মুস্তাফিজের সীমানা, আকাশ!

বাচ্চাটা এত দ্রুত বল ভেতরে ঢোকানোও শিখে গেছে…! চিবাবা যে ডেলিভারিতে আউট… মারণাস্ত্র…!

তাঁর প্রথম ওভারে তিনটি বল দেখেই মন ভরে গেছে। আর কিছু না করলেও চলবে! সুইং-শেপ-সিম পজিশন…আহ!

ওভারের শেষ বলে, সুইংটা কাভার করার জন্য শাফল করে শেষ মুহূর্তে মিডল স্টাম্পে চলে এলেন ত্রেইগ আরভিন। সেটা খেয়াল করে একদম শেষ মুহূর্তে ফুল লেংথ বল করে দিলো…কত দ্রুত দারুণ ভাবে মাথা খাটালো!

পরের ওভার, প্রথম বলেই ডাউন দা উইকেটে এসে বলে পিচে গিয়ে চাকাভার দারুণ স্ট্রেট ড্রাইভে চার। পরের চার বল ছিল ছিল দারুণ বিনোদন। চাকাভাবে নাচিয়ে ছাড়ল, চারটা চার রকম ডেলিভারি! এত পরিণিতিবোধের প্রমাণ…কে বলবে বাচ্চা ছেলে!

প্রতিপক্ষ-সিচুয়েশন, বা ওভার-উইকেট সংখ্যা ভুলে যান, স্রেফ বোলিংটা দেখুন। ক্লাস! বিনোদন!

এভাবে, এত দ্রুত উন্নতি করতে থাকলে, এই ছেলের সীমানা আকাশ! কিংবা আকাশের চেয়েও বড়!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

14 − 2 =