মুসলমান মানেই জঙ্গি নয়!

টিভিতে অ্যাশেজ টেস্ট দেখার সময় বেশ মজার একটা ব্যাপার খেয়াল করলাম। বেশ কয়েকজন ইংলিশ দর্শক মুখে নকল লম্বা দাড়ি পরে বসে আছে। কিছুক্ষণ পর বুঝলাম এরা হলো ইংল্যান্ড দলে খেলা মঈন আলীর সাপোর্টার। এরকম সাউথ আফ্রিকার খেলার সময়ও দেখেছি, সাউথ আফ্রিকার শেতাঙ্গ লোকেরা মুখে আলগা দাঁড়ি লাগিয়ে আসে হাশিম আমলার জন্য। মঈন আলী হাশিম আমলার মত এত বিখ্যাত না। তাও আজ ইংল্যান্ড যখন বিশাল ব্যাবধানে অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে দিলো তখন দেখি দর্শকেরা মঈন আলীর নাম লেখা প্লে-কার্ড নিয়ে নাচানাচি করছে … মনটাই ভালোহয়ে গেলো!!
.
একই সময়ে সারা দুনিয়ায় মুসলিমদের একটা বাজে ব্র্যান্ডিং এমন ভাবে করা হচ্ছে যেন মুসলিম মানেই জঙ্গি, হলিউডের মুভিতে দেখানো হচ্ছে- প্লেনের মধ্যে লম্বা দাঁড়ি টুপি ওয়ালা লোক দেখলেই প্লেন থামিয়ে দিচ্ছে সন্ত্রাসী সন্দেহে, উল্টোদিকে সেই লম্বা দাঁড়ি নিজেরাই পরে মাঠে চলে আসছে সাপোর্ট করার জন্য! দোষটা তাহলে কার? মুসলিমদের দাঁড়ি টুপির নাকি যারা আড়ালে কাল কাঠি নেড়ে ইসলাম সম্পর্কে একটা নেগেটিভ ইমেজ দাঁড় করাচ্ছে? নাকি বলবেন হাশিম আমলা-মঈন আলীরা সহিহ মুসলিম নয় কেননা তারা সিরিয়া-ইরাক-নাইজেরিয়ায় গিয়ে IS-বোকোহারামের হয়ে ইহুদি-নাসারা-শিয়াদের কতল না করছে না, তার বদলে বেধর্মী দলের হয়ে ক্রিকেট খেলছে বলে? নিজদলে সংখ্যা লঘু হয়েও, কট্টর ধার্মিক মুসলিম হয়েও সারা দুনিয়ার মানুষের যে ভালোবাসা হাশিম আমলা পায় তার কি কোন তুলনা আছে? সে একা মুসলিমদের যে পরিমাণ ভালো ইমেজ তৈরী করছে, আপনারা পারবেন? নিজে ভালো মানুষ হলে, স্বভাবে আচরণে সর্বোত্তম হলে একসময় মানুষ এমনিতেই তোমার প্রতি, তোমার ধর্মের প্রতি আকৃষ্ট হবে। উদাহরণ স্বরূপ, পারনেল যদি সত্যিই মুসলিম হয়ে থাকে বা সাউথ আফ্রিকা দলে ঢুকার সময় ক্লিন শেইভড, চুলে কালার করা ইমরান তাহির হঠাৎ লম্বা দাড়ি রেখে ভদ্র হয়ে গেছে- এর পিছনে কি হাশিম আমলার কোন অবদানই নেই?
.
আর হাশিম আমলা কোন লেভেলের মানুষ তা বুঝার জন্য তার সম্পর্কে ডেইল স্টেইনের বলা একটা কথাই যথেস্টঃ ” আমার যদি কখনো ইন্সপায়রেশনের দরকার হয় আমি তখন যাস্ট বাম পাশে তাকিয়ে হাশিম আমলাকে কুরআন পড়তে দেখি। হোয়াট এ লিজেন্ড!!” 

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

9 + twenty =