তিনি মিস করবেন পরের লেগে রিয়ালের মাঠে হতে যাওয়া ম্যাচ।
শালকের হয়ে মাত্র তৃতীয় ম্যাচ খেলতে নামা ওয়েলেনরুথার ভালোই সামলেছেন রিয়ালের আক্রমন।টনি ক্রুসের পাস থেকে ওয়েলেনরুথারকে একা পেয়ে গিয়েছিলেন বেনজেমা কিন্তু তার দৃঢ়তায় সেবারে বেঁচে যায় শালকে। ৫ মিনিট পর রোনালদোর দুর্দান্ত ফ্রিকিক ঠেকিয়ে আবারো নিজের যোগ্যতার প্রমান রাখেন তিনি।
খেলার জমজমাট অংশ ছিল দ্বিতীয়ার্ধে।বেশিরভাগ সময় বল ছিল মধ্যমাঠে।৭০ মিনিটের সময় মার্সেলোর রক্ষনভুলে ভালো একটি সুযোগ পেয়ে যান হুন্টেলারের বদলে মাঠে নামা প্লাতে। তার জোরালো শট ক্যাসিয়াসকে পরাভুত করলেও বারে লেগে ফিরে আসে বল।ফিরতি শটেও গোল হতে পারত যদি না মার্সেলোর গায়ে লাগত।
এর মিনিট পাচেকের মাথায় বাম দিক থেকে তিনজনকে কাটিয়ে রোনালদো পাস দেন কাট ইন করে ভেতরে ঢুকে পড়া মার্সেলোকে।তার দুর্দান্ত বাঁকানো শটে ২-০ গোলের লিড পায় রিয়াল। গত সপ্তাহে দেপরতিভোর বিপক্ষে করা ইস্কোর গোলেরই রিপ্লে মনে হচ্ছিল গোলটি।

bleacherreport
গোল করার পর মার্সেলো’র উচ্ছ্বাস

শেষ পর্যন্ত ক্লিনশিট রেখে ২ গোলের লিডেই জয় পায় রিয়াল।
মধ্যমাঠে ইস্কো আর ক্রুস যথারীতি যথেষ্ট ভালো খেলেছেন।৯৩ ভাগ নির্ভুল পাস দিয়ে আক্রমনের পাশাপাশি রক্ষনেও উল্লেখযোগ্য ভুমিকা ছিল ক্রুসের।
আগের কয়েকটি ম্যাচের তুলনায় ভালো ছিল সেন্ট্রাল ডিফেন্স ও।ভারানের ক্লিয়ারেন্স,ইন্টারসেপশান,ট্যাকলের সাথে সাথে পেপে কিছু ভালো পাস ছিল দেখার মত।
যথারীতি বিবিসির কম্বিনেশান ভালো ছিল। বেলের কিছু ডিফেন্সিভ ওয়ার্কের কথা না বললেই নয়। রোনালদো ২০১৫ তে অন্যতম সেরা ম্যাচ খেলেছেন।
অভিষিক্ত লুকাস সিলভাও ছিলেন যথেষ্ট সলিড।ডিফেন্সে সহায়তার পাশাপাশি আক্রমনভাগে বেলের সাথে তার বোঝাপড়া ভবিষ্যতে বেশ কাজে দেবে বলেই মনে হচ্ছে।।

শেষমেশ,গতবারের মত ৬-১ না হলেও মুল্যবান ২ টি অ্যাওয়ে গোলে ঘরে ফিরছে রিয়াল এটাই বড় কথা।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

17 − one =