মিরাজের স্বপ্নের অভিষেক

ওয়াইড অব দা ক্রিজ বল করে, লেগ স্টাম্পে পিচ করে গ্রিপ-টার্ন, বাড়িয়ে ধরা ব্যাটকে ‘বাই বাই’ জানিয়ে অফ স্টাম্পে বলের চুমু, অফ স্পিনারদের স্বপ্নের এক ডেলিভারিতে প্রথম উইকেট… দ্বিতীয় উইকেটও অসাধারণ এক ডেলিভারিতে… প্রথম দুটি টেস্ট উইকেট হয়ত কখনোই ভুলবেন না মেহেদি হাসান মিরাজ!

ওয়ানডে সিরিজ শেষ হওয়ার পরই বাংলাদেশের টিম ম্যানেজমেন্ট মাঠের কিউরেটরকে সোজাসাপ্টা বলে দিয়েছিল, টেস্টের জন্য টার্নিং উইকেট চাই। দরকার হলে টেস্ট তিন দিনে শেষ হবে, এরকম টার্নিং…এরপর যা হবার হবে… টেস্টের প্রথম সকালে সেটিরই প্রতিফলন!

জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামের উইকেট টেস্টের শেষ দুই দিনে নাটকীয় ভাবে ব্যাটিং স্বর্গ হয়ে ওঠার নজীর আছে বেশ কবার। এবারও কি সেরকম কিছুর সম্ভাবনা/শঙ্কা আছে? তার চেয়েও বড় কথা, টেস্ট চতুর্থ দিনে যাবে তো..? 😉

ঘুর্ণি বল দেখতে কিছু স্ট্যাটের কপচানি…

বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি ওয়ানডে খেলে টেস্ট অভিষেক:
(দেশের অভিষেক টেস্টের পর)

সাকিব আল হাসান: ৩১

সাব্বির রহমান: ২৯

এনামুল হক: ২৫

মাহমুদউল্লাহ: ২৪

তামিম ইকবাল : ২১
…………………………………………

অভিষেক টেস্টের সময় :

আমিনুল ইসলাম: ৩৭

আকরাম খান : ৩৫

খালেদ মাসুদ : ৩১

*** অভিষেক টেস্টের পর একসঙ্গে অন্তত তিন জনের অভিষেক দেশের মাটিতে এই প্রথম। দেশের বাইরে হয়েছিল চারবার। দেশের দ্বিতীয় টেস্টেই চার জন, দ্বাদশ টেস্টে ২০০২ সালে কলম্বোর পি সারা ওভালে ৪ জন, পরের টেস্টেই কলম্বোর এসএসসিতে ৩ জন, আর এবারের আগে সবশেষ ২০০৮ সালের জানুয়ারিতে ডানেডিনে ৩ জন-তামিম, জুনায়েদ, সাজেদুল।

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

13 + seventeen =