মানুষ প্রজাতির সত্যিকারের প্রতীক – উসাইন বোল্ট

স্প্রিন্ট ব্যাপারটাকে একটা ফাজলামো বানিয়ে ফেলেছে উসাইন বোল্ট। স্প্রিন্টে অনিশ্চয়তা ব্যাপারটির অস্তিত্বই অনিশ্চিত করে তুলেছে। বোল্ট থাকা মানে সবই নিশ্চিত। অলিম্পিকের ১০০ মিটার স্প্রিন্টের মত ইভেন্টে শেষ ১০-১৫ মিটার যে হেলাফেলা করে ফাজলামো করে দৌড় শেষ করে, তাকে নিয়ে নতুন করে বলারই বা কী আছে! আজকেও ২০০ মিটারে এতটা এগিয়ে ছিল, মনে হলো যেন শেষদিকে একটু ঢিল দিলেন। যেন ভাব, কি হবে এত দ্রুত দৌড়ে! কে বলবে, এই লোক দীর্ঘদিন ইনজুরি কাটিয়ে ফিরেছে ট্র্যাকে, এখনও চোট পুরোপুরি ছেড়ে যায়নি তাকে! তার পরও বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশীপের স্প্রিন্ট ডাবল….
মাঝে মাঝে বোল্টকে মানুষ মনে হয় না…মানুষ হতেই পারে না! আবার মনে হয়, বোল্টই মানুষ প্রজাতির সত্যিকারের প্রতীক। মানুষের সীমা যে সীমাহীন, সেটার উজ্জ্বলতম উদাহরণ!

কমেন্টস

কমেন্টস

মন্তব্য করুন

20 − 5 =